ঢাকা, ১৬ সেপ্টেম্বর সোমবার, ২০১৯ || ১ আশ্বিন ১৪২৬
LifeTv24 :: লাইফ টিভি 24
৩১৩

মধু ফলের মিষ্টি গন্ধে মধু মাসের আগমন

প্রকাশিত: ১৯:১৮ ১৮ মে ২০১৯  


ফলের মিষ্টি গন্ধ ছড়িয়ে শুরু হয় মধু মাসের। বাজারে নানা ধরণের মৌসুমি ফলের আগমন ঘটে। বাংলা সনের দ্বিতীয় মাস জ্যৈষ্ঠই, মধু মাস নামে পরিচিত। বৈশাখের দাবদাহের পর সারা দেশের মানুষ মেতে উঠে সুস্বাদু পাকা মজাদার ফলের সমারোহে। বিভিন্ন রসালো ফল যেমন আম, জাম, কাঁঠাল, লিচু, তরমুজ সহ রয়েছে আনারস, পেয়ারা, জাম্রুল ও লটকন। এছাড়া গাছে গাছে পাকা ফলের সমারোহ শেষ না হতেই ইতিমধ্যে বাজারে চলে এসেছে আম ও লিচু।

 

ঢাকার বিভিন্ন এলাকার ফলের বাজারে  বিদেশি ফলের পাশাপাশি দেখা মিলছে হরেক রকমের দেশি ফলের। রসে ভরা টাটকা দেশি ফলের সাথে বিদেশি ফল চেরি, আপেল, মাল্টা, রামবুটান সহ ইফতারের জন্য রয়েছে জনপ্রিয় ফল খেজুর।

 

এছাড়া কিছু দিনের মধ্যে বাজারে দেখা পাওয়া যাবে জাতীয় ফল কাঁঠালের,  পাশাপাশি দেখা মিলবে পাকা জাম,জাম্রুল, আনারস ও পেয়ারার। নির্দিষ্ট সময়ের আগেই অর্থাৎ মাসের শেষের দিকেই পাওয়া যাবে শরীফা, আতাফল,গাব, আমড়া ও ছফেদা। এ সময় রাজধানীর বিভিন্ন পাইকারি বাজার থেকে শুরু করে ছোট ছোট ফলের দোকানেও, মৌসুমি ফল প্রেমী মানুষদের আনাগোনা ব্যাপক বৃদ্ধি পেতে দেখা যায়।

 

মধু মাসের মিষ্টি ও সুস্বাদু ফল মিশে আছে আমাদের ঐতিহ্যের সাথে। দেশীয় ফল আমাদের সংস্কৃতি, সভ্যতা ও ঐতিহ্যের বড় একটি অংশ। জ্যৈষ্ঠ্য মাসের ফল পরিবেশের যেমন সৌন্দর্য বৃদ্ধি করে, তেমনি স্বাদ ও পুষ্টিতেও অনন্য।

 

এছারাও, দেশীয় ফল পুষ্টিগুণ বিদেশী ফলের চেয়ে তুলনামূলক ভাবে অনেক বেশি। মৌসুমি ফল দেহের রোগ প্রতিরোধ করতে ব্যাপক সাহায্য করে থাকে। যেমন ভিটামিন সমৃদ্ধ কাঁচা আম চোখ ভালো রাখতে সহায়তা করে থাকে, কোলন ক্যান্সার প্রতিরোধে সহায়তা করে থাকে। দেশীয় ফল ত্বকের সৌন্দর্য বৃদ্ধি সহ দেহের খাদ্য পরিপাক ও পানির চাহিদা মেটাতে সাহায্য করে থাকে।   

 

কিন্তু ফলের উপকারিতা ও চাহিদা ব্যাপক হলেও বর্তমানে ফরমালিনের কারণে সাধারণ মানুষের কাছে ফল খাওয়া এখন আতঙ্কের বিষয়। জ্যৈষ্ঠ মাস মৌসুমি ফলের জন্য উপযোগী মাস  হলেও, কিছু অসাধু ব্যবসায়ী ফলে ভেজাল মিশিয়ে থাকে।

 


এই বিভাগের আরো খবর