ঢাকা, ২৯ জানুয়ারি বুধবার, ২০২০ || ১৫ মাঘ ১৪২৬
LifeTv24 :: লাইফ টিভি 24
৯২

তুমি রবে নীরবে . . .

মেজর ডা. খোশরোজ সামাদ

প্রকাশিত: ২৩:৪৩ ৯ ডিসেম্বর ২০১৯  


১. যে পিতাকে সন্তানের মৃত্যু দেখে যেতে হয় সেই বেদনার হোমশিখার দহন শুধু তিনিই জানেন। আর সন্তানকে যদি মধ্যযুগীয় কায়দায় হত্যা করা হয়, সেই কষ্টের গভীরতা আটলান্টিককেও হারিয়ে দেয়। অন্যভূবনে চলে গেলেন অভিজিৎ রায়ের পিতা অজয় রায়।

কোন অভিজিৎ? যিনি ব্লগে তার মত প্রকাশ করেছিলেন। ব্লগ কি? প্রিয় পাঠক, আপনি যিনি এই লেখাটি পড়ছেন নিশ্চয় জানেন প্রকারান্তরে এই লেখাটিও ব্লগ। আপনি, যিনি ফেসবুকে টুকিটাকি লেখেন সেটিও ব্লগ। সেই অর্থে আমিও ব্লগার, আপনিও ব্লগার। আজ পর্যন্ত হত্যার প্রকৃত রহস্য উদঘাটন না হলেও ধরে নেয়া হয় ব্লগে ভিন্নমত প্রকাশের দায়ে অভিজিতকে হত্যা করা হয়।

 

২. ভিন্নমত প্রকাশ ও জনসাধারণকে ক্ষেপিয়ে তুলবার অপরাধে সক্রেটিসকে হেমলকের পেয়ালা তুলে দেয়া হয়েছিল, ব্রুনোকে হত্যা করা হয়, গ্যালিলিওকে উচ্চারিত সত্যশব্দ ফিরিয়ে নেয়ার জন্য নির্যাতন করা হয়।

 

৩. আকাশ ছোঁয়া মেধাবী অজয় বিলেত থেকে পি এইচ ডি এবং পোস্ট ডক ফেলোশিপ করেন।বিদেশে অর্থ বিত্ত খ্যাতির প্রলোভনকে উপেক্ষা করে বাংলা নামের পলল মাটিতে কাজ করবার জন্য তিনি ফিরে আসেন। ঢাকা বিশব্বিদ্যালয়ে পদার্থ বিজ্ঞান বিভাগে শিক্ষকতাকে বেছে নেন। খোদ নোবেল কমিটি তাঁর গবেষণার ওপর কাজ করে যাচ্ছে।

 

৪. মৃত্যু অজয়কে অজেয় করেছে। চিকিৎসা বিজ্ঞানের উৎকর্ষের জন্য অজয় রায় তাঁর দেহ দান করলেন, তাঁর স্ত্রী শেফালি রায় এবং সন্তান অভিজিৎও মরণোত্তর দেহ দান করেছিলেন। এক পরিবারে তিনজনের দেহ দান করবার ইতিহাস সম্ভবত এটিই প্রথম।

 

৫. মহান মুক্তিযুদ্ধে অজয় রায় সন্মুখ সমরে অংশগ্রহণ করেন। যখনই অন্ধকারের শক্তি মাথাচাড়া দিয়ে উঠেছিল, তার বিরুদ্ধে অজয় রায় তখনই খাপখোলা তরবারির মত ঝলসে উঠেছিলেন। যদি বাহান্নো সত্যি হয় তবে অজয় রায় সত্যি। যদি একাত্তর সত্যি হয় তাহলে তিনি সত্যি। কালের আবর্তে অজয় রায় কি হারিয়ে যাবেন? রবীন্দ্রনাথ সম্ভবত দিব্যদৃষ্টিতে অজয় রায়দের দেখতে পেয়েছিলেন। তাই শতবর্ষ আগে তিনি লিখেছিলেন, ' তুমি রবে নীরবে নিশীথিনী সম '!