ঢাকা, ১৬ মে সোমবার, ২০২২ || ২ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৯
good-food
১৪৩

শীতে বাচ্চাকে ঠাণ্ডা লাগার সমস্যা থেকে দূরে রাখার টিপস

লাইফ টিভি 24

প্রকাশিত: ২১:৪৭ ২২ ডিসেম্বর ২০২১  

শীতের আমেজ উপভোগ করতে ব্যস্ত বাঙালি। ঠাণ্ডা পরিবেশে সবাই নিজের মতো করে বেঁচে চলেছেন। তবে বিশেষজ্ঞরা বলছেন, এই আবহাওয়ায় নানা রোগ বিরেতে আক্রান্ত হওয়ার আশঙ্কা বেড়ে যায়। পরিবেশে ভাইরাস, ব্যাকটেরিয়া হয়ে ওঠে সক্রিয়। এমনকি বাতাসে ধুলোবালি, ময়লা বেড়ে যাওয়ায় শীতে অ্যালার্জি বাড়ে। তাই এই সময়টায় সবাইকে সতর্ক থাকতে হয়।

 

তবে শীতে বিশেষভাবে সচেতন থাকতে হয় বাচ্চার স্বাস্থ্য নিয়ে। কারণ, বাচ্চাদের মধ্যে এমনিই ইমিউনিটি থাকে কম। তার উপর এই ধরনের জীবাণুর রমরমায় বাচ্চাদের ঠাণ্ডাও লেগে যায় সহজে। নাক দিয়ে পানি গড়ায়, হাঁচি হয়, কাশিও থাকতে পারে। এমনকি হতে পারে শ্বাসকষ্টও। তাই এই সময়টায় অভিভাবকদের থাকতে হবে সতর্ক। এবার আসুন জেনে নেওয়া যাক, ঠিক কোন কোন উপায়ে বাচ্চাদের এই সমস্যা থেকে দূরে রাখ যাবে-

 

১. শীত কাপড়

শীত পড়লে প্রথমেই বাচ্চার গরম কাপড়ে জোর দিন। বিশেষত বেশি ঠাণ্ডায় বাচ্চার মাথায় টুপি ও পায়ে মোজো পরাতে হবে। গায়ে পরান হালকা কাপড়। তবে খেয়াল রাখবেন বাচ্চার যেন খুব গরম না লাগে। বাচ্চা ঘামলে, কাঁদলে কাপড়ের ভার কমান।

 

২. বাচ্চার হাত পরিষ্কার

বাচ্চারা কথায় কথায় মুখে হাত দেয়। তাই আপনাকে অবশ্যই মাঝেমাঝেই বাচ্চার হাত পরিষ্কার করে দিতে হবে। তবেই জীবাণুর হাত থেকে পাওয়া যাবে মুক্তি। আর একটু বড় বাচ্চার অভিভাবকরা বাচ্চাকে হাত ধোয়ার অভ্যাস শিখিয়ে নিন।

 

৩. বাচ্চার খেলনা পরিষ্কার রাখুন

বাচ্চার খেলনায় মিশে থাকতে পারে জীবাণু। তাই খেলনা গরম পানিতে মাঝেমাঝেই পরিষ্কার করুন। তবেই খেলনার উপর থেকে সরানো যাবে জীবাণু।

 

৪. নিজের হাত পরিষ্কার করুন

আপনি বাচ্চাকে ধরছেন। তাই আপনার হাতে জীবাণু থাকলে তো বাচ্চার কাছেও সেই জীবাণু পৌঁছে যাবে। তাই নিজের হাত ভালো করে সাবান দিয়ে ধুয়ে পরিষ্কার করে বাচ্চাকে ধরুন।

 

৫. অসুস্থ মানুষের থেকে বাচ্চাকে দূরে রাখুন

বাড়িতে কারও ঠাণ্ডা লাগলে বাচ্চাকে তার সামনে নিয়ে যাবেন না। তাকেও বাচ্চার সামনে আসতে বারণ করুন। তবে বাচ্চার মায়ের ঠাণ্ডা লাগলে তখন আর এই বাধা চলবে না। বিশেষজ্ঞের পরামর্শ মতো চলতে হবে।

 

৬. টিকা

বাচ্চার টিকা তাদের মধ্যে নির্দিষ্ট অসুখের বিরুদ্ধে রোগপ্রতিরোধ ক্ষমতা তৈরি করে। তাই আপনাকে বাচ্চার টিকা একেবারে সময়ে দিতেই হবে। কোনও অজুহাত চলবে না।

 

৭. বিশেষজ্ঞের পরামর্শ

কোনও কারণে বাচ্চার ঠাণ্ডা লাগলে, নাক দিয়ে পানি গড়ালে আর অপেক্ষা নয়। একবার অন্তত চিকিৎসকের পরামর্শ নিন। কারণ সময়টা করোনার। তাই প্রথম থেকেই সতর্ক থাকা জরুরি।

শিশু বিভাগের পাঠকপ্রিয় খবর