ঢাকা, ২২ এপ্রিল সোমবার, ২০১৯ || ৯ বৈশাখ ১৪২৬
LifeTv24 :: লাইফ টিভি 24
৫২

প্রশ্নফাঁসের সব অভিযোগ খতিয়ে দেখা হচ্ছে: শিক্ষামন্ত্রী

প্রকাশিত: ১২:৪৩ ৩ ফেব্রুয়ারি ২০১৯  

সংগৃহীত

সংগৃহীত



গতকাল শনিবার ছিল এ বছরের এসএসসি-সমমান'র প্রথম পরীক্ষা। নতুন শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপুমনি দায়িত্ব নেয়ার পরে প্রথম কোন বোর্ড পরীক্ষা। এরই মধ্যে আবার ঘটেছে ভুল প্রশ্নপত্র সরবরাহের ঘটনা। সেই প্রসঙ্গে বলতে গিয়ে প্রশ্নফাঁসের সব অভিযোগ খতিয়ে দেখা হচ্ছে বলে মন্তব্য করলেন শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনি।

আজ রোববার ঢাকার বকশিবাজার আলিয়া মাদ্রাসায় দাখিল পরীক্ষা কেন্দ্র পরিদর্শনকালে সাংবাদিকদের তিনি এ কথা জানান।

মন্ত্রী জানান, প্রশ্নফাঁস বন্ধে যত ধরনের ব্যবস্থা নেয়া হয়েছে, তার সব পদক্ষেপ অব্যাহত থাকবে। কোনোভাবেই যেন প্রশ্নফাঁস হতে না পারে সেই বিষয়ে আমাদের কঠোর নজরদারি থাকবে। 

দীপু মনি বলেন, গতকাল শনিবার বিভিন্ন জেলায় এসএসসি পরীক্ষা কেন্দ্রে প্রশ্ন বিতরণে ভুল ধরা পড়েছে। ২০১৮ সালের প্রশ্ন বিতরণ করা হয়েছে বলেও জানা গেছে। বিষয়গুলো খতিয়ে দেখা হচ্ছে। এসব বিষয়ে সংশ্লিষ্ট বোর্ড চেয়ারম্যানের কাছে কারণ জানতে চাওয়া হয়েছে। আমাদের নজরদারি যেভাবে চলছিল তা অব্যাহত থাকবে।

তিনি বলেন, ভুল ও অসঙ্গতি বিষয়ে যেখানে তাৎক্ষণিক ব্যবস্থা নেয়া দরকার ছিল, তা নেয়া হয়েছে। প্রশ্নফাঁস রোধে যা যা করা দরকার সব করা হচ্ছে। আশা করি, আর প্রশ্নফাঁস হবে না। প্রশ্নফাঁস রোধে মিডিয়া ও অভিভাবকদের সহযোগিতা চান মন্ত্রী।

ফেসবুকসহ অনলাইনে প্রশ্ন ফাঁস হওয়া প্রসঙ্গে দীপু মনি বলেন, কোনো পরীক্ষার্থী ইচ্ছা করলে পরীক্ষা শুরুর এক ঘণ্টা পর বের হয়ে যেতে পারবে, তবে সেক্ষেত্রে পরীক্ষার্থীকে প্রশ্নপত্র দায়িত্বরত শিক্ষকের কাছে জমা দিয়ে কেন্দ্র থেকে বের হতে হবে।

উল্লেখ্য, কঠোর নিরাপত্তার মধ্যে দিয়ে গতকাল শনিবার সারাদেশে একযোগে মাধ্যমিক স্কুল সার্টিফিকেট (এসএসসি) ও সমমানের পরীক্ষা শুরু হয়। এ পরীক্ষা শুরুর আগে প্রশ্নফাঁসের অভিযোগ না পাওয়া গেলেও বাংলা ১ম পত্র পরীক্ষা চলাকালেই পরীক্ষাটির বহুনির্বাচনী প্রশ্ন এবং সৃজনশীল প্রশ্ন ফেসবুকে ফাঁস হয়ে যায়। তবে পরীক্ষা শেষে আসল প্রশ্নের সঙ্গে বহুনির্বাচনী প্রশ্নের মিল না থাকলেও সৃজনশীল প্রশ্নের হুবহু মিল পাওয়ার অভিযোগ ওঠে। এছাড়া চট্টগ্রামসহ কয়েকটি অঞ্চলে ভুল প্রশ্নপত্র সরবরাহের ঘটনা ঘটে। 


এই বিভাগের আরো খবর