ঢাকা, ২২ সেপ্টেম্বর মঙ্গলবার, ২০২০ || ৭ আশ্বিন ১৪২৭
good-food
৫৩

উপসর্গ নেই, অথচ পরীক্ষা করলেই পজিটিভ, তারা যা করবেন

লাইফ টিভি 24

প্রকাশিত: ২০:১৭ ৯ সেপ্টেম্বর ২০২০  

গলাব্যথা বা সর্দি-জ্বর কিছুই নেই। হাতে-পায়ে-শরীরে ব্যথা অনুভূত হচ্ছে না। শ্বাসকষ্টও নেই৷ অথচ পরীক্ষা করলেই করোনা পজিটিভ হচ্ছেন মানুষ। দেশজুড়ে এ ধরনের উপসর্গহীন আক্রান্ত রোগী দেখা যাচ্ছে।

সূত্র জানিয়েছে, উপসর্গহীন কিংবা অত্যন্ত কম উপসর্গযুক্ত কোভিড-১৯ সংক্রমিতদের হোম আইসোলেশনে রেখে চিকিৎসা হচ্ছে৷ তবে উপসর্গ না থাকা রোগীদের সঙ্গে সার্বক্ষণিক থাকছেন অ্যাটেন্ডেন্ট। তার সঙ্গে যোগাযোগ রক্ষা করছে হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ। 

যারা উপসর্গহীন, কিন্তু করোনা আক্রান্ত হয়ে বাড়িতে আছেন, তাদের কী ধরনের খাবার খাওয়া উচিত বলে মত দিচ্ছেন বিশেষজ্ঞ চিকিৎসকরা? আসুন, সেসব দেখে নেয়া যাক একনজরে-

#লবণ খাওয়া একদম কমিয়ে ফেলতে হবে। প্রচুর পরিমাণ সোডিয়াম থাকায় এটি রক্তচাপ বাড়িয়ে দেয়। হৃদরোগের সমস্যা থাকলে তা মারাত্মক হতে পারে। এসময় রক্তে অক্সিজেনের স্যাচুরেশন লেভেল কমতে থাকে৷ ফলে বেশি লবণ খাওয়া উচিত নয়।

#যথাসম্ভব চিনি খাওয়ার পরিমাণ কমিয়ে ফেলতে হবে। অতিরিক্ত চিনি ইনসুলিন হরমোনের কার্যকারিতা নষ্ট করে দেয়। এর বদলে মৌসুমি ফল খাওয়া যেতে পারে।

#ডাক্তারের পরামর্শ ছাড়া বাজারজাত প্রোটিন সাপ্লিমেন্ট বেশি খাওয়া যাবে না। অনেকেই বারবার চা খান। কিন্তু অতিরিক্ত চা এড়িয়ে চলা উচিত। প্রয়েজনে গ্রিন টি খেতে হবে।

#বাসি বা ঠাণ্ডা খাবার একেবারেই খাওয়া যাবে না। সবসময় খাবার গরম করে খেতে হবে। ফ্রিজের খাবার এড়িয়ে চলা শ্রেয়।

#আদা, রসুন, হলুদ বেশি করে খেতে হবে। এতে শরীরে রোগ-প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়ে। সকালে কাঁচা হলুদ খেতে পারলে খুবই ভালো। 

#দুধ-দই নিয়মিত খেতে হবে। পাতিলেবু, পাকা পেঁপে, আমন্ড বাদাম, আনারস যত বেশি পারা যায় খেতে হবে।

এছাড়া সর্বক্ষণ একজন ‘কেয়ারগিভার’ রাখতে হবে৷ বাসায় অক্সিজেনের ব্যবস্থা করতে হবে। পালস অক্সিমিটার, ডিজিটাল থার্মোমিটার, পিপিই থাকতে হবে।

রোগীকে আনন্দে রাখা, সাহস দেয়ার কাজটা করতে হবে আত্মীয়স্বজন ও প্রতিবেশীদের। কারণ, আতঙ্কিত না হয়ে রোগীর পাশে থাকলে সহজেই জয় করা যায় প্রাণঘাতী ভাইরাস।

স্বাস্থ্য বিভাগের পাঠকপ্রিয় খবর