ঢাকা, ১৭ অক্টোবর বৃহস্পতিবার, ২০১৯ || ২ কার্তিক ১৪২৬
LifeTv24 :: লাইফ টিভি 24
৩০৭

বাবার কবরের পাশে শায়িত হবেন নাট্যজন মমতাজ উদ্দিন

প্রকাশিত: ১৮:৩৭ ২ জুন ২০১৯  


চাঁপাইনবাবগঞ্জের ভোলাহাটে বাবার কবরের পাশে দাফন করা হবে প্রখ্যাত অভিনেতা, নাট্যকার, শিক্ষাবিদ অধ্যাপক মমতাজ উদ্দিন আহমেদকে।

রাজধানীর গুলশান আজাদ মসজিদে ধোয়া ও কাফন পরানোর পর মরদেহ নেয়া হবে মিরপুর রূপনগরের বাসভবনে। রাতে সেখানেই থাকবে কফিন।

কাল সোমবার সকাল ১০ টায় ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় কেন্দ্রীয় মসজিদে নামাজে জানাজা অনুষ্ঠিত হবে। সেখান থেকে মরদেহ নেয়া হবে ভোলাহাটে গ্রামের বাড়িতে।

রাজধানীর অ্যাপোলো হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় আজ রোববার ( জুন) বিকেল ৩টা ৪৮ মিনিটে ইন্তেকাল করেন প্রিয় নাট্যজন অধ্যাপক মমতাজ উদ্দিন আহমেদ। মৃত্যুকালে তাঁর বয়স হয়েছিল ৮৫ বছর।
মমতাজউদদীন আহমেদ এর মৃত্যুতে গভীর শোক দুঃখ প্রকাশ করেছেন রাষ্ট্রপতি আব্দুল হামিদ, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা জাতীয় পার্টির ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান জিএম কাদের এমপি।

ভাষাসৈনিক মমতাজউদদীন আহমদ স্বাধীনতা উত্তর বাংলাদেশের নাট্য আন্দোলনের পথিকৃত। এক অঙ্কের নাটক লেখায় বিশেষ পারদর্শিতার স্বাক্ষর রেখেছেন তিনি। নাটকে বিশেষ অবদানের জন্য তিনি ১৯৭৬ সালে বাংলা একাডেমি সাহিত্য পুরস্কার ১৯৯৭ সালে একুশে পদক লাভ করেন।

১৯৩৫ সালের ১৮ জানুয়ারি ব্রিটিশ ভারতের পশ্চিমবঙ্গ রাজ্যের অন্তর্গত মালদহ জেলার হাবিবপুর থানার আইহো গ্রামে জন্মগ্রহণ করেন মমতাজউদদীন আহমদ। দেশ বিভাগের পর তার পরিবার তদানিন্তন পূর্ববঙ্গে চলে আসে। তার বাবার নাম কলিমুদ্দিন আহমদ মায়ের নাম সখিনা বেগম।

শিল্প সাহিত্যে অনন্য অবদানের জন্য তিনি জাতীয় আঞ্চলিক পর্যায়ে বেশ কিছু পুরস্কার পেয়েছেন। তার মধ্যে বাংলা একাডেমি সাহিত্য পুরস্কার (১৯৭৬), একুশে পদক (১৯৯৭), নাট্যকলায় অবদানের জন্য ২০০৮ সালে বাংলাদেশ শিল্পকলা একাডেমি কর্তৃক বিশেষ সম্মাননা, বাংলাদেশ শিশু একাডেমি সাহিত্য পুরস্কার আলাউল সাহিত্য পুরস্কার অন্যতম।


এই বিভাগের আরো খবর