ঢাকা, ০৭ জুন রোববার, ২০২০ || ২৩ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৭
good-food
৩৬

পঞ্চগড়ে শিশুকে অপহরণের পর গলা কেটে হত্যা

লাইফ টিভি 24

প্রকাশিত: ১০:০২ ১১ মে ২০২০  

পঞ্চগড়ের দেবীগঞ্জে মোবাশ্বের হাসান (৫) নামে এক শিশুকে গলা কেটে হত্যা করা হয়েছে। এ হত্যার সঙ্গে জড়িত থাকার অভিযোগে পুলিশ সিয়াম হোসেন মিঠু নামে এক কিশোরকে গ্রেপ্তার করেছে। গ্রেপ্তারের পর ওই শিশুকে নৃশংসভাবে হত্যার কথা স্বীকার করেছে মিঠু। ওই শিশুকে অপহরণ ও ২০ হাজার টাকা মুক্তিপণ আদায় করে মোবাইল ফোন কেনার শখ ছিল তার। মিঠু ওই এলাকার আশিকুর রহমান স্বপনের ছেলে। সে ভাউলাগঞ্জ হাজি আজহার আলী উচ্চ বিদ্যালয়ের নবম শ্রেণিতে পড়ে। মিঠুর দেওয়া তথ্যে গতকাল রবিবার সকালে নীলফামারীর ডোমারের ডাঙ্গাপাড়া এলাকার একটি বেতবাগান থেকে ওই শিশুর লাশ উদ্ধার করে পুলিশ।

পুলিশ ও স্থানীয়রা জানায়, দেবীগঞ্জের ভাউলাগঞ্জ ইউনিয়নের নায়েকপাড়া এলাকার আলমের ছেলে মোবাশ্বের হাসানের খোঁজ গত শুক্রবার দুপুর থেকে পাওয়া যাচ্ছিল না। স্থানীয় কয়েকজন নারী ওই দিন দুপুরে শিশুটিকে নিয়ে মিঠুকে বাইসাইকেলে যেতে দেখেন। গত শনিবার রাতে মোবাশ্বেরের বাবা মিঠুকে আসামি করে দেবীগঞ্জ থানায় অপহরণ মামলা করেন। পরে ওই রাতেই স্থানীয়রা মিঠুকে আটক করে পুলিশের হাতে তুলে দেয়। একপর্যায়ে পুলিশের জিজ্ঞাসাবাদে ওই শিশুটিকে ডেকে নিয়ে গলা কেটে হত্যার কথা স্বীকার করে মিঠু। পরে গতকাল সকালে ওই শিশুর বাড়ি থেকে চার কিলোমিটার দূরের নীলফামারীর ডোমার উপজেলার ভোগডাবুড়ি ইউনিয়নের ডাঙ্গাপাড়া এলাকার একটি বেতবাগান থেকে শিশুটির লাশ উদ্ধার করা হয়। প্রাথমিক সুরতহালের পর লাশটি ময়নাতদন্তের জন্য পঞ্চগড় আধুনিক সদর হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়েছে।

অপহরণের মামলাটিই এখন হত্যা মামলায় রূপান্তর হবে। এ হত্যাকাণ্ডে জড়িতদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি দাবি করেছে এলাকাবাসী।