ঢাকা, ২০ অক্টোবর মঙ্গলবার, ২০২০ || ৫ কার্তিক ১৪২৭
good-food
৭৮

আয়োডিন দ্রবণে মাত্র ১৫ সেকেন্ডে শেষ করোনা!

লাইফ টিভি 24

প্রকাশিত: ১৮:৪৭ ২২ সেপ্টেম্বর ২০২০  

গোটা দুনিয়াকে স্থবির করে দিয়েছে করোনা। যুক্তরাষ্ট্রের মতো প্রবল পরাক্রমশালী দেশও এ ভাইরাসের মারণশক্তির কাছে অসহায়। চলতি বছরের প্রায় শুরু থেকেই কোভিড-১৯ এর তাণ্ডবলীলা দেখছে সারা বিশ্ব। 

 

রাশিয়া থেকে যুক্তরাষ্ট্র, ব্রিটেন থেকে জার্মানি, ভারত থেকে চীন-সব দেশের বিজ্ঞানীরা প্রাণঘাতী করোনার প্রতিষেধক আবিষ্কারে প্রাণপণ চেষ্টা করছেন। কেউ লক্ষ্যের কাছাকাছি পৌঁছে গিয়েছেন বলেও শোনা যাচ্ছে। 

 

তবে কবে ভ্যাকসিন বাজারে আসবে, নতুন ইংরেজি বছরের শুরুতে না শেষে-তা নিয়ে কেউই জোর দিয়ে কিছু বলতে পারছেন না। তাড়াহুড়ো করতে গিয়ে উল্টো অন্য বিপদ হবে কি না, তা নিয়েও সংশয় রয়েছে। 

 

এ সংকটময় মুহূর্তে এক গবেষণায় দাবি করা হয়েছে, হাতের নাগালে থাকা আয়োডিন সলিউশন (দ্রবণ) নিঃশেষ করতে পারে করোনাকে। 

 

সদ্য প্রকাশিত এ গবেষণা রিপোর্টে দৃঢ়তার সঙ্গে দাবি করা হয়, আয়োডিন সলিউশন এ ভাইরাসকে নিষ্ক্রিয় করায় অত্যন্ত কার্যকরী উপায়। করোনা নিয়ে ইউনিভার্সিটি অব কানেক্টিকাট স্কুল অব মেডিসিনের একটি গবেষণায় এ তথ্য উঠে এসেছে।

 

গবেষকদের দাবি, করোনা সম্পূর্ণভাবে নির্মূলে সাহায্য করতে পারে আয়োডিনের দ্রবণ। মারণঘাতী ভাইরাসের বিরুদ্ধে লড়াইয়ে এটা গুরুত্বপূর্ণ অগ্রগতি বলে ধরা হচ্ছে। 

 

মারণ এ রোগে নাজেহাল ভারতের মতো দেশ দ্রবণটি ব্যবহার করে ইতিবাচক ফল পেতে পারে। সোমবার পর্যন্ত দেশটিতে মৃতের সংখ্যা বেড়ে হয়েছে ৮৭ হাজার ৮৮২।

 

গবেষণার সময় তিনটি ভিন্ন মাত্রার আয়োডিন দ্রবণে কোভিড-১৯ ভাইরাস রাখা হয়। আয়োডিনের ০.৫ শতাংশ, ১.২৫ শতাংশ ও ২.৫ শতাংশ দ্রবণ তৈরি করেন গবেষকরা। তারা লক্ষ্য করেন তিনটি দ্রবণেই নোভেল করোনা সম্পূর্ণভাবে নিষ্ক্রিয় হয়ে গেছে। সবক্ষেত্রেই ভাইরাস নিষ্ক্রিয় হতে সময় লেগেছে মাত্র ১৫ সেকেন্ড। 

 

বিজ্ঞানীদের দাবি, চিকিৎসার শুরুতেই এ দ্রবণের ব্যবহারে করোনা নিষ্ক্রিয় হতে থাকবে। সংক্রমণের ঝুঁকিও কমবে।

 

গবেষণাপত্রের বিশদ প্রকাশিত হয়েছে জামা অটোলারিংগোলোজি-হেড অ্যান্ড নেক সার্ভেতে। বিশেষজ্ঞরা দেখেছেন সার্স ও মার্স-এর সংক্রমণ ঠেকাতেও আয়োডিনের দ্রবণ অত্যন্ত কার্যকরী। 

 

পাশাপাশি ইথানল বা ইথাইল অ্যালকোহলের দ্রবণ নিয়েও এ পরীক্ষা করেন বিজ্ঞানীরা। কিন্তু ইতিবাচক কোনও ফল তারা পাননি।

 

সোমবার পর্যন্ত বিশ্বজুড়ে করোনায় মৃত্যু হয়েছে ৯ লাখ ৬৭ হাজার ৬৩৭ জনের। মোট আক্রান্ত ৩ কোটি ১৪ লাখ ১৮ হাজার ৮৮৩। সুস্থ হয়ে উঠেছেন ২ কোটি ৩০ লাখ ৮ হাজার ৭১৫ জন।

স্বাস্থ্য বিভাগের পাঠকপ্রিয় খবর