ঢাকা, ২৩ মার্চ, ২০১৯ || ৯ চৈত্র ১৪২৫

পরীক্ষামূলক

LifeTv24 :: লাইফ টিভি 24
৩৩

স্ত্রীকে নিয়ে নিমন্ত্রণে গেলে অবশ্যই ৭ ভদ্রতা মেনে চলুন

প্রকাশিত: ৫ মার্চ ২০১৯  


দাম্পত্য জীবনে প্রবেশ করলে জীবন বদলে যায় অনেকখানি।  অন্যসব ক্ষেত্রের পাশাপাশি যুগল জীবনের প্রভাব পড়ে সোশ্যাল লাইফেও।  বিয়ের পর কোনো নিমন্ত্রণ বা অনুষ্ঠানে গেলে জীবনসঙ্গীকে সঙ্গে নিয়ে যেতে হয়।  বিশেষ করে আত্মীয়স্বজনের বাসায় দাওয়াতের ডাক পড়ে প্রচুর।  মুখরক্ষায় স্ত্রীকে সঙ্গে নিয়ে যাওয়াটা দারুণ ব্যাপার। কিন্তু সেই নিমন্ত্রণ খেতে গেলে কিছু ভদ্রতা মানতে হয়, সেগুলো জানা আছে কী? তো দেরি কেন?  জেনে নিন সঠিক ভদ্রতাগুলো।

১. নিমন্ত্রণ খেতে যাওয়া বাড়ির রান্না খুব ভালো হতে পারে।  স্বাভাবিকভাবেই তাদের প্রশংসা প্রাপ্য। তবে অন্যের রান্নার প্রশংসা করতে গিয়ে নিজের স্ত্রীকে খাটো করা যাবে না।  অনেকেই প্রিয়তমার রান্নার দুর্নাম করেন।  সবার সামনেই আত্মীয়র কাছ থেকে স্ত্রীকে রান্না শিখে নিতে বলেন।  এ কাজটি কখনই করা যাবে না।

২. খালি হাতে নিমন্ত্রণ খেতে যাওয়া যাবে না।  একা গেলে শুধু খেয়েও চলে আসা যায়। তবে স্ত্রীকে সঙ্গে নিয়ে কোথাও বেড়াতে গেলে উপহার নিয়ে যাওয়াটা আবশ্যক।

৩. দাওয়াতে গিয়ে স্ত্রীকে ফেলে নিজে ব্যস্ত হয়ে পড়া যাবে না। প্রিয়তমাকে রেখে নিজে খাওয়া যাবে না।  দুজনে একসঙ্গে খাওয়াটাই অন্যতম ভদ্রতা।

৪. খাবারের সময় স্ত্রীকে বেশি বা কম খাওয়ার জন্য চাপাচাপি করা যাবে না।  জোর করে পাতে খাবার তুলে দেয়া যাবে না।  তাকে নিজের মতো করেই খাওয়ার পর্ব উপভোগ করতে দিতে হবে।

৫. খাওয়ার সময় কোনোরকম মনোমালিন্য বা তর্ক-বিতর্ক এড়িয়ে চলুন।  কোনো সমস্যা হলে বাসায় ফিরে তা সমাধান করুন।

৬. নিমন্ত্রণে গিয়ে নিজের স্ত্রীর রান্নার প্রশংসাও করা যাবে না।  এতে আশপাশের অতিথিরা  বিরক্ত হতে পারে।

৭. আত্মীয়র বাড়ি থেকে দাওয়াত খেয়ে ফেরার পথে তাদেরও নিমন্ত্রণ করে আসতে হবে।  বিয়ের পর এটি খুব সাধারণ ভদ্রতা।