ঢাকা, ০৫ এপ্রিল রোববার, ২০২০ || ২২ চৈত্র ১৪২৬
good-food
১৫০

করোনার প্রতিরোধ এবং চিকিৎসায় নতুন আশার আলো

লাইফ টিভি 24

প্রকাশিত: ১২:২৭ ২১ মার্চ ২০২০  

মেজর ডা. খোশরোজ সামাদ : 

১.  আমরা জানি, করোনার সুনির্দিষ্ট কোন চিকিৎসা নেই। করোনা একটি ভাইরাস। মূলত ভাইরাসকে মেরে ফেলবার জন্য পুরোপুরি কার্যকরী ওষুধ নেই বললেই চলে। তাই ভাইরাসজনিত  SARS, MARS, AIDS  ইত্যাদি অসুস্থতায় চিকিৎসা বিজ্ঞানকে অসহায় মনে হয়েছে।

 

২.  ' ক্লোরোকুইন ' ম্যালেরিয়ার ওষুধ। ম্যালেরিয়ার জীবানু  Plasmodium একটি প্রটোজোয়া, ভাইরাস নয়। এ ছাড়া আর্থ্রাইটিস রোগে এর ব্যবহার আছে। শুধু চীনেই নয় ভারত,দক্ষিণ কোরিয়ায় করোনায় ক্লোরোকুইন ব্যাপকভাবে ব্যবহার করা হয়েছে। অনুমান করা হয় এর ফলে করোনায় মৃত্যুর হার আশাব্যঞ্জকভাবে কমিয়ে আনা সম্ভব হয়েছে। আফ্রিকায় ম্যালেরিয়া ব্যপক বিস্তারী রোগ। তাই ক্লোরোকুইনও ব্যাপক ব্যবহার হয়েছে। বলা হচ্ছে, আফ্রিকাতে করোনার প্রকোপ কম হওয়ার এটি অন্যতম কারণ। পাশাপাশি ইতালিতে করোনায় ক্লোরোকুইনের ব্যবহারের চল না থাকা এত বিপুল সংখ্যক প্রাণহানি ঘটেছে।

 

৩.  আমারিকার  FDA, ফেডারেল ড্রাগ এজেন্সী নতুন ওষুধ আবিষ্কারের অন্যতম অগ্রদূত। তবে শুধু ল্যাবরেটরিতে পরীক্ষা নয়, পশুর উপর ট্রায়াল, সীমিত সংখ্যক 'স্বেচ্ছা প্রণোদিত ' রোগীর উপর প্রয়োগ সবশেষে ' পোস্ট মার্কেটিং সার্ভিল্যান্সের ' স্তর পেরিয়ে এই সংস্থা নতুন ওষুধ সাধারণ্যে বাজারজাত করবার অনুমতি দেয়। এই প্রক্রিয়ায় নতুন ওষুধ বাজারজাত করতে কয়েক বছর সময় লেগে যায়।

 

৪.  বহু ওষুধের সঠিক 'মেকানিজম অব একশন ' না জানা থাকলেও সেই ওষুধগুলি দিব্যি কার্যকরী। ক্লোরোকুইন ঠিক কি ভাবে করোনা ভাইরাসের ওপর কাজ করছে সেটি না জানা গেলেও এটিই বর্তমানে কোবিড -১৯ এর প্রতিরোধ এবং চিকিৎসায় অধিকতর কার্যকরী ওষুধ হিসেবে ধরে নেয়া যাচ্ছে। গলায়, শ্বাসযন্ত্র আক্রমণের বিরুদ্ধে ইরাইথ্রোমাইসিন নামক এন্টিবায়োটিকও যুগপৎ ব্যবহার করা হয়।

 

৫.  অতি সম্প্রতি কানাডায় ক্লোরোকুইনের ব্যবহার শুরু হয়েছে ।খোদ মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প এক বক্তব্যে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে ক্লোরোকুইনের ব্যবহারের কথা ঘোষণা দেন। করোনার মত সর্বগ্রাসী রোগের পুরোপুরি কার্যকরী ওষুধ দ্রুত আবিষ্কার হোক।শত কষ্টে জর্জরিত ধরিত্রী মাতা করোনা চিকিৎসায় একটু আশার আলো খুঁজে পাক।

 


# মেজর ডা. খোশরোজ সামাদ,  ক্লাসিফাইড স্পেশালিষ্ট, ফার্মাকোলজি, আর্মড ফোর্সেস মেডিকেল কলেজ

স্বাস্থ্য বিভাগের পাঠকপ্রিয় খবর