ঢাকা, ১০ জুলাই শুক্রবার, ২০২০ || ২৫ আষাঢ় ১৪২৭
good-food
২৬০

রবিউল হুসাইনের কাছে খোলা চিঠি

মেজর খোশরোজ সামাদ

লাইফ টিভি 24

প্রকাশিত: ২৩:৫২ ২৬ নভেম্বর ২০১৯  

সুপ্রিয় অগ্রজ,
১.  এই চিঠি যখন লিখছি তখন আপনি আনন্দলোকের চিরবাসিন্দা হয়ে গেছেন।আপনারা,যাদের হাতে গোলাপ ফুটেছিল,কলম থেকে খইয়ের মত বারুদ ঝরেছিল তাঁরা একে একে অনন্ত নক্ষত্র বীথিতে চলে গেছেন।সে- ই যে মাটির জমিনে ঘুমিয়ে পরেছিলেন শামসুর রাহমান!তারপর অল্প কদিনের ব্যবধানে ঘুম আর ঘুমের রাজ্যে বেসাতি।আল মাহমুদ,রফিক আজাদ,শহীদ কাদরী,বেলাল চৌধুরী,সাযযাদ কাদির।মংগলালোকে সত্যসুন্দর হয়ে বিরাজিত হলেন তাঁরা ।রবিউল ভাই, চলে যাবার জন্য ছিয়াত্তর কি খুব বেশী সময়?

২.  নশ্বর মানুষ এক জীবনে কতগুলি ক্ষেত্রে অবাধ বিচরণ করতে পারে? কাব্যজগত?ছোট গল্প?প্রবন্ধ বা গবেষণা? বিমূর্ত চিত্রকল্প?ছায়াছবির বিদগ্ধ দর্শক? স্থাপত্য কলার মত জটিল বিষয় শুধু আপনার পেশাই ছিল না,দক্ষতা ছিল পর্বত প্রমাণ।ঢাকা বিশব্বিদ্যালয়ের মুক্তি ও সবাধীনতার তোরণ, জাহাংগীরনগর বিশব্বিদ্যালয়ের ফটক,চট্রগ্রাম বিশব্বিদ্যালয়ের অডিটোরিয়ামসহ অসংখ্য দেশনন্দিত কীর্তিগুলি স্রষ্টা হিসেবে আপনারই বন্দনা গীতি গাইবে।

৩. কী আছে অন্ধকারের গভীরে, আরও উনত্রিশটি চাঁদ, সহ অসংখ্য কবিতাগ্রন্থ প্রজাপতি হয়ে আমাদের কোষে ও মজ্জায় খেলা করে।একুশে পুরস্কার আপনাকে সন্মানিত করে তৃপ্ত হয়েছে। আর,ভালবাসা যদি কবির শ্রেষ্ঠ পুরস্কার হয়, সে বরমাল্য অনেক আগেই আপনাকে শোভিত করেছে। গণতন্ত্রের লড়াইয়ে রাজপথে ভ্যানগার্ড হিসেবে আপনাকে পেয়েছি। একাত্তরের অন্ধকারের শক্তির বিরুদ্ধে লড়াইয়ে আপনাকে দেখেছি। মুক্তিযুদ্ধ যাদুঘরের ট্রাস্টি হিসেবে ব্যপক পরিশ্রমী সংগঠক হিসেবে আপনাকে দেখেছি।

৪. ব্যক্তিজীবনে অজাতশত্রু ছিলেন আপনি। কত সহজিয়া, কত দ্রুতই না আপনি আপন করে নিয়েছিলেন এই অভাজনকে। সারা রাত জেগে টি এস সির মোড়ে কবিতা শুনতে শুনতে বাদাম দিয়ে মুঠো ভরিয়ে দিয়ে বলেছিলেন,'খাও না ক্যান?'চন্দ্রালোকিত জোছনায় কতদিন অসম বয়সের,ভিন্নপেশার দুজন মানুষ হেঁটে গেছি।কচি কাঁচার মেলা যাবার পথে স্টিয়ারিং ভুল দিকে ঘুরিয়ে আপনাকে ক্লান্ত করেছি।প্রিয়জনকে হারানোর বেদনায় নীল হয়ে সন্তানকে আঁকড়ে ধরে থাকতে দেখেছি।

৫.  স্থপতি Enamul Karim Nirjhar একটি লেখায় আপনাকে বাংলাদেশের শ্রেষ্ঠ ক্রিয়েটিভ মানুষ বলে অবিহিত করেছেন।আপনার দীঘল জুলফি,গলায় মাফলার,কালো কোট পরবার রহস্য আজো ভাংতে পারি নি। তবু, আপনাকে সুন্দর মানুষ হিসেবেই জেনেছি,বড্ড সুন্দর! রবিউল হুসাইন, অজানাপুরীতে আপনার যাত্রা শুভ হোক,প্রিয় ভালবাসার মানুষ আমার!