বুধবার   ২০ নভেম্বর ২০১৯   অগ্রাহায়ণ ৫ ১৪২৬  

আবরার হত্যা নিয়ে ভারতীয় তরুণীর যে স্ট্যাটাস ভাইরাল

লাইফ টিভি 24

প্রকাশিত : ১০:০১ পিএম, ৮ অক্টোবর ২০১৯ মঙ্গলবার

বাংলাদেশ প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয়ের (বুয়েট) দ্বিতীয় বর্ষের ছাত্র আবরার ফাহাদ হত্যা ঘটনায় সর্বত্রই চলছে আলোচনা-সমালোচনা। দেশের গণ্ডি ছাড়িয়ে তা বহির্বিশ্বেও আলোচনার খোরাক হয়েছে। 
এ হত্যাকাণ্ডে বিস্ময় প্রকাশ করেছেন ভারতের জয়দেবপুর বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী তনুশ্রী রায়।  আবরার হত্যার প্রতিবাদ করে সোশ্যাল মিডিয়া ফেসবুকে নিজের ভেরিফায়েড পেজে একটি স্ট্যাটাস দিয়েছেন। মুর্হূতেই সেটি ভাইরাল হয়ে গেছে।
তনুশ্রীর সেই স্ট্যাটাসটি হুবহু তুলে ধরা হলো- 
যদিও আমি ভারতীয় তারপরও বাংলাদেশের প্রতি আমার আলাদা একটা টান রয়েছে।
কারণ আমার পূর্বপুরুষ বাংলাদেশেরই মানুষ ছিলেন ৪৭'র দেশভাগের পর ভারতে চলে আসেন। বাংলাদেশের মানুষ ভালো থাকুক এটা আমি সবসময় চাই।
শুনলাম ভারত-বাংলাদেশের চুক্তি নিয়ে স্ট্যাটাস দেয়ায় একজন বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্রকে হত্যা করা হয়েছে। স্ট্যাটাসটা আমি পড়লাম, নিজের দেশের স্বার্থ নিয়ে লিখার জন্য কিভাবে নিজের দেশেরই লোক একটা ছেলেকে এভাবে পিটিয়ে হত্যা করে ফেলে এটা আমার কাছে আশ্চর্য লাগছে।
সামান্য ফেসবুক স্টাটাসের কারণে মানুষ খুন করে ফেলা হচ্ছে বাংলাদেশে। কিভাবে এমন একটা দেশে মানুষ বাস করে!
রোববার রাতে আবরারকে পিটিয়ে হত্যা করে বুয়েট শাখা ছাত্রলীগ কর্মীরা। সোমবার ভোরে শেরেবাংলা হলের প্রথম ও দ্বিতীয় তলার সিঁড়ির মধ্যবর্তী জায়গায় তার নিথর দেহ পাওয়া যায়। শরীরে অসংখ্য আঘাতের চিহ্ন ছিল।
আবরার বুয়েটের ইলেকট্রিক্যাল অ্যান্ড ইলেকট্রনিক ইঞ্জিনিয়ারিংয়ের (ইইই) বিভাগের লেভেল-২ এর টার্ম ১ এর ছাত্র ছিলেন। তিনি শেরেবাংলা হলের ১০১১ নম্বর কক্ষে থাকতেন। তার বাড়ি কুষ্টিয়া শহরে। কুষ্টিয়া জেলা স্কুলে তিনি স্কুলজীবন শেষ করে নটরডেম কলেজ থেকে এইচএসসি পাস করেন।