ঢাকা, ১৫ নভেম্বর শুক্রবার, ২০১৯ || ৩০ কার্তিক ১৪২৬
LifeTv24 :: লাইফ টিভি 24
২৮৭

এখন দাবি  –

সৈয়দ অহিদুজ্জামান ডায়মন্ড

প্রকাশিত: ২৩:৩৭ ২২ ফেব্রুয়ারি ২০১৯  


পুরনো ঢাকা। ইতিহাসের ঢাকা। ঐতিহ্যের ঢাকা। আমরা এর মর্ম বুঝিনি। আমরা সযত্নে স্নেহময় স্পর্শ দিয়ে আগলে রাখতে ব্যর্থ হয়েছি শতশত বছর আগের পুরনো ঢাকার দূর্লভ সভ্যতাকে।

পুরনো ঢাকার স্হাপনা বর্তমান প্রেক্ষাপটে আধুনিক না হলেও আজ থেকে কয়েক শো বছর আগে বুড়িগঙ্গার তীরে আধুনিক নকশার উপরেই স্হাপিত হয়েছিল এই প্রাচীন আবাসিক নগরী। তখনকার জনসংখ্যা, নদীকেন্দ্রিক জীবন ব্যবস্হা ইত্যাদি উপযোগী করেই গড়ে তোলা হয়েছিল এই নবাবী শহর।

শতশত বছরের ইতিহাসে কোথাও পাওয়া যায়না সরুগলির এই শহরে একবার আগুনে পুড়ে কটা মানুষ মৃত্যু বরণ করেছিল। তাহলে এখন কেনো এত ঘনঘন আগুনের তান্ডবে লন্ডভন্ড হচ্ছে এই শহর। কেনো জ্বলে পুড়ে ছারখার হচ্ছে একের পর এক প্রাচীন স্হাপনা। কেনো অকাতরে আগুনে পুড়ে মরতে হচ্ছে তরতাজা জীবনগুলোকে?

এর উত্তর কমবেশি আমাদের প্রত্যেকেরই জানা। ইতিহাসের সাক্ষ্যি স্হাপনা দখল ও তার অপব্যবহার, অপ্রতুল স্হানে বিপুল পরিমাণ জনগোষ্ঠীর বসতি। অপরিকল্পিত বিদুৎ ব্যবস্হা। যত্রতত্র হোটেল-ফ্যাক্টরী গড়ে তোলা। ইচ্ছেমত গ্যাস সিলিন্ডার এবং গ্যাস পাইপলাইনের ব্যবহার। আর এসবের সাথে যুক্ত হয়েছে অন্তত ভয়াবহভাবে কেমিক্যাল মজুত ব্যবস্হা। এসবই হয়েছে দিনের আলোয় সবার চোখের সামনে।

মাঝেমধ্যে প্রত্নতত্ব ও যাদুঘর বিভাগ থেকে দুএকটি স্হাপনা রক্ষার চেষ্টা হয়েছে। তাতে তারা কখনো সফল কখনো ব্যর্থ হয়েছে। অতএব এখন ধ্বংসের কবল থেকে ঐতিহ্যবাহী প্রাচীন নগরী পুরনো ঢাকাকে রক্ষার দাবি উলুবনে মুক্ত ছড়ানোর মতই সত্য!

এখন আর ইতিহাসসমৃদ্ধ এই নগরী রক্ষার দাবি নয়। এখন দাবি, লেলিহান আগুনের দাপটে পোড়া বিভৎস লাশের স্তুপ আমরা আর দেখতে চাইনা। এখন দাবি, ঢাকা মেডিক্যালের বার্ন ইউনিটে শ্বাসনালী পোড়া মানুষগুলোর অসহ্য যন্ত্রণা আমরা আর দেখতে চাইনা। এখন দাবি- বোন হারানো ভাই, স্বামী হারানো স্ত্রী, আর সন্তান হারানো মায়ের বুকফাটা আত্মক্রন্দন আমরা শুনতে চাইনা।

আমরা দিনের পর দিন এভাবে আর মানবতাকে ভুলন্ঠিত হতে দিতে পারিনা! একমাত্র রাষ্ট্র পারে এই বিপদ থেকে জাতিকে মুক্ত করতে।

# সৈয়দ অহিদুজ্জামান ডায়মন্ড, জাতীয় পুরষ্কারপ্রাপ্ত চলচ্চিত্রকার