ঢাকা, ২৭ জানুয়ারি বুধবার, ২০২১ || ১৩ মাঘ ১৪২৭
good-food
১৭২

যে কারণে শীতকালে আমলকি খাওয়া জরুরি

লাইফ টিভি 24

প্রকাশিত: ২২:০৬ ২৫ নভেম্বর ২০২০  

আমলকির নানা গুণ। চুলের বৃদ্ধি, রুক্ষতা হ্রাস, ত্বকের উজ্জ্বলতা, পেটের গোলযোগ দূর, শরীর চাঙ্গা-এমন হাজারও সমস্যার সমাধান করে এটি। মা-চাচীদের বানানো আমলকির আচার কিংবা মোরব্বা অথবা সকালে কাঁচা, ভাতে সিদ্ধ খেতেই পারেন আপনি।

 

এখন চলছে শীতকাল। এসময়ে আমলকি খাওয়া জরুরি। যেসব গুণাগুণের কারণে এটি খেতে হবে-

 

রোগ-প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়ায়
আমলকিতে প্রচুর পরিমাণে ভিটামিন সি এবং অ্যান্টি অক্সিডেন্ট রয়েছে। এ দুই উপাদান বিপাকের হার বাড়ায়। এ ফল সর্দি-কাশির সঙ্গে লড়তে সাহায্য করে। আমলকি, গুড় ও সন্দক লবণ দিয়ে ক্যান্ডি বানিয়েও খাওয়া যায়। দিনে তিন চারবার খাওয়া যেতে পারে। অবশ্য আহারের পর খেতে হবে। এতে ভাইরাল ও ব্যাকটেরিয়াল আক্রমণ হয় না।

 

ডায়াবেটিস নিয়ন্ত্রণে রাখে
আমলকিতে প্রচুর পরিমাণে ক্রোমিয়াম আছে। এটি ডায়াবেটিস নিয়ন্ত্রণে সাহায্য করে। তবে ডায়াবেটিস রোগীরা ভাববেন না চিকিৎসকের দেয়া ওষুধের বদলে এটি খেতে হবে। বরং ওষুধের পাশাপাশি প্রতিদিনের ডায়েটে রাখতে পারেন আমলকি।

 

সর্দি-কাশি দূরে থাকে
কমলালেবুর চেয়ে ৮ গুণ বেশি ভিটামিন সি রয়েছে আমলকিতে। বেদানার চেয়ে ১৭ গুণ বেশি অ্যান্টি অক্সিডেন্ট রয়েছে এতে। এক গ্লাস পানিতে দু’ চামচ আমলকি পাউডার, দু’চামচ মধু দিয়ে খেলে সর্দি-কাশিতে খুব আরাম পাওয়া যায়। দিনে তিন চারবার খেতে হবে এটি।

 

চুল ও ত্বকের সুরক্ষায়
অসময়ে চুল পেকে যাওয়া আটকাতে পারে আমলকি। এছাড়া চুলের গোড়া মজবুত করতে, খুশকি দূর করতে এবং ত্বকের বুড়িয়ে যাওয়া কমাতেও সহায়তা করে এটি।

 

হজম শক্তি বাড়ায়
আমলকি পাচন ক্রিয়ায় খুব সাহায্য করে। কোষ্ঠকাঠিন্য দূর করে এটি। বদহজম এবং অ্যাসিডিটিতেও খুব কাজে দেয়।