ঢাকা, ২৬ জানুয়ারি মঙ্গলবার, ২০২১ || ১২ মাঘ ১৪২৭
good-food
২৬৩

পাখির বাসা ভাড়া ৩ লাখ টাকা!

লাইফ টিভি 24

প্রকাশিত: ০৯:৩১ ২২ নভেম্বর ২০২০  

বর্ষার শেষে শামুকখোল পাখিরা বাচ্চা ফোটানোর আগে রাজশাহীর বাঘা উপজেলার আড়ানী ইউনিয়নের খোর্দ্দবাউসা গ্রামের আমবাগানে বাসা বাঁধে। গত বছর অক্টোবরের শেষে পাখিরা বাচ্চা ফুটিয়েছিল। কিন্তু তারা উড়তে শেখার আগেই বাগানের পরিচর্যা করতে চান ইজারাদার। ভেঙে ফেলতে চান পাখিদের সেই বাসা। এমনকি একটি গাছের কিছু বাসা ভেঙেও দেন। এগিয়ে আসেন স্থানীয় পাখিপ্রেমী কিছু মানুষ। বাসা না ভাঙার জন্য অনুরোধ জানালে বাগান মালিক তখন পাখিদের বাসা ছাড়ার জন্য ১৫ দিন সময় বেঁধে দেন। ১৫ দিনের মধ্যে বাসা না ছাড়লে পাখিদের বাসা ভেঙে দেয়ার ঘোষণা দেন। তারপর পানি গড়ায় অনেক দূর।

 

খোর্দ্দবাউসা গ্রামে পাখির বাসার জন্য এবার মোট ৩ লাখ ১৩ হাজার টাকা ইজারা বাবদ অর্থ বরাদ্দ দিয়েছে সরকার। পরিবেশ বন ও জলবায়ু পরিবর্তন মন্ত্রণালয়ের উপসচিব দীপক কুমার চক্রবর্তী স্বাক্ষরিত একটি পত্রে জানানো হয়, বন অধিদপ্তরের অনুন্নয়ন খাত থেকে মোট পাঁচজন বাগান মালিক এ অর্থ পাবেন। তারা হলেন- খোর্দ্দবাউসা গ্রামের মঞ্জুর রহমান, সানার উদ্দিন, সাহাদত হোসেন, শফিকুল ইসলাম ও ফারুক আনোয়ার।

 

শনিবার  এ আমবাগান পরিদর্শন করে পাখির অবস্থা দেখতে আসেন বন্যপ্রাণী ও প্রকৃতি সংরক্ষণ অঞ্চল ঢাকার বন সংরক্ষক মিহির কুমার দে, রাজশাহী বিভাগীয় বন কর্মকর্তা (ডিএফও) জিল্লুর রহমান, রাজশাহী সামাজিক বনবিভাগের সহকারী বনসংরক্ষক মেহেদী হাসান, বন্যপ্রাণী ও জীববৈচিত্র্য সংরক্ষণ কর্মকর্তা রাহাত হোসেন, ওয়াইল্ড লাইফ রেঞ্জার হেলিম রায়হান ও বন্যপ্রাণী পরিদর্শক জাহাঙ্গীর কবীর। এ সময় তারা বাগান মালিক ও স্থানীয় লোকজনের সঙ্গে মতবিনিময় করেন।