ঢাকা, ২৬ জানুয়ারি মঙ্গলবার, ২০২১ || ১২ মাঘ ১৪২৭
good-food
১২৬

গরু না মহিষের দুধ, কোনটা বেশি পুষ্টিকর?

লাইফ টিভি 24

প্রকাশিত: ২০:২৫ ২৫ ডিসেম্বর ২০২০  

সুষম খাবার মানেই দুধ। এ কথা সবাই জানেন। দুধ খেলেই সব খাদ্যগুণ শরীরে ঢুকবে। তাই পান করতে না চাইলে বাচ্চাদের তা কোনোমতে করাতে পারলেই মায়েদের চিন্তা কমে। 

 

আগে দেশি গরুর থেকে দুধ মিলতো। সবার খাদ্যতালিকার প্রধান অংশ সেটি। নিয়মিত দুধ পান করলে পাওয়া যায় প্রোটিন, ভিটামিন ডি, ভিটামিন বি ১২, রাইবোফ্লাভিন, পটাসিয়াম, ফসফরাস, সেলেনিয়াম এবং স্বাস্থ্যকর ফ্যাট। এতে হাড় মজবুত হয়।


বাংলাদেশে গরু ও মহিষের দুধ পানীয় হিসেবে সবচেয়ে বেশি ব্যবহৃত হয়। কিন্তু জানেন কী? এর মধ্যে কোন দুধ বেশি উপকারী? এর আগে জেনে নিন যেকোনো দুধ ক্যালসিয়ামে পূর্ণ। এটি পুষ্টির দুর্দান্ত উৎস। যদি দুই ধরনেরই পান করেন, তাহলে গরুর ও মহিষের মধ্যে পার্থক্য জেনে রাখা দরকার।


১০০ মিলি মহিষের দুধে ১০০ ক্যালোরি থাকে। যেখানে গরুর দুধে ক্যালোরির পরিমাণ ৬৮-৭০ ক্যালোরি। এছাড়া গরুর দুধ সালফার সমৃদ্ধ। রয়েছে হলুদ রঙের বিটা ক্যারোটিন। যা মহিষের দুধে নেই। এগুলো শরীরে পুষ্টি জোগানোর পাশাপাশি মস্তিষ্ককে ক্ষুরধার করে। 

যারা ওবেসিটি (স্থূলতা) এড়াতে চান, তারা অবশ্যই গরুর দুধ ডায়েটে রাখুন। যেকোনও বয়সের মানুষ তাই এ দুধ নিয়মিত পান করতে পারেন। তবে দুধের ল্যাকটোজে অ্যালার্জি হয় অনেকেরই। তাই যাদের এ সমস্যা নেই, তারা নিয়মিত এটি পান করতে পারেন। এতে শরীর পুষ্ট হবে। মজবুত হবে হাড়, দাঁত। তবে হজমের সমস্যা থাকলে মহিষের বদলে গরুর দুধই বেছে নিন।


পার্থক্য

ফ্যাট
গরুর ও মহিষের দুধের মধ্যে কিছু শতাংশ ফ্যাট থাকে। কিন্তু যখন এ দুয়ের তুলনা হয়, তখন দেখা যায় গরুর দুধে অনেক কম ফ্যাট মহিষের তুলনায়। গরুর দুধে ফ্যাটের পরিমাণ ৩-৪ শতাংশ। কিন্তু মহিষের ক্ষেত্রে তা গিয়ে দাঁড়ায় ৭-৮ শতাংশে। মহিষের দুধে প্রতি ১০০ মিলিতে ফ্যাট থাকে সাত গ্রাম। গরুর প্রতি ১০০ মিলিতে চার গ্রাম ফ্যাট থাকে। গরুর থেকে মহিষের দুধে ক্যালোরিও বেশি।


পানি
হাইড্রেশন এর মাত্রা ঠিক রাখে শরীরের পানি। সেক্ষেত্রে গরুর দুধের প্রায় ৯০ শতাংশ পানি। সুতরাং যদি সারাদিন নিজেকে ভালো রাখতে হয়, তাহলে দিনের শুরুতে গরুর দুধ পান উপকারী।


প্রোটিন
সব ডেইরি প্রোডাক্টেই অল্প প্রোটিন রয়েছে। এক্ষেত্রে মহিষের দুধে প্রোটিন গরুর দুধের চেয়ে ১০-১২ শতাংশ বেশি। সেজন্য বাচ্চাদের ও বয়স্কদের মহিষের দুধ পান করা উচিত নয়। এতে হাইপ্রোটিন রয়েছে।


কোলেস্টরল
উভয়ের দুধেই ফ্যাট ও প্রোটিন রয়েছে। তবে যখন কোলেস্টেরল নিয়ে কথা ওঠে, তখন মহিষের দুধ জিতে যায়। অর্থাৎ মহিষের দুধে গরুর দুধের তুলনায় অনেক কম কোলেস্টেরল রয়েছে।


পুষ্টি
মহিষের দুধে ক্যালসিয়াম, ফসফরাস ও ম্যাগনেসিয়াম ও পটাসিয়াম বিদ্যমান। কিন্তু ভিটামিন বেশি মেলে গরুর দুধ থেকে। তবে উভয়ই পুষ্টিগুণে পূর্ণ। তো কোনটা খাবেন, সেটা স্বাদের ওপর নির্ভর করে।