ঢাকা, ২৩ মে সোমবার, ২০২২ || ৮ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৯
good-food
১৩৩

১ বছরে ৪৫০ কোটি টাকা নিয়ে গেলো ফেসবুক-ইউটিউব

লাইফ টিভি 24

প্রকাশিত: ২৩:০৯ ১০ মার্চ ২০২২  

গত বছর ৪৫০ কোটি টাকার বিজ্ঞাপন চলে গেছে ফেসবুক ও ইউটিউবে। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমের এই দুটি প্রতিষ্ঠানকে জবাবদিহির আওতায় আনতে রিট হয়েছে উচ্চ আদালতে।

 

আদালত, ফেসবুকে মানহানিকর কন্টেন্টসহ সামগ্রিক বিষয় প্রতিরোধে কী করা যায় তা খতিয়ে দেখতে কমিটি গঠন করে দিয়েছেন। রিপোর্ট দিতে বলা হয়েছে এক মাসের মধ্যে। বিটিআরসির আইনজীবী বলছেন, আইনত ভ্যাট, ট্যাক্স দিতে বাধ্য প্রতিষ্ঠানগুলো।

 

বিজ্ঞাপনের আড়ালে দেশ থেকে কোটি কোটি টাকা হাতিয়ে নিচ্ছে ইন্টারনেট জায়ান্ট ফেসবুক ও ইউটিউব। শুরুর দিকে বিষয়টি নজরে না আসলেও চার বছর আগে প্রতিষ্ঠানগুলোর বিরুদ্ধে রাজস্ব ফাঁকির তদন্তের নির্দেশ দিয়েছিলেন উচ্চ আদালত।

 

আদালতের রায়ের পর ভ্যাট নিবন্ধন করে ফেসবুক, গুগল ও অ্যামাজান। এরপর এ তিনটি প্রতিষ্ঠান মাত্র ৪ কোটি ৪০ লাখ ৭৩ হাজার ৪৬০ টাকা ভ্যাট দিয়েছে সরকারকে। অথচ ব্যবসা করেছে হাজার হাজার কোটি টাকা।

 

বৃহস্পতিবার ফেসবুকের বিরুদ্ধে এ বিষয়ে আরেকটি রিট হয়েছে। রিটকারী দেশ টিভির ব্যবস্থাপনা পরিচালক আরিফ হাসানের দাবি, গত বছরে ৪৫০ কোটি টাকার বিজ্ঞান হাতিয়ে নিয়েছে ফেসবুক, ইউটিউব। যেটি তারা বৈধভাবে নেয়নি। সে কারণে তাদের আনতে হবে জবাবদিহির আওতায়।

 

এছাড়া ফেসবুকে মানহানিকর কন্টেন্ট প্রতিরোধে নির্দেশনা চাওয়া হয় উচ্চ আদালতে। আদালত একটি কমিটি গঠন করে রুল জারি করেছেন।

 

বিটিআরসির আইনজীবী খন্দকরা রেজা ই রাকিব জানান, ফেসবুকে মানহানিকর কনটেন্ট ঠেকাতে একাধিক কমিটি হয়েছে, রয়েছে নীতিমালাও। তবে ভ্যাট, ট্যাক্সের বিষয়টি দেখছে এনবিআর।

 

তিনি বলেন, ‘ইনকাম ট্যাক্স যে অর্ডিন্যান্স আছে এবং ভ্যাট অ্যাক্ট- বাংলাদেশে যারাই ব্যবসা করতে চায় তাদের এর আওতায় আসতে হবে।’

 

বাংলাদেশে ফেসবুকের কোনো অফিস নেই। প্রতিনিধি হিসেবে একজন বাংলাদেশি নারীকে দায়িত্ব দেওয়া হয়েছে যিনি সিঙ্গাপুরে বসে বাংলা ভাষা ও পলিসি বিষয়ে কাজ করছেন বলে জানা গেছে।

তথ্য-প্রযুক্তি বিভাগের পাঠকপ্রিয় খবর