ঢাকা, ৩০ মার্চ সোমবার, ২০২০ || ১৬ চৈত্র ১৪২৬
good-food
১৪৬

করোনাভাইরাস : উহান থেকে ফিরলেন ৩১৪ বাংলাদেশি

লাইফ টিভি 24

প্রকাশিত: ১৪:০৩ ১ ফেব্রুয়ারি ২০২০  

প্রাণঘাতি করোনাভাইরাসের প্রাদুর্ভাবে চীনের অবরুদ্ধ নগরী উহান থেকে অবশেষে  দেশে ফিরলেন ৩১৪ বাংলাদেশি।  
শনিবার বেলা ১২ টার কিছু আগে তাদের বহনকারী বিশেষ বিমানটি শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে পৌঁছায়। 


বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্সের উপ-মহাব্যবস্থাপক তাহেরা খন্দকার জানান, উহানের তিয়ানহি ইন্টারন্যাশনাল বিমানবন্দরে রাতভর অপেক্ষার পর স্থানীয় সময় শনিবার ভোর পৌনে ১০টায় (বাংলাদেশ সময় সকাল পৌনে ৮টায়) তাদের নিয়ে বিমানের ওই বোয়িং ৭৭৭ উড়োজাহাজ ঢাকার পথে উড়াল দেয়।

 

চীনফেরত এই বাংলাদেশিদের এখন আশকোনো হজ ক্যাম্পে ১৪ দিন পর্যবেক্ষণে রাখা হবে। সেখানে নিরাপত্তার দায়িত্বে থাকছেন পুলিশ  ও সেনা সদস্যরা। কারও মধ্যে সংক্রমণের লক্ষণ দেখা গেলে সঙ্গে সঙ্গে স্থানান্তর করা হবে হাসপাতালে।

 

পর্যবেক্ষণের এই সময় তাদের সঙ্গে দেখা করার জন্য স্বজনরা যেন ব্যাকুল না হয়ে পড়েন সেজন্য তাদের ধৈর্য ধরার আহ্বান জানিয়েছেন স্বাস্থ্যমন্ত্রী।

 

আশকোনোয় কোয়ারেন্টাইনে রেখে পর্যবেক্ষণের এই পুরো বিষয়টিতে আইইডিসিআরের সাবেক প্রধান বৈজ্ঞানিক কর্মকর্তা ড. মুশতাক হোসেনের অভিজ্ঞতা কাজে লাগাচ্ছে সরকার।

 

তিনি বলেন, ফ্লাইটে ৩১৪ জন এসেছেন। তাদের  কোয়ারেন্টাইন স্টেশন আশকোনার হাজী ক্যাম্পে নিয়ে রাখা হচ্ছে। আরও দুজনের আসার কথা থাকলেও শরীরে জ্বর থাকায় তারা চীনে রয়ে গেছেন।

ফিরে আসা বাংলাদেশিদের আশকোনা হজক্যাম্পে নেয়ার জন্য বিআরটিসির আটটি শীতাতপ নিয়ন্ত্রিত বাস  ও কয়েকটি অ্যাম্বুলেন্স আনা হয়। তাদের মালামাল নিয়ে যেতে আনা হয় চারটি ট্রাক।

 

মধ্য চীনের উহান শহরে ২০১৯ সালের ৩১ ডিসেম্বর করোনাভাইরাসের প্রথম সংক্রমণ শনাক্ত করা হয়। এ ভাইরাস মূলত শ্বাসতন্ত্রে সংক্রমণ ঘটায় এর লক্ষণগুলো হয় অনেকটা নিউমোনিয়ার মত।

 

নভেল করোনাভাইরাস-এর কোনো টিকা বা ভ্যাকসিন এখনো তৈরি হয়নি। ফলে এমন কোনো চিকিৎসা এখনও মানুষের জানা নেই, যা এ রোগ ঠেকাতে পারে। আপাতত একমাত্র উপায় হল, যারা ইতোমধ্যেই আক্রান্ত হয়েছেন বা এ ভাইরাস বহন করছেন - তাদের সংস্পর্শ এড়িয়ে চলা এবং কিছু স্বাস্থ্যবিধি ও পরিচ্ছন্নতার নিয়ম মেনে চলা।


গত এক মাসে কেবল চীনেই ১১ হাজারের বেশি মানুষ এ ভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছে, মৃত্যু হয়েছে কমপক্ষে ২৫৯ জনের।
চীনের বাইরে বিভিন্ন দেশে করোনাভাইরাস ছড়িয়ে পড়ায় এবং কয়েক জায়গায় মানুষ থেকে মানুষে ছড়ানোর খবর আসায় বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা নতুন করোনাভাইরাসের এ প্রাদুর্ভাবকে ‘বৈশ্বিক জরুরি অবস্থা’ ঘোষণা করেছে।


 

স্বাস্থ্য বিভাগের পাঠকপ্রিয় খবর