ঢাকা, ২৬ নভেম্বর বৃহস্পতিবার, ২০২০ || ১২ অগ্রাহায়ণ ১৪২৭
good-food
১৪৩

বৃদ্ধা মাকে ৫ টুকরো করে ধানক্ষেতে ফেলে ছেলে

লাইফ টিভি 24

প্রকাশিত: ১৭:২০ ২২ অক্টোবর ২০২০  

নোয়াখালীর সুবর্ণচরে বৃদ্ধা মাকে ৫ টুকরো করে হত্যার ১৫ দিন পর ঘটনার লোমহর্ষক রহস্য উদঘাটন করেছে পুলিশ। নৃশংস এ হত্যাকাণ্ডে জড়িত বৃদ্ধার ছেলে হুমায়ুন। তাকে সহযোগিতা করেছে তার কসাই বন্ধুসহ মোট ৭ জন।

 

বৃহস্পতিবার চট্টগ্রাম রেঞ্জের ডিআইজি মোহাম্মদ আনোয়ার হোসেন সংবাদ সম্মেলনে এসব তথ্য দেন। তিনি জানান, মায়ের জিম্মায় আনা সুদের টাকা পাওনাদারদের না দিতে এবং পৈতৃক সম্পত্তি আত্মসাৎ করতেই তাকে পরিকল্পিতভাবে হত্যা করেছে ছেলে। 

 

গেল ৭ অক্টোবর চাঞ্চল্যকর এই ঘটনা ঘটে। ওই দিন রাতেই বাদী হয়ে থানায় মামলা করে হুমায়ুন। পরের দিন দেশের শীর্ষস্থানীয় নিউজ চ্যানেলের ক্যামেরার সামনে মায়ের হত্যার বিচার চায় সে। 

 

মামলার সূত্র ধরে তদন্তে নামে পুলিশ। পরে এই ঘটনায় ৭ সহযোগীসহ হত্যাকাণ্ডে ছেলে সরাসরি জড়িত বলে প্রমাণ মেলে।

 

ডিআইজি আনোয়ার হোসেন বলেন, ঋণের টাকা শোধ করা নিয়ে বিরোধের জেরে সহযোগীদের নিয়ে প্রথমে বালিশ চাপা দিয়ে মা নুরজাহান বেগমকে (৬০) হত্যা করে হুমায়ূন। পরে চাপাতি ও ধারালো অস্ত্র দিয়ে তার মরদেহ খণ্ডিত করে তারা। ৫ টুকরা করে তা ধানক্ষেতে ফেলে দেয়। ৮ অক্টোবর সেখান থেকে বৃদ্ধার খণ্ডিত লাশ উদ্ধার করে পুলিশ।

 

এই ঘটনায় তদন্ত কর্মকর্তা বাদী হয়ে নিহত বৃদ্ধার ছেলে হুমায়ুনকে প্রধান করে ৭ জনের বিরুদ্ধে মামলা করেন। এর মধ্যে ৫ আসামিকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ।

অপরাধ বিভাগের পাঠকপ্রিয় খবর