ঢাকা, ২৬ সেপ্টেম্বর সোমবার, ২০২২ || ১১ আশ্বিন ১৪২৯
good-food
৪৭

ফুরফুরে মেজাজে আছেন সম্রাট

লাইফ টিভি 24

প্রকাশিত: ০০:১০ ২৭ আগস্ট ২০২২  

ঢাকা মহানগর দক্ষিণ যুবলীগের বহিষ্কৃত নেতা ইসমাইল হোসেন চৌধুরী সম্রাটকে জামিন পেয়েছেন। শারীরিক অবস্থা বিবেচনায় নিয়ে তাকে জামিন দিয়েছেন আদালত। গ্রেফতারের পর অল্প কিছুদিন কারাগারে ছিলেন। তবে কারাজীবনের বাকি সময় হাসপাতালেই কাটিয়েছেন তিনি।

 

গত ২২ আগস্ট সর্বোচ্চ আদালত থেকে জামিন পান সম্রাট। এখন বেশ ফুরফুরে মেজাজে রয়েছেন তিনি। মুক্তি পাওয়ার পর কয়েক হাজার নেতাকর্মী নিয়ে শুক্রবার (২৬ আগস্ট) দুপুরে ধানমন্ডির ৩২ নম্বরে আসেন এ নেতা। তার গাড়ির সামনে ছিল মোটরসাইকেলের বিশাল বহর। পরে বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা জানান তিনি।

 

সম্রাট ৩২ নম্বর সড়কে ঢোকার আগে তার কর্মী-সমর্থকরা স্লোগান দিতে থাকেন। এতে ছুটির দিন হওয়া সত্ত্বেও প্রায় ৩ ঘণ্টা ধানমন্ডির রাসেল স্কয়ারসহ আশপাশের সড়কে যানজট ছিল। ক্যাসিনোবিরোধী বিশেষ অভিযানে গ্রেফতার হন তিনি। এরপর সমালোচনার মুখে তাকে দল থেকে বহিষ্কার করা হয়। এর আগ পর্যন্ত ঢাকা দক্ষিণের রাজনীতিতে একচ্ছত্র আধিপত্য ছিল তার।

 

জামিনের পর প্রথমবারের মতো সংবাদমাধ্যমের মুখোমুখি হন সম্রাট। এসময় দল থেকে বহিষ্কারের বিষয়ে সংবাদমাধ্যমকর্মীরা জানতে চাইলে- কিছু জানেন না বলে জানান তিনি।


জ্ঞাত আয়বহির্ভূত সম্পদ অর্জন, মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ আইন, অর্থপাচার ও অবৈধ অস্ত্র আইনে মোট চারটি মামলা রয়েছে যুবলীগের সাবেক এ নেতার বিরুদ্ধে। একে একে সব মামলায় জামিন পান সম্রাট। তবে পাসপোর্ট জমা দেয়া এবং আদালতের অনুমতি ছাড়া দেশের বাইরে না যাওয়ার শর্ত দেন আদালত।

 

২০১৯ সালের ৬ অক্টোবর এক সহযোগীসহ কুমিল্লা থেকে সম্রাটকে গ্রেফতার করে র‍্যাব। সেসময় তাদের কাছে বিদেশি মদ পাওয়া যায়। ফলে ৬ মাসের কারাদণ্ড দেন ভ্রাম্যমাণ আদালত। পরে সম্রাটকে নিয়ে তার রাজধানীর কাকরাইল কার্যালয়ে অভিযান চালায় র‍্যাব। সেখান থেকে বন্য প্রাণীর চামড়া, মাদকদ্রব্য ও অস্ত্র পাওয়ার কথা জানায় আইনশৃঙ্খলা বাহিনী।

 

বন্য প্রাণীর চামড়া রাখার দায়ে ভ্রাম্যমাণ আদালত সম্রাটকে আরও ৬ মাসের কারাদণ্ড দেন। একের পর এক অভিযানে বেরিয়ে আসতে থাকে ঢাকার আন্ডারওয়ার্ল্ডের কারিগরদের নাম।