ঢাকা, ২০ এপ্রিল মঙ্গলবার, ২০২১ || ৭ বৈশাখ ১৪২৮
good-food
৬৭

মাস্ক পরছেন না? নতুন করে বিপদ ডেকে আনছেন

লাইফ টিভি 24

প্রকাশিত: ২২:২৮ ১১ ফেব্রুয়ারি ২০২১  

এখনও করোনার প্রকোপ থেকে পুরোপুরি মুক্তি মেলেনি। প্রধানমন্ত্রী থেকে শুরু করে চিকিৎসক ও বিশেষজ্ঞ- সবাই পরামর্শ দিচ্ছেন টিকাকরণ প্রক্রিয়া শুরু হলেও এখনই মাস্ক ত্যাগ করবেন না। বিভিন্ন স্বাস্থ্যবিধিতেও বারবার পরামর্শ দেওয়া হচ্ছে সবাইকে অবশ্যই তা পরতে হবে।

 

কিন্তু সেই নির্দেশ ও পরামর্শ কতটা মানছেন সাধারণ মানুষ? বাস স্ট্যান্ড থেকে শুরু করে হাসপাতাল এমনকি ট্রেনের কামরা কেউই মাস্ক পরছেন না। হাতে গোনা কিছু লোক তা ব্যবহার করছেন।


প্রত্যেকেরই একটি যুক্তি। পকেটে আছে ভুল করে পরা হয়নি। অনেকের আবার অদ্ভুত যুক্তি, এখন এগুলো ব্যবহার করার প্রয়োজন নেই। রোগের প্রকোপ কমেছে। সরকারি দফতরের নিষেধাজ্ঞা আছে। কিন্তু সেই নিয়ম মানে কে।


সরকারি দফতরগুলোতে যারা আসছেন, তারা কেউই মাস্ক ব্যবহার করছেন না। এ প্রেক্ষিতে স্বাস্থ্য অধিদফতরের বক্তব্য, আবার আগের মতো নজরদারি চালাতে হবে।


পুলিশের বক্তব্য, কর্তব্যরত পুলিশ কর্মীরা রাস্তাঘাটে কাউকে না পরতে দেখলে ব্যবস্থা নেয়। সবার আগে সাধারণ মানুষকে সচেতন হতে হবে।


বিশেষজ্ঞরা জানাচ্ছেন, আরও বেশ কয়েক বছর মাস্ক পরাকে অভ্যাসে পরিণত করতে হবে। এখনও সবাই প্রতিষেধক নেয়নি। সুতরাং ঝুঁকি একটা থেকেই যায়।


এক চিকিৎসক বলেন, আমাদের দেশে হার্ড ইমিউনিটি আস্তে আস্তে তৈরি হতে শুরু করেছে। তাই বলে গা ছাড়া দিলে চলবে না। আমাদের সবাইকে এখনও সতর্ক থাকতে হবে। মাস্ক ব্যবহার করতে হবে, সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখতে হবে। পাশাপাশি ঘন ঘন হ্যান্ড স্যানিটাইজার ব্যবহার করতে হবে।


এত প্রচার চালানো হচ্ছে তবুও কারও হুঁশ ফিরছে না। স্বাস্থ্য দফতরে পরিসংখ্যান বলছে, করোনার প্রকোপ কমেছে। কিন্তু এসময়টায় সবাইকে সাবধান থাকতে হবে, জানাচ্ছেন জনস্বাস্থ্য বিশেষজ্ঞরা।


যারা মাস্ক ব্যবহার করছেন না, তারা আবার সামাজিক দূরত্বের পাল্টা যুক্তি দেখাচ্ছেন। বলছেন, যেভাবে ট্রেনে, বাসে এবং বাজারে ভিড় বাড়ছে, সেক্ষেত্রে ন্যূনতম স্বাস্থ্যবিধি কেউ মানতে চাইছে না।

করোনাভাইরাস বিভাগের পাঠকপ্রিয় খবর