ঢাকা, ০৪ মার্চ সোমবার, ২০২৪ || ২১ ফাল্গুন ১৪৩০
good-food
১৪৮

ভরা শীতেও উষ্ণ কাশ্মীর

লাইফ টিভি 24

প্রকাশিত: ১৭:০৯ ১৯ জানুয়ারি ২০২৪  

স্বাভাবিকভাবে শীতে গুলমার্গে ৪০ দিন ব্যাপক তুষারপাত থাকে। পর্বত ও হিমবাহ এলাকা বরফে ঢেকে যায়। কিন্তু এবারের চিত্র বেশ ভিন্ন।


ভারত শাসিত কাশ্মীরের মনোরম শহর গুলমার্গে ১৭ বছর ধরে হোটেল চালিয়ে আসছেন মঞ্জুর আহমেদ; এই সময়ে তিনি সেখানে তুষারহীন কোনো মৌসুম দেখেননি।

 

কিন্তু এবারের চিত্র ভিন্ন। সেখানকার তুষার ঢাকা পর্বতগুলো এখন অদ্ভুত রকমের বাদামি আর শুষ্ক।

 

এমন দৃশ্যকে ‘নজিরবিহীন’ আখ্যায়িত করে মঞ্জুর বলেন, এই অবস্থায় পর্যটকরা হোটেল বুকিং বন্ধ করে দিয়েছেন।

 

ভূ-স্বর্গ খ্যাত কাশ্মীরের সৌন্দর্য উপভোগ করতে প্রতিবছর হাজারো পর্যটকের সমাগম হয়। শীতকালে স্কিইং আর দৃষ্টিনন্দন রূপে আপ্লুত হন পর্যটকরা। কিন্তু এবারের ভরা শীতের সময়ে গুলমার্গে তুষারহীন এমন মরুময় চিত্রের কারণে ওই এলাকার পর্যটন নতজানু হয়ে পড়েছে।

 

 বিবিসি জানিয়েছে, গত বছরের জানুয়ারিতে কাশ্মীরে এক লাখ পর্যটকের সমাগম হয়েছে। কিন্তু এবার সেই সংখ্যা অর্ধেকেরও বেশি কমেছে।

 

বিশেষজ্ঞরা বলছেন, জম্মু ও কাশ্মীরের জিডিপিতে ৭ শতাংশ অবদান পর্য‍টন শিল্পের। ফলে তুষারহীন শীত মৌসুম এ অঞ্চলের অর্থনীতিতে ভয়ানক প্রভাব ফেলবে। সেইসঙ্গে কৃষি ও পানির সরবরাহেও ব্যাঘাত ঘটাবে।

 

পরিবেশবিদরা বলছেন, জলবায়ু পরিবর্তন এই অঞ্চলে প্রভাব ফেলছে। চরম আবহাওয়ার সঙ্গে শীত ও গ্রীষ্মের ব্যাপ্তি বাড়ছে। গত ডিসেম্বরে ৭৯ শতাংশ বৃষ্টিপাত ঘাটতি রেকর্ড করেছে জম্মু-কাশ্মীরের আবহাওয়া বিভাগ। জানুয়ারিতে এই ঘাটতি শতভাগ।

 

জলবায়ু পরিবর্তনে উষ্ণ আবহাওয়ার সম্মুখীন হচ্ছে এ উপত্যকা। সেখানকার বেশিরভাগ আবাহওয়া স্টেশনই এই শীতে তাপমাত্রা ৬-৮ ডিগ্রি সেলসিয়াস বেশি রেকর্ড করছে।