ঢাকা, ০৪ আগস্ট মঙ্গলবার, ২০২০ || ২০ শ্রাবণ ১৪২৭
good-food
১৪৬

চীন থেকে আর কাউকে না আনার কারণ জানালেন অর্থমন্ত্রী

লাইফ টিভি 24

প্রকাশিত: ১০:৫৮ ১৩ ফেব্রুয়ারি ২০২০  

নভেল করোনাভাইরাস ছড়িয়ে পড়ার পর আতঙ্ক নিয়ে চীনে থাকা বাংলাদেশিদের ফিরিয়ে আনার ক্ষেত্রে কোনো সমস্যা নয় বলে জানালেন অর্থমন্ত্রী আ হ ম মুস্তফা কামাল।


তিনি বলেছেন, কোনো বিমান চীনে গেলে সেই বিমান, পাইলট ও ক্রুদের অন্য কোনো দেশে ঢুকতে দিচ্ছে না বলে আটকে পড়া বাংলাদেশিদের আনা সম্ভবপর হচ্ছে না।


করোনাভাইরাসে চীনে হাজারের বেশি মানুষের মৃত্যু এবং হাজার হাজার আক্রান্ত হওয়ায় সে দেশে আটকে পড়া বাংলাদেশিরা দেশে ফিরতে উদগ্রিব।


এই পরিস্থিতিতে গত ১ ফেব্রুয়ারি বাংলাদেশ বিমানের একটি উড়োজাহাজ চীনের উহানে গিয়ে ৩১২ বাংলাদেশিকে দেশে ফিরিয়ে আনে। কিন্তু এরপর আর কাউকে আনা হয়নি।


পররাষ্ট্রমন্ত্রী এ কে আব্দুল মোমেন মঙ্গলবার সাংবাদিকদের বলেন, এখন আর কাউকে সরকারি উদ্যোগে চীন থেকে আনা হবে না। কেউ আসতে চাইলে ব্যক্তিগত উদ্যোগে আসতে হবে।


চীন থেকে এক দফায় তিন শতাধিক জনকে আনতে ৩ কোটি টাকা খরচের হিসাবও দিয়েছিলেন পররাষ্ট্রমন্ত্রী।
তাই নিয়ে সমালোচনার প্রেক্ষাপটে বুধবার বাংলাদেশ-সৌদি আরব যৌথ অর্থনৈতিক কমিশনে (জেইসি) যোগ দিতে আসা সৌদি আরবের শ্রম ও সমাজ উন্নয়ন বিষয়ক উপমন্ত্রী মাহির আব্দুল রহমান গাসিমের সঙ্গে বৈঠকের পর সাংবাদিকদের সামনে তার ব্যাখ্যা দেন অর্থমন্ত্রী মুস্তফা কামাল।


তিনি বলেন, “দেশে টাকার কোনো অভাব নেই। থাকার কোন কারণও নাই। টাকার অভাবে নয়, অন্য কারণে চীন থেকে বাংলাদেশি কাউকে এই মুহূর্তে সরকারিভাবে দেশে ফেরানো হচ্ছে না।”


মুস্তফা কামাল, “ইতোমধ্যে চীনে আটকে পড়া তিনশ-চারশ বাংলাদেশিকে আমরা দেশে ফিরিয়ে এনেছি। কিন্তু যে বিমান তাদের নিয়ে এসেছে, সেই বিমান ও পাইলট এবং ক্রুদের অন্য কোনো দেশে ঢুকতে দিচ্ছে না। এমনকি সেই বিমানটিকে সিঙ্গাপুরে পর্যন্ত প্রবেশ করতে দিচ্ছে না।”


এই পরিস্থিতিতে কোনো পাইলটকে আর চীনে পাঠানোর ঝুঁকি নেওয়া যাচ্ছে না বলে জানান তিনি।
“এমন পরিস্থিতিতে দেশের বিরাট ক্ষতি হয়ে যেতে পারে বলে আমরা আর কোনো বিমান চীনে পাঠাতে পারছি না। তবে সময় মতো আমরা ঠিকই ব্যবস্থা নেব।”


নভেল করোনাভাইরাস যে নগরী থেকে ছড়িয়েছিল সেই উহান থেকে ৩১২ বাংলাদেশিকে ফেরানো হলেও চীনের বিভিন্ন শহরে অবরুদ্ধ অবস্থায় দিন কাটাচ্ছেন অন্য বাংলাদেশিরা। উহানের পাশের শহর ইচাংয়ে রয়েছেন ১৭১ জনের মতো।

বাংলাদেশ বিভাগের পাঠকপ্রিয় খবর