ঢাকা, ১৯ জুন বুধবার, ২০২৪ || ৫ আষাঢ় ১৪৩১
good-food
৩২৬

`মডার্ন পিথিয়ান গেমস` বাংলাদেশ চ্যাপ্টারের আনুষ্ঠানিক পথচলা শুরু

নিজস্ব প্রতিবেদক

লাইফ টিভি 24

প্রকাশিত: ২২:১০ ৪ মে ২০২৪  

বাংলাদেশে আনুষ্ঠানিক যাত্রা শুরু করলো স্পোর্টস, আর্ট কালচারের বৈশ্বিক সংগঠন 'মডার্ন পিথিয়ান গেমস'।

শনিবার (৪ মে) বিকেলে জাতীয় প্রেসক্লাবের তফাজ্জল হোসেন মানিক মিয়া মিলনায়তনে আয়োজিত 'মিট দ্য প্রেস' অনুষ্ঠানে সংগঠনটির বাংলাদেশ কার্যক্রমের আনুষ্ঠানিক সূচনার কথা জানানো হয়।

 

এ সময় 'মডার্ন পিথিয়ান গেমস' টি-শার্ট ও মগের মোড়কও উন্মোচন করা হয়। আয়োজকরা জানান, অলাভজনক, অরাজনৈতিক, অ-ধর্মীয় ও অসাম্প্রদায়িক সংগঠন হিসেবে এটি কার্যক্রম পরিচালনা করবে। সংবাদ সম্মেলনে বক্তব্য দেন মডার্ন পিথিয়ান গেমসের প্রতিষ্ঠাতা বিজেন্দর গোয়েল।

 

এসময় উপস্থিত ছিলেন ইন্টারন্যাশনাল পিথিয়ান কাউন্সিলের পরিচালক ললিতা গোয়েল এবং পিথিয়ান গেমসের বাংলাদেশ চ্যাপ্টারের প্রেসিডেন্ট সেলিনা আক্তার শম্পাসহ অনেকে। শুরুতেই গেমসের ধারণা তুলে ধরেন মডার্ন পিথিয়ান গেমস বাংলাদেশ চ্যাপ্টারের মিডিয়া, কমিউনিকেশন অ্যান্ড আউটরিচ অ্যাফেয়ার ডিরেক্টর আনোয়ার হক। 

 

তিনি জানান, দেশীয় শিল্প, সংস্কৃতি এবং ঐতিহ্যবাহী খেলাধুলাকে আন্তর্জাতিক পর্যায়ে চর্চার প্লাটফর্ম হিসেবে কাজ করছে ' মডার্ন পিথিয়ান গেমস'। প্রাচীন গ্রিসে দেবতা অ্যাপোলোর প্রশংসা করার জন্য অ্যাথলেটিক্স, থিয়েটার, সঙ্গীত, কবিতা ও চিত্রকলা বিষয়ক প্রতিযোগিতা অনুষ্ঠিত হওয়ার প্রমাণ রয়েছে। 


পিথিয়ান গেমসের সূচনা হয়েছিল প্যানহেলনিক গেমস থেকে। প্যানহেলনিক গেমস হলো প্রাচীন গ্রিসে অনুষ্ঠিত চারটি পৃথক ক্রীড়া উৎসবের সম্মিলিত শব্দ। যার মধ্যে রয়েছে- ‘পাইথিয়ান গেমস’, ‘অলিম্পিক গেমস’, ‘নেমিয়ান গেমস’ ও ‘ইস্টমিয়ান গেমস’। আনোয়ার বলেন, কালের বিবর্তনে পিথিয়ান গেমস হারিয়ে যায়। ভারতীয় নাগরিক বিজেন্দর গোয়েল ২০২২ সালের ৭ এপ্রিল গ্রিসের ডেলফিতে অনুষ্ঠিত ডেলফি ইকোনমিক ফোরামের বার্ষিক সাধারণ সভায় পিথিয়ান গেমসের ধারণা তুলে ধরেন। সেখানে তাকে আধুনিক পিথিয়ান গেমসের ‘প্রতিষ্ঠাতা’ হিসেবে স্বীকৃতি দেওয়া হয়।

 

বিজেন্দর গোয়েল সংবাদ সম্মেলনে বলেন, এটা আমার জন্য ভীষণ সম্মানের। কারণ এই বাংলার মাটিতে আমি কথা বলছি। বাংলার কিংবদন্তি রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর, কাজী নজরুল ইসলামকে আমি স্মরণ করছি। কোভিডের সময় মডার্ন পিথিয়ান গেমসের ভাবনাটি আসে। কোভিডের আঘাত আমাদের অনেক কিছুই নতুন করে ভাবতে শিখিয়েছে। আগামীর বিশ্বে আমাদের আরও অনেক চ্যালেঞ্জের সামনে দাঁড়াতে হবে।

 

পিথিয়ান গেমসের সঙ্গে অলিম্পিক গেমসের পার্থক্য তুলে ধরে তিনি বলেন, অলিম্পিক গেমস কেবল খেলাধুলার অংশ। কিন্তু আধুনিক পিথিয়ান গেমসের সঙ্গে আছে- চিত্রকলা, সঙ্গীত, লোকজ খেলাধুলা। পিথিয়ান মুভমেন্টে বিশ্বজুড়ে বাংলাদেশ নেতৃত্ব দেবে বলেও আশাবাদ ব্যক্ত করেন তিনি।

আটটি সৃজনশীল এরিয়া নিয়ে আধুনিক পিথিয়ান গেমসের কার্যক্রম চলবে বলে জানান সংশ্লিষ্টরা। এরিয়াগুলো হলো- সংগীত, পারফরমিং আর্টস ও ভিজ্যুয়াল আর্টস, সামাজিক ও ঐতিহ্যবাহী শিল্পকলা, ভাষা ও সাহিত্য, স্থাপত্য ও পরিবেশবিদ্যা, রোবোটিকস ও ডিজিটাল আর্টস, মার্শাল আর্টস এবং ঐতিহ্যবাহী গেমস।

 

এতদিন বাংলা উচ্চারণে 'মডার্ন পাইথিয়ান গেমস' শব্দবন্ধটি সর্বত্র ব্যবহার হলেও এখন থেকে এটিকে 'আধুনিক পিথিয়ান গেমস' বলা হবে বলেও জানানো হয়। পিথিয়ান গেমসের বাংলাদেশ চ্যাপ্টারের সভাপতি সেলিনা আক্তার শম্পা বলেন, সবাইকে ধন্যবাদ জানাই এই আয়োজনে যুক্ত হওয়ার জন্য।

 

বাংলাদেশে পিথিয়ান গেমসের আগামি দিনের পরিকল্পনার বিষয়ে মিডিয়া ডিরেক্টর আনোয়ার হক বলেন, সংগঠনকে সুসংগঠিত করাটাই আমাদের এখন লক্ষ্য। আমরা প্রতিযোগিতা, রিসার্চ এবং কমিউনিকেশন নিয়ে কাজ করবো। বিভিন্ন ঐতিহ্যবাহী  খেলার পাশাপশি শিল্প-সংস্কৃতি নিয়ে ধারাবাহিকভাবে কাজ করবো, অচিরেই সবাই দেখতে পাবেন।

ইভেন্ট বিভাগের পাঠকপ্রিয় খবর