ঢাকা, ০৩ জুন বুধবার, ২০২০ || ১৯ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৭
good-food
১৭২

জীবন না জীবিকা আগে?

শরিফুল হাসান

লাইফ টিভি 24

প্রকাশিত: ১১:২৫ ৩ মে ২০২০  

শরিফুল হাসান  :  জীবন না জীবিকা আগে, সেই দ্বন্দ্বে আছি আমরা। একই দ্বন্দ্বে সারা পৃথিবী। সেটাই স্বাভাবিক। তবে আমার ব্যক্তিগত মত হলো, জীবন আগে। সংকট যতোই হোক, না খেয়ে লোক মরার মতো অবস্থা নেই বাংলাদেশে। আমরা এখন আর দুর্ভিক্ষের জাতিতে নেই। স্বাধীনতার পর আমরা পৃথিবীর দ্বিতীয় দরিদ্র দেশ ছিলাম। কিন্তু গত চার দশকে অবস্থা পাল্টেছে।

 

না, বাংলাদেশ খুব উন্নত হয়ে গেছি সেটা আমি বলবো না। কিন্তু আমাদের কৃষি আর অর্থনীতি যে অবস্থায় আছে তাতে না খেয়ে আমরা মরবো না। অন্তত গত দুই মাসে আমি শুনিনি না খেয়ে লোকজন মারা যাচ্ছে। আমরা নানাভাবে সবার পাশে সবাই দাঁড়াচ্ছি। আমি বিশ্বাস করি আমরা পরষ্পর পরষ্পরের পাশে দাঁড়ালে এই দেশে একজনও না খেয়ে মরবে না। কিন্তু করোনায় মানুষ মরবে।

 

ইতিমধ্যেই ১৭৫ জন মারা গেছে। আমাদের যে পরিস্থিতি, আমাদের হাসপাতাল-চিকিৎসার যে অবস্থা তাতে আরও মানুষ মারা যাবে। আরও অনেক আক্রান্ত হবে। এমনকি পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে রাখতে না পারলে ভয়াবহ পরিনতিও হতে পারে। এখন বলেন কোনটা আগে? জীবন না জীবিকা?

 

আমি বলবো জীবন। এই মুহুর্তে করোনা মোকাবেলায় আমাদের সবচেয়ে বেশি গুরুত্ব দেয়া উচিত। হাসপাতাল-চিকিৎসাব্যবস্থাটা ঠিক করা, করোনা যেন না ছড়ায় সেই উদ্যোগ নেয়া, এসবে আমাদের বেশি গুরুত্ব দেয়া উচিত। আরও এক মাস প্রয়োজনে ছুটি থাকতে পারে। কিন্তু সেগুলো যেন কাজের হয়। সমন্বিতভাবে আমরা যেন লড়াইটা করতে পারি।

 

হ্যা, অর্থনৈতিকভাবে আমরা অনেক ক্ষতির শিকার হবো। কিন্তু আমি মনে করি বেঁচে থাকলে সেই ক্ষতি কাটিয়ে ওঠা যাবে। কিন্তু আমরা যদি মনে করি যা হবার হবে, পাঁচশ-এক হাজার মানুষই না হয় মরবে, কাজেই সব খুলে দেই, তাহলে কিন্তু বড় ভুল হয়ে যাবে। পোশাক কারখানাগুলোএই যে খুললো সেখানে বেশিরভাগ জায়গায় সামাজিক দূরত্ব বলে কিছু নেই। একই দুরাবস্থা বহু জায়গায়। এর মধ্যেই সব খুলে দেয়ার ভাবনাটা আত্মঘাতি হবে।

 

ভেবে দেখেন, প্রায় নয় হাজার মানুষ আক্রান্ত। ১৭৫ জন মারা গেছে। সামন কী আসছে আমরা জানি না। মনে রাখবেন, করোনা কিন্তু খুব ভয়াবহ। আপনারা আজকে যারা ঘর থেকে বের হতে চাইছেন করোনা কিন্তু চাইলে এই পুরো জাতিকে আবার ঘরে ঢুকিয়ে দেবে। আমরা আজকে যারা বলছি সব খুলে দিন, এই মে মাসেই কিন্তু এমন অবস্থা হতে পারে যে আপনারাই বলছেন সব বন্ধ করেন। দোয়া করি এমন যেন না হয়।

 

রাষ্ট্রসহ সবাইকে বলবো, জীবিকার কথা, অর্থনীতির কথা আমরা অবশ্যই ভাববো, স্বাস্থ্যবিধি শতভাগ নিশ্চিত করে আমরা আস্তে আস্তে কী করতে পারি সেটাও ভাবতে হবে। কিন্তু জীবন সবার আগে। মনে রাখতে হবে, জীবনের জন্য জীবিকা। জীবিকার জন্য জীবন নয়। কাজেই মানুষতে বাঁচাতেই হবে। আল্লাহ আমাদের সবার মঙ্গল করুন। ভালো থাকুক বাংলাদেশ। ভালো থাকুক পৃথিবী।