ঢাকা, ০১ ডিসেম্বর বৃহস্পতিবার, ২০২২ || ১৭ অগ্রাহায়ণ ১৪২৯
good-food
৭৯

দালালি তোষামোদি বাদ দিয়ে সত্যিকারে ভালো কিছু করুন

লাইফ টিভি 24

প্রকাশিত: ২২:২০ ১২ অক্টোবর ২০২২  

সারা দুনিয়ায় জ্ঞান বিজ্ঞান তথা জগতের উন্নয়নে বিশেষ অবদানের জন্য পৃথিবীর বিভিন্ন দেশের মানুষ স্বীকৃতি পেয়ে থাকেন। অবদান স্বীকৃতির অবিরাম ধারাটি কিছু দেশের মানুষের সঙ্গে যেন খুবই পরিচিত ঘনিষ্ঠ। বিতর্ক লে পক্ষে-বিপক্ষে অজস্র তথ্য যুক্তি থাকতেই পারে। তবে কিছুটা সরলীকরণ রে বলা যায়, কিছু দেশ বা অঞ্চল বিষয়ে সবসময় অগ্রগামী। বেশীরভাগ দেশ উত্তর আমেরিকা ইউরোপের।

 

জ্ঞান অর্জনের জন্য চীন দেশে যাও এমন একটি পুরাতন কথা অনেক মানুষের জানা থাকলেও বাস্তবে বেশিরভাগ মানুষ যায় উত্তর আমেরিকা ইউরোপ মহাদেশের বিভিন্ন দেশে। (অবৈধ অর্থ সম্পদ পাচার করলেও সেসব দেশেই করে)। গণমাধ্যম সামাজিক মাধ্যম থেকে জানা যায় যে, পৃথিবীর শ্রেষ্ঠ বিদ্যাপীঠগুলোর বেশিরভাগ সেসব দেশেই অবস্থিত।

 

জনসংখ্যার বিচারে পৃথিবীর অষ্টম বৃহত্তম দেশ বাংলাদেশ। পৃথিবীর শ্রেষ্ঠ এক হাজার বিশ্ববিদ্যালয়ের মধ্যে বাংলাদেশের একটিও নাই। কেন নাই? প্রশ্নও হয়তো করা হয় না। করবেই বা কে? এত মানুষের দেশে কী মেধার জন্ম হয় না? নিশ্চয়ই হয়। মেধার লালন উৎকর্ষ সাধনের মাধ্যমে মানসিকভাবে দায়বদ্ধ নৈতিকভাবে উন্নত মানুষ সৃষ্টির কোনো চেষ্টা বা ব্যবস্থা দেশে নাই।

 

দেশের মেধাগুলো সীমাহীন প্রতিকূলতায় রে যায়, চে যায়, শেষ হয়ে যায়। দেশের বেশিরভাগ মানুষের সময় ব্যয় হয় জমি, নারী, অর্থ এবং বিভিন্ন স্তরের ক্ষমতা সংক্রান্ত জটিলতায় সৃষ্ট মামলা মোকদ্দমা আর প্রকাশ্য কিংবা গোপন শলা-পরামর্শ অস্থিরতায়।

 

অনেকের সময় কাটে অবৈধভাবে অর্জিত অর্থ সম্পদের ভিত্তিতে অতিরিক্ত ভোগ বিলাসে। এমন বাস্তবতায় মেধার বিকাশ হবে না, উন্নত মানুষ সৃষ্টি হবে না। তারপরও কিছু মানুষ এসব নিয়ে সক্রিয়ভাবে ভাবলে হয়তো উত্তরণের কিছু পন্থা উদ্ভাবিত হবে। ওগো এদেশের জ্ঞানী- গুণী মানুষেরা, দালালি আর তোষামোদি বাদ দিয়ে সত্যিকারভাবে ভালো কিছু করুন। চলমান আর অনাগত মহাকালের অভিযোগ থেকে কিছুটা দায়মুক্তির চেষ্টা করুন।

 

লেখক: খায়রুল আনাম

সাবেক অতিরিক্ত সচিব, বাংলাদেশ সরকার

মুক্তমত বিভাগের পাঠকপ্রিয় খবর