ঢাকা, ১৯ জুন বুধবার, ২০২৪ || ৫ আষাঢ় ১৪৩১
good-food
৩৯

বিমানবন্দরে চড় খেয়ে ভিডিও বার্তায় কি বললেন কঙ্গনা

লাইফ টিভি 24

প্রকাশিত: ১৮:২৫ ৭ জুন ২০২৪  

ভারতের সদ্য সমাপ্ত লোকসভা নির্বাচন থেকে সংসদ সদস্য হয়েছেন বলিউড অভিনেত্রী কঙ্গনা রানাউত। তবে দুইদিন যেতে না যেতেই বিমানবন্দরে এক নিরাপত্তারক্ষীর হাতে চড় খেয়ে বসেছেন বলে অভিযোগ করেছেন এই তারকা। তার অভিযোগ, অতর্কিতভাবে চড় মারা হয়েছে তাকে।

বৃহস্পতিবার (৬ জুন) বিকেলে দিল্লি রওনা দিতে পৌঁছেছিলেন চন্ডীগড় এয়ারপোর্ট। আর বিমানবন্দরে এসেই হেনস্থার শিকার হন তিনি। বিকেল সাড়ে ৩টার দিকে বিস্তারার বিমানে ওঠার কথা ছিল কঙ্গনার। সেখানেই নিরাপত্তাজনিত কারণে তল্লাশির সময়ে এক নারী নিরাপত্তারক্ষীর সঙ্গে অভিনেত্রীর কথা কাটাকাটির সূত্রপাত। 

কঙ্গনার বিরুদ্ধে অভিযোগ, বিমানবন্দরে তল্লাশির সময়ে নিজের মোবাইল ফোনটি নির্দিষ্ট ট্রে-তে রাখতে রাজি হননি কঙ্গনা। তাতে আপত্তি করেন নিরাপত্তারক্ষী। অভিযোগ, কঙ্গনা প্রথমে ওই নারী নিরাপত্তারক্ষীকে ধাক্কা মারেন। এরপরেই ওই নিরাপত্তারক্ষীও তাকে ধাক্কা দেন। যদিও ধাক্কার বিষয়টি মানতে নারাজ কঙ্গনা। তিনি সরাসরি ওই নারীর বিরুদ্ধে তাকে চড় মারার অভিযোগ এনেছেন।

এরপরে নিজের এক্স হেন্ডেল (সাবেক টুইটার) থেকে একটি ভিডিও পোস্ট করেন কঙ্গনা। কঙ্গনার দাবি, ভারতের আন্দোলনরত কৃষকদের সম্পর্কে মন্তব্য করেছিলেন কঙ্গনা। সেই ক্ষোভ পুষে রেখেছিলেন ওই নারী নিরাপত্তারক্ষী। যে কারণে এদিন তাকে শারীরিকভাবে হেনস্থা করেন।

ভিডিও বার্তায় নায়িকা বলেন, চণ্ডিগড় বিমানবন্দরে নিরাপত্তা তল্লাশির পর  আমি যখন বের হলাম, পাশের একটি কেবিন থেকে এক নারী নিরাপত্তারক্ষী বেরিয়ে এসে পাশ থেকে আমার গালে মারেন। আমাকে গালিগালাজও করেন। আমি তাকে যখন জিজ্ঞেস করলাম, কেন উনি এমন করলেন, উনি বললেন, উনি কৃষক আন্দোলনকে সমর্থন করেন। পাঞ্জাবে যেভাবে আতঙ্কবাদ এবং উগ্রবাদ বেড়ে চলেছে, তা নিয়ে আমি উদ্বিগ্ন।


এবারের লোকসভা নির্বাচনে হিমাচল প্রদেশের মান্ডি কেন্দ্র থেকে বিজেপির টিকিটে জয়ী হয়েছেন বলিউড অভিনেত্রী কঙ্গনা রনৌত। সংসদীয় বৈঠকে যোগ দিতে  বৃহস্পতিবার  দিল্লি গেছেন অভিনেত্রী। দিল্লির বিমান ধরতে চণ্ডীগড় বিমানবন্দরে গেলে সেখানে হেনস্তা শিকার হয়েছেন তিনি। চেকিংয়ের সময় ভারতীয় এক নারী জওয়ান বিজেপির তারকা প্রার্থীকে চড় মারেন বলে অভিযোগ।

ভারতীয় সংবাদমাধ্যম সূত্রে খবর, কঙ্গনাকে চড় মারায় অভিযুক্ত নারী জওয়ানের নাম কুলবিন্দর কাউর। তিনি দিল্লি-হরিয়ানা সীমান্তে কৃষক বিক্ষোভ নিয়ে কঙ্গনার মন্তব্যে ক্ষুব্ধ হয়েছিলেন। এদিন তারই প্রতিশোধ নিলেন বলে সংবাদমাধ্যমের সূত্রের খবর। তবে এটিও এখন প্রমাণিত নয়।


কঙ্গনা রনৌতকে চড় মারার পর রেহাই পাননি নারী জওয়ান। ঘটনার সময় কঙ্গনার সঙ্গে ছিলেন বিজেপি নেতা মায়াঙ্ক মাথুর। তিনি পাল্টা ওই জওয়ানকে চড় মারতে উদ্যত হন।  তবে বিজেপি সংসদ সদস্যকে চড় মারার অভিযোগে তাঁকে আটক করা হয়েছে এবং জিজ্ঞাসাবাদ করা হচ্ছে বলে সূত্রের খবর।
 

সেলিব্রেটি বিভাগের পাঠকপ্রিয় খবর