ঢাকা, ২২ মে বুধবার, ২০১৯ || ৮ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৬
LifeTv24 :: লাইফ টিভি 24
৩৯

শপথ নেয়ার ক’ঘন্টা পরেই সুলতানকে বহিষ্কার

প্রকাশিত: ১৯:৩৪ ৭ মার্চ ২০১৯  

ফাইল ছবি

ফাইল ছবি


দলীয় সিদ্ধান্ত উপেক্ষা করে সংসদ সদস্য হিসেবে শপথ নেয়ার অভিযোগে গণফোরাম থেকে বহিষ্কার করা হলো সুলতান মো. মনসুর আহমেদকে ।

 

অবশ্য ড. কামাল হোসেনের দল গণফোরামে সুলতান মনসুরের নাম সভাপতিমণ্ডলীর তালিকায় থাকলেও তিনি দাবি করে আসছেন, এই দলে তিনি যুক্ত নন।

 

জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের হয়ে বিএনপির ‘ধানের শীষ’ প্রতীক নিয়ে একাদশ সংসদ নির্বাচনে বিজয়ী এক সময়ের আওয়ামী লীগ নেতা সুলতান মনসুর আজ বৃহস্পতিবার সকালে শপথ নেন।

 

শপথ নেয়ার পর তিনি সাংবাদিকদের বলেন, জোটের শীর্ষ নেতা অর্থাৎ কামাল হোসেনকে ‘জানিয়েই’ তিনি শপথ নিয়েছেন।

 

তার কয়েক ঘণ্টার মধ্যে বিকেলে মতিঝিলে দলীয় কার্যালয়ে সংবাদ সম্মেলনে এসে সুলতান মনসুরকে গণফোরাম থেকে বহিষ্কারের সিদ্ধান্ত জানান দলটির সাধারণ সম্পাদক মোস্তফা মহসিন মন্টু। তিনি বললেন, কামাল হোসেনের ‘নির্দেশেই’ এই পদক্ষেপ নেয়া হয়েছে।

 

সুলতান মনসুরকে জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের স্টিয়ারিং কমিটি থেকেও অব্যাহতি দেয়া হয়েছে বলেও জানান মন্টু। ওই জোটে গণফোরাম ছাড়াও রয়েছে বিএনপি, কৃষক-শ্রমিক-জনতা লীগ, জেএসডি ও নাগরিক ঐক্য।

 

একাদশ সংসদ নির্বাচনের আগে ড. কামাল হোসেনের উদ্যোগে বিএনপিকে নিয়ে এই জোট গঠিত হয় এবং জোটের প্রায় সব প্রার্থী বিএনপির ধানের শীষ প্রতীক নিয়ে অংশ নিয়েছিলেন।

 

সুলতান মনসুরও মৌলভীবাজার-২ আসনে ধানের শীষ প্রতীকের প্রার্থী হন। তিনিসহ জোটের মোট আটজন জিতলেও হেরে যান বাকি সবাই।

 

ফল ঘোষণার পর ‘ভোট ডাকাতি’র অভিযোগ তুললেও কামাল হোসেন ঐক্যফ্রন্ট থেকে বিজয়ীদের শপথ নেয়ার ইঙ্গিত দিয়েছিলেন। কিন্তু পরে বিএনপির অনড় অবস্থানের মধ্যে জোটের পক্ষ থেকে জানানো হয়, ঐক্যফ্রন্ট থেকে নির্বাচিত কেউ সংসদ সদস্য হিসেবে শপথ নেবে না।

 

কিন্তু এর মধ্যে গণফোরামের হয়ে নির্বাচনে জিতে আসা সুলতান মনসুর ও মোকাব্বির খান শপথ নেওয়ার আগ্রহ জানিয়ে চিঠি দেন স্পিকার শিরীন শারমিন চৌধুরীকে।

 

শেষ মুহূর্তে মোকাব্বির দলের সিদ্ধান্তের অপেক্ষায় থেকে বৃহস্পতিবার সংসদ ভবনে না গেলেও সুলতান মনসুর গিয়ে শপথ নেন।

 

শপথ নেয়ার পর আওয়ামী লীগের সাবেক এই সংগঠনিক সম্পাদক বলেন - ‘জয় বাংলা-জয় বঙ্গবন্ধু’ ।

২০০৭ সালে জরুরি অবস্থার সময় সংস্কারপন্থি হিসেবে চিহ্নিত হয়ে দলে অপাঙক্তেয় হয়ে পড়ার কয়েক বছর পর  যোগ দিয়েছিলেন আওয়ামী লীগেরই এক সময়ের নেতা ড. কামাল হোসেনের সঙ্গে।

 

 


এই বিভাগের আরো খবর