ঢাকা, ২০ এপ্রিল মঙ্গলবার, ২০২১ || ৭ বৈশাখ ১৪২৮
good-food
৭১

স্মার্টফোনে অতিরিক্ত আসক্তি সন্তানের, কী করবেন?

লাইফ টিভি 24

প্রকাশিত: ২২:৪৩ ১ মার্চ ২০২১  

আজকালকার দিনে অনেক সময়ই বাবা-মাকে বলতে শোনা যায়, নিজেদের চেয়ে স্মার্টফোনের বিষয়ে তাদের সন্তানরা বেশি জানেন। কারণ এখনকার দিনের ছেলেমেয়েরা অনেক ছোট বয়স থেকে স্মার্টফোন ব্যবহার করছে। ফলে তারা স্বাভাবিকভাবেই স্মার্টফোন, ল্যাপটপ, ট্যাবেলেটের সম্পর্কে খুব কম বয়সেই অনেক কিছু শিখে যাচ্ছে।


এর ভালো খারাপ দুটো দিকই আছে। ভালোটা হলো আজকের এই প্রযুক্তি নির্ভর যুগে প্রযুক্তি ছাড়া কিছুই হয় না। সেখানে এখনকার ছেলেমেয়েরা খুব অল্প বয়স থেকে প্রযুক্তির বিষয়ে অনেক জেনে যাচ্ছে। কিন্তু এর খারাপ দিকও আছে বৈকি। দেখা যাচ্ছে, আজকের অনেক ছেলেমেয়েই প্রযুক্তির প্রতি রীতিমতো আসক্ত। এমনকি এক-দু বছরের শিশুরাও হাতে স্মার্টফোন পেলে আর ছাড়তে চায় না।


অতিরিক্ত স্মার্টফোন, ট্যাবলেট ব্যবহার করলে তার প্রভাব বাচ্চাদের মানসিক স্বাস্থ্যে পড়তে পারে। প্রযুক্তির দুনিয়ায় বুঁদ হয়ে থেকে তারা মানুষের সঙ্গে মেলামেশা করতে শিখবে না। ঘরে বসে ভিডিও গেম খেলতে খেলতে বাইরের খোলা হাওয়ায় গিয়ে খেলাধুলো করা ভুলে যাবে। আর এভাবে ক্রমে ক্রমে একাকীত্ব গ্রাস করবে তাদের। এছাড়া বেশি সময় স্মার্টফোন দেখলে চোখ খারাপ হতে পারে, মাথার যন্ত্রনা হতে পারে, ওজন বেড়ে যেতে পারে। 


জেনে নিন কীভাবে সন্তানের প্রযুক্তির প্রতি আসক্তি দূর করবেন-

* সন্তান দিনে কতক্ষণ আর কখন স্মার্টফোন ব্যবহার করবে, তার একটা সময় বেঁধে দিন। আপনার সন্তান মোবাইলে কী দেখে বা কোন গেম খেলে, সেদিকেও নজর রাখুন।


* আপনার সন্তান ইন্টারনেট ঠিকমতো ব্যবহার করছে কিনা, সেটা আপনার জানা জরুরি। সে মোবাইলে কোন কোন গেম খেলতে পছন্দ করে সেটা জেনে নিন। ভাববেন না সন্তানের হাতে স্মার্টফোন তুলে দিলেন মানে আপনি বেশ কিছুটা সময়ের জন্য ফ্রি হয়ে গেলেন। তারা ইন্টারনেটে কী করছে, সেদিকে নজর না রাখলে ভবিষ্যতে বিপদ হতে পারে। নিজেদের অজান্তে ওরা কোনও আপত্তিকর ওয়েবসাইটেও ঢুকে যেতে পারে।


* সন্তানকে প্রযুক্তির হাতে ছেড়ে দেবেন না। সে কী কী গ্যাজেট ব্যবহার করে, সেটা আপনার জানা জরুরি। আপনার সন্তান কি খুব বেশি সময় টিভি দেখে? বা নিজের স্মার্টওয়াচ নিয়ে ব্যস্ত থাকে? ল্যাপটপ খুলে গেম খেলে? আপনি নজর রাখছেন দেখলে এগুলো ব্যবহার করা একটু কমাবে সে।

 

* আপনার সন্তান যেসময় টিভি বা মোবাইল দেখে, সেসময় আপনিও সঙ্গে থাকুন। একসঙ্গে বসে কিছু দেখুন। এতে সে কী দেখছে, কতক্ষণ দেখছে তা আপনার নজরে থাকবে। আপনি পাশে আছেন বল ও সতর্কও থাকবে। আর একসঙ্গে বসে কোনও ভিডিও বা মুভি দেখলে আপনাদের মধ্যেও বোঝাপড়া বাড়বে।


* আপনি যদি খুব বেশি প্রযুক্তিতে আসক্ত হন, তাহলে স্বাভাবিকভাবে আপনার সন্তানও সেটাই করবে। তাই আগে আপনার নিজের আসক্তি দূর করুন।


* প্রযুক্তি ব্যবহারের সুবিধে অসুবিধে দুটোই আপনার সন্তানকে ভালো করে বুঝিয়ে বলুন। তার সঙ্গে খোলামেলা আলোচনা করুন। যাতে অতিরিক্ত প্রযুক্তি ব্যবহার করলে কী বিপদ হতে পারে, সেটা যেন আপনার সন্তান জানে।