ঢাকা, ১৯ জুন বুধবার, ২০২৪ || ৫ আষাঢ় ১৪৩১
good-food
১০৮

ভালো ভাবুন, ভালো থাকুন

লাইফ টিভি 24

প্রকাশিত: ১৩:৪৬ ২০ মে ২০২৪  

ভালো থাকতে চাই আমরা সবাই। নিজে ভালো থাকতে চাই। পরিবারকে ভালো রাখতে চাই। চাই সমাজ এবং দেশটাও থাকুক ভালো। ভালো থাকার মোক্ষম ও কার্যকর একটি উপায় ভালো ভাবনা। ভাবনা ভালো ও সঠিক হলে স্বয়ংক্রিয়ভাবেই ভালো ও ইতিবাচক হয়ে ওঠে আমাদের কথা।

 

আমাদের কাজগুলোও তখন হয় ভালো এবং কল্যাণকর। আর এখানেই মেডিটেশনের গুরুত্ব। কারণ অন্তর্জগতে ভাবনার পথ ধরেই নির্মিত হয় আমাদের বহির্জগতের বাস্তবতা। নিয়মিত মেডিটেশন চর্চায় আমাদের মনোজগৎ সুগঠিত হয়। মন থাকে সুরক্ষিত। জীবনদৃষ্টি হয় সঠিক। 

 

ভালো ভাবনার জন্যে যা সবচেয়ে জরুরি

শরীর মন পেশা পরিবারসহ জীবনের প্রতিটি অধ্যায়ে সুস্থ সফল ও সুখী হয়ে ওঠার লক্ষ্যে বর্তমানে যত বিজ্ঞানস্বীকৃত পন্থা ও প্রক্রিয়া বিশ্বজুড়ে প্রতিষ্ঠিত, সব কটির মূল সূত্র ঘুরেফিরে এটাই। পৃথিবীর প্রথমসারির বিশ্ববিদ্যালয়গুলোতে পড়ানো হচ্ছে এ-সম্পর্কিত যত কোর্স, তারও গোড়ার কথা এই এটাই।

 

তাই আসুন, নিয়মিত মেডিটেশন করি। ভালো ভাবি, নিজেকে নিয়ে, পরিবার নিয়ে, পারিপার্শ্বিকতা এবং আমাদের প্রিয় দেশটাকে নিয়ে। ভালো বলি। ভালো করি। পরম করুণাময়ের ইচ্ছায় সবাই ভালো থাকি।

 

সাম্প্রতিক কিছু গবেষণাতেও একই রকম ফলাফল দেখা গেছে। জনস হপকিনস বিশ্ববিদ্যালয়ের বিজ্ঞানীরা দেখতে পেয়েছেন, যারা ইতিবাচক চিন্তা করে এবং আশাবাদী, তাদের হার্ট অ্যাটাকের আশঙ্কা হতাশ বা নেতিবাচক চিন্তা করা মানুষের থেকে কম। তবে এ ব্যাপারে বিস্তারিত গবেষণার প্রয়োজন রয়েছে।

 

ইউনিভার্সিটি অব ক্যালিফোর্নিয়া লস অ্যাঞ্জেলেসের বিজ্ঞানীরা বলছেন, যারা ইতিবাচক বা আশাবাদী, অকারণে দীর্ঘ সময় ধরে দুশ্চিন্তা কম করে, তাদের রোগ প্রতিরোধী ক্ষমতা, অর্থাৎ ভাইরাস বা ব্যাকটেরিয়া ঢুকলে প্রতিরোধ করার ক্ষমতা নেতিবাচক, হতাশ দীর্ঘ সময় ধরে অকারণে দুশ্চিন্তা করা ব্যক্তিদের থেকে বেশি।

 

বিজ্ঞানীরা বলছেন, স্বল্প সময়ের দুশ্চিন্তা বা উদ্বেগ রোগ প্রতিরোধী ব্যবস্থায় কোনো প্রভাব ফেলে না। স্বল্প সময়ের উদ্বেগ সাধারণ জীবনযাপনের অংশ।