ঢাকা, ১০ এপ্রিল শুক্রবার, ২০২০ || ২৬ চৈত্র ১৪২৬
good-food
৪৬

স্থগিত হতে পারে অলিম্পিক

লাইফ টিভি 24

প্রকাশিত: ১৩:৩৪ ২৩ মার্চ ২০২০  

করোনাভাইরাস আতঙ্কে ‘দ্য গ্রেটেস্ট শো অন আর্থ’ অলিম্পিক থেকে নাম প্রত্যাহার করে নিয়েছে কানাডা। পরিপ্রেক্ষিতে গেমসের আয়োজন নিয়ে কিছুটা নমনীয় হয়েছে জাপান। অলিম্পিক স্থগিত করার চিন্তা-ভাবনা করছে দেশটি। অন্যদিকে গেমসের ভাগ্য নির্ধারণ করতে ৪ সপ্তাহ সময় চেয়েছে আন্তর্জাতিক অলিম্পিক কমিটি (আইওসি)।

নোভেল করোনায় প্রভাবিত বিশ্বের ১৯২টি দেশ। বিশ্বব্যাপী মারণঘাতী ভাইরাসের বলি হয়েছেন সাড়ে ১৪ হাজারেরও বেশি মানুষ। আক্রান্তের সংখ্যা প্রায় সাড়ে ৩ লাখ। জাপানে করোনার প্রভাবে ৪১ জনের মৃত্যু হয়েছে। আক্রান্ত হয়েছেন ১১০১ জন। এদিকে কানাডাতে প্রাণঘাতী ভাইরাসে প্রাণ হারিয়েছেন ২০ জন। আক্রান্ত হয়েছেন ১৪৭০ জন।

উদ্ভুত পরিস্থিতিতে অলিম্পিকে দেশের অ্যাথলেটদের টোকিও পাঠাবে না কানাডা। গেমস এক বছর পেছালে তবেই প্রতিযোগিতায় অংশ নেবে তারা বলে সাফ জানিয়ে দিয়েছে কানাডিয়ান অলিম্পিক এবং প্যারালিম্পিক কমিটি।

এক বিবৃতিতে কানাডা জানিয়েছে, তাদের অ্যাথলেটরা প্রতিযোগিতায় নামার জন্য পুরোপুরি তৈরি। তবে সবার স্বাস্থ্য ও সুরক্ষার কথা ভেবেই এ চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে। করোনা ভাইরাসের জেরে বিশ্বের প্রথম দেশ হিসেবে টোকিও অলিম্পিক থেকে সরে দাঁড়াল কানাডা। ইতিমধ্যে গেমসে অংশ নেয়া নিয়ে ভাবনাচিন্তা শুরু করেছে চীন, যুক্তরাষ্ট্র, ইতালি, ফ্রান্স, স্পেনের মতো দেশগুলোও।

এ জটিল অবস্থায় কিছুটা হলেও নমনীয় হলো জাপান সরকার। নিজেদের অনড় মনোভাব থেকে সরে দেশটির প্রধানমন্ত্রী শিনজো আবে স্বীকার করলেন, অলিম্পিক স্থগিত হতে পারে। তবে করোনার ভয়াবহ প্রভাবেও গেমস বন্ধ হওয়ার কোনও সম্ভাবনা নেই, তা স্পষ্ট করে জানিয়ে দিয়েছে আইওসি। কিন্তু প্রতিযোগিতা স্থগিত হতে পারে বলে হুমকি দেখছে তারাও। এ ব্যাপারে চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত নিতে চার সপ্তাহ সময়সীমা বেঁধে দিয়েছে ইন্টারন্যাশনাল অলিম্পিক কমিটি।

করোনার লাগামছাড়া প্রভাবের মধ্যে অলিম্পিক পিছিয়ে দেওয়া উচিত বলে মনে করে অস্ট্রেলিয়া। তাদের অ্যাথলেটরা গেমসে অংশ নেয়ার জন্য মুখিয়ে রয়েছেন। তবে ক্যাঙারুর দেশ জানিয়েছে, ২০২০ নয়, ২০২১ অলিম্পিকের জন্য প্রস্তুতি নিচ্ছেন তারা।