ঢাকা, ১৪ জুলাই রোববার, ২০২৪ || ৩০ আষাঢ় ১৪৩১
good-food
৪৪৯

১ মাস চিনি না খেলে যেসব উপকার পাবেন

লাইফ টিভি 24

প্রকাশিত: ২০:৪০ ৮ নভেম্বর ২০২৩  

চিনি আমাদের স্বাস্থ্যের জন্য বড় শত্রু। এছাড়া খুব বেশি মিষ্টি খাবার আমাদের দাঁতের ক্ষতি করে এবং ওজন বাড়াতে পারে। ন্যাশনাল লাইব্রেরি অব মেডিসিনে প্রকাশিত ফেব্রুয়ারি ২০২৩ সালের একটি সমীক্ষা অনুযায়ী, স্থূলতা, ডায়াবেটিস, কার্ডিওভাসকুলার রোগ এবং বিপাকীয় ব্যাধির প্রত্যক্ষ ও পরোক্ষ কারণ হলো চিনি খাওয়ার অভ্যাস।

 

তাই কুকিজ, পেস্ট্রি, ব্রাউনি, কেক, আইসক্রিম, ডোনাট এবং টফি দূরে রাখা একটি বুদ্ধিমানের কাজ। চিনি এড়িয়ে চলা মুখের স্বাস্থ্যের উন্নতি ঘটাতে পারে এবং গহ্বর এবং মাড়ির রোগের ঝুঁকি হ্রাস করতে পারে। এছাড়া আমরা চা কিংবা বিভিন্ন পানীয় পান করি, যাতে কম পরিমাণে হলেও চিনি থাকে। আমাদের শরীর কোনো না কোনোভাবে চিনি খুঁজে নেয়। আচ্ছা ৩০ দিন বা এক মাস চিনি ছাড়া চললে কেমন হয়?

 

এক মাসের জন্য আপনি যদি আপনার নিয়মিত খাদ্য তালিকা থেকে চিনি বা মিষ্টিজাতীয় খাবার বাদ দেন, তাহলে আপনার শরীরে একাধিক বদল লক্ষ্য করবেন। চলুন জেনে নিই এক মাস চিনি না খেলে কী কী উপকার পাবেন-

 
ওজন কমায় 

আপনি যদি এক মাস চিনি না খান তাহলে আপনার ওজন কমাতে সাহায্য করে। এছাড়া চিনিযুক্ত খাবার না খেলে অতিরিক্ত খাওয়ার সম্ভাবনা হ্রাস করে।
 

রক্তে শর্করার মাত্রা উন্নত 

এক মাস চিনি না খেলে রক্তে শর্করার মাত্রা স্থিতিশীল করতে সাহায্য করতে পারে। ইনসুলিন প্রতিরোধ এবং টাইপ ২ ডায়াবেটিসের ঝুঁকি হ্রাস করে।
 
দাঁতের স্বাস্থ্য

চিনি এড়িয়ে চলা মুখের স্বাস্থ্যের উন্নতি ঘটাতে পারে এবং গহ্বর এবং মাড়ির রোগের ঝুঁকি হ্রাস করতে পারে।
 
ত্বক পরিষ্কার 

চিনি খাওয়া বন্ধ করলে আপনার ত্বকের স্বাস্থ্য আরও উন্নত হবে। কেননা চিনি না খেলে ব্রণ এবং ত্বকের অন্যান্য সমস্যা কমে আসে।
 

দীর্ঘস্থায়ী রোগের ঝুঁকি হ্রাস 

বিশেষজ্ঞদের মতে, চিনি খাওয়া কমালে হৃদরোগের মতো দীর্ঘস্থায়ী রোগ হওয়ার ঝুঁকি কমতে পারে।
 
 
স্বাস্থ্যকর অন্ত্র

উচ্চ চিনি খাওয়া অন্ত্রের ব্যাকটেরিয়ার ভারসাম্যকে ব্যাহত করতে পারে, চিনি কমানো স্বাস্থ্যকর অন্ত্রের পরিবেশকে উন্নত করতে সাহায্য করতে পারে।
 
সূত্র: হেলথ শটস