ঢাকা, ১৩ জুলাই সোমবার, ২০২০ || ২৯ আষাঢ় ১৪২৭
good-food
১২০

করোনা : মানবতার ফেরিওয়ালা এহসানুল করিমের প্রয়াণ 

লাইফ টিভি 24

প্রকাশিত: ১৭:৫৯ ৩ জুন ২০২০  

 চট্টগ্রামের মেরিন সিটি মেডিকেল কলেজের মেডিসিন বিভাগের প্রধান ও মেডিসিন বিশেষজ্ঞ ডা. এহসানুল করিম করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে মারা গেছেন। বুধবার দুপুরে চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ (চমেক) হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তাঁর মৃত্যু হয়। ডা. এহসানুল করিম চট্টগ্রামে করোনা আক্রান্ত হয়ে মারা যাওয়া চিকিৎসকদের মধ্যে প্রথম। তিনি ইউএসটিসির ৯ম ব্যাচের ছাত্র।         

জানা যায়, গত চারদিন আগে ডা. এহসানুল করিমের করোনা শনাক্ত হয়। এরপর তাকে চমেক হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। বুধবার সকালে অবস্থার অবনতি হলে আইসিইউতে নেওয়ার পথেই তার মৃত্যু হয়। এর আগে ডা. এহসান ব্লাড ক্যান্সার রোগেও ভুগছিলেন।

স্বাধীনতা চিকিৎসক পরিষদের (স্বাচিপ) চট্টগ্রামের করোনা মনিটরিং সেলের সমন্বয়ক ডা. আ ম ম মিনহাজুর রহমান বলেন, ‘ডা. এহসানুল করিম করোনা আক্রান্ত হওয়ার পর চমেক হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। অবস্থার অবনতি হলে সকালে আইসিইউতে নেয়ার পথে তাঁর মৃত্যু হয়।’
ওয়াই-স্যাব এর ফাউন্ডার চেয়ারম্যান ডা. হামিদ হোছাইন আজাদ বলেন, ‘চট্টগ্রামে করোনা দেখা দেওয়ার পরও ডা. এহসানুল করিম স্যার চেম্বার বন্ধ করেননি। একদিনের জন্যও তিনি রোগীদের বঞ্চিত করেননি। তিনি দেশের একজন লিজেন্ড মেডিসিন বিশেষজ্ঞ ছিলেন। আজ আমরা মানবতার এমন ফেরিওয়ালা স্যারকে হারিয়ে ফেলছি।’


চট্টগ্রাম: চট্টগ্রামের মেরিন সিটি মেডিকেল কলেজের মেডিসিন বিভাগের প্রধান ও মেডিসিন বিশেষজ্ঞ ডা. এহসানুল করিম করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে মারা গেছেন। বুধবার দুপুরে চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ (চমেক) হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তাঁর মৃত্যু হয়। ডা. এহসানুল করিম চট্টগ্রামে করোনা আক্রান্ত হয়ে মারা যাওয়া চিকিৎসকদের মধ্যে প্রথম। তিনি ইউএসটিসির ৯ম ব্যাচের ছাত্র।         

জানা যায়, গত চারদিন আগে ডা. এহসানুল করিমের করোনা শনাক্ত হয়। এরপর তাকে চমেক হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। বুধবার সকালে অবস্থার অবনতি হলে আইসিইউতে নেওয়ার পথেই তার মৃত্যু হয়। এর আগে ডা. এহসান ব্লাড ক্যান্সার রোগেও ভুগছিলেন।

স্বাধীনতা চিকিৎসক পরিষদের (স্বাচিপ) চট্টগ্রামের করোনা মনিটরিং সেলের সমন্বয়ক ডা. আ ম ম মিনহাজুর রহমান বলেন, ‘ডা. এহসানুল করিম করোনা আক্রান্ত হওয়ার পর চমেক হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। অবস্থার অবনতি হলে সকালে আইসিইউতে নেয়ার পথে তাঁর মৃত্যু হয়।’
ওয়াই-স্যাব এর ফাউন্ডার চেয়ারম্যান ডা. হামিদ হোছাইন আজাদ বলেন, ‘চট্টগ্রামে করোনা দেখা দেওয়ার পরও ডা. এহসানুল করিম স্যার চেম্বার বন্ধ করেননি। একদিনের জন্যও তিনি রোগীদের বঞ্চিত করেননি। তিনি দেশের একজন লিজেন্ড মেডিসিন বিশেষজ্ঞ ছিলেন। আজ আমরা মানবতার এমন ফেরিওয়ালা স্যারকে হারিয়ে ফেলছি।’


চট্টগ্রাম: চট্টগ্রামের মেরিন সিটি মেডিকেল কলেজের মেডিসিন বিভাগের প্রধান ও মেডিসিন বিশেষজ্ঞ ডা. এহসানুল করিম করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে মারা গেছেন। বুধবার দুপুরে চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ (চমেক) হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তাঁর মৃত্যু হয়। ডা. এহসানুল করিম চট্টগ্রামে করোনা আক্রান্ত হয়ে মারা যাওয়া চিকিৎসকদের মধ্যে প্রথম। তিনি ইউএসটিসির ৯ম ব্যাচের ছাত্র।         

জানা যায়, গত চারদিন আগে ডা. এহসানুল করিমের করোনা শনাক্ত হয়। এরপর তাকে চমেক হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। বুধবার সকালে অবস্থার অবনতি হলে আইসিইউতে নেওয়ার পথেই তার মৃত্যু হয়। এর আগে ডা. এহসান ব্লাড ক্যান্সার রোগেও ভুগছিলেন।

স্বাধীনতা চিকিৎসক পরিষদের (স্বাচিপ) চট্টগ্রামের করোনা মনিটরিং সেলের সমন্বয়ক ডা. আ ম ম মিনহাজুর রহমান বলেন, ‘ডা. এহসানুল করিম করোনা আক্রান্ত হওয়ার পর চমেক হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। অবস্থার অবনতি হলে সকালে আইসিইউতে নেয়ার পথে তাঁর মৃত্যু হয়।’
ওয়াই-স্যাব এর ফাউন্ডার চেয়ারম্যান ডা. হামিদ হোছাইন আজাদ বলেন, ‘চট্টগ্রামে করোনা দেখা দেওয়ার পরও ডা. এহসানুল করিম স্যার চেম্বার বন্ধ করেননি। একদিনের জন্যও তিনি রোগীদের বঞ্চিত করেননি। তিনি দেশের একজন লিজেন্ড মেডিসিন বিশেষজ্ঞ ছিলেন। আজ আমরা মানবতার এমন ফেরিওয়ালা স্যারকে হারিয়ে ফেলছি।’


চট্টগ্রাম: চট্টগ্রামের মেরিন সিটি মেডিকেল কলেজের মেডিসিন বিভাগের প্রধান ও মেডিসিন বিশেষজ্ঞ ডা. এহসানুল করিম করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে মারা গেছেন। বুধবার দুপুরে চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ (চমেক) হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তাঁর মৃত্যু হয়। ডা. এহসানুল করিম চট্টগ্রামে করোনা আক্রান্ত হয়ে মারা যাওয়া চিকিৎসকদের মধ্যে প্রথম। তিনি ইউএসটিসির ৯ম ব্যাচের ছাত্র।         

জানা যায়, গত চারদিন আগে ডা. এহসানুল করিমের করোনা শনাক্ত হয়। এরপর তাকে চমেক হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। বুধবার সকালে অবস্থার অবনতি হলে আইসিইউতে নেওয়ার পথেই তার মৃত্যু হয়। এর আগে ডা. এহসান ব্লাড ক্যান্সার রোগেও ভুগছিলেন।

স্বাধীনতা চিকিৎসক পরিষদের (স্বাচিপ) চট্টগ্রামের করোনা মনিটরিং সেলের সমন্বয়ক ডা. আ ম ম মিনহাজুর রহমান বলেন, ‘ডা. এহসানুল করিম করোনা আক্রান্ত হওয়ার পর চমেক হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। অবস্থার অবনতি হলে সকালে আইসিইউতে নেয়ার পথে তাঁর মৃত্যু হয়।’
ওয়াই-স্যাব এর ফাউন্ডার চেয়ারম্যান ডা. হামিদ হোছাইন আজাদ বলেন, ‘চট্টগ্রামে করোনা দেখা দেওয়ার পরও ডা. এহসানুল করিম স্যার চেম্বার বন্ধ করেননি। একদিনের জন্যও তিনি রোগীদের বঞ্চিত করেননি। তিনি দেশের একজন লিজেন্ড মেডিসিন বিশেষজ্ঞ ছিলেন। আজ আমরা মানবতার এমন ফেরিওয়ালা স্যারকে হারিয়ে ফেলছি।’

করোনাভাইরাস বিভাগের পাঠকপ্রিয় খবর