ঢাকা, ২০ এপ্রিল মঙ্গলবার, ২০২১ || ৭ বৈশাখ ১৪২৮
good-food
৮৯

অফিসে ‘বদমেজাজী’ বসকে খুশি করার যত উপায়

লাইফ টিভি 24

প্রকাশিত: ২২:১৬ ২৮ জানুয়ারি ২০২১  

বস, অফিসের এমন একজন ব্যক্তি যার নাম শুনলেই ভয় আসে মনে। পরিশ্রম করছেন, সঠিক সময়ে অফিস আসছেন, এসে ফাঁকি মারেন না, তারপরও বস নাখোশ। একটুতেই সবার সামনে আপনার ওপর চেঁচামেচি করেন। রেগে গিয়ে কাজের বোঝা চাপিয়ে দেন আপনার ঘাড়ে। আপনাকে দেখলেই ভ্রু কুঁচকে যায় বসের। 

 

কিন্তু তার সঙ্গে খারাপ ব্যবহারও করতে পারবেন না। আর যাই হোক, বসকে খুশি রাখলে ছুটি নেওয়ার ক্ষেত্রে সমস্যা থাকে না। বছর শেষে ইনক্রিমেন্ট এবং প্রমোশন নিয়ে তো চিন্তাই থাকে না। তাই পানিতে নেমে কুমিরের সঙ্গে যুদ্ধ না করাই শ্রেয়। বরং জেনে নিন কী করে বসের মন জয় করবেন? কিছু টেকনিক অবলম্বন করলেই দেখবেন বস আপনার প্রশংসায় পঞ্চমুখ!


পোশাক
কথায় আছে, পহেলে দর্শনধারী, ফির গুণবিচারী। বসকে ইমপ্রেস করতে চাইলে প্রথমে নিজেকে ঠিক করতে হবে। মনে রাখবেন পোশাক আপনার সম্পর্কে একটা ধারণা দেয়। তাই অফিসে যা ইচ্ছে পরে চলে যাবেন না। ফর্মাল পোশাক পরার চেষ্টা করুন। পরিষ্কার ইস্ত্রি করা শার্ট, ফর্মাল প্যান্ট পরুন। শার্ট সমসময় ইন করে পরবেন। মহিলাদের ক্ষেত্রেও কুর্তি বা ফর্মাল পোশাক পরা উচিত।


অফিস পৌঁছান সঠিক সময়ে
কখনও বাস পাননি, কখনও রাস্তা জ্যাম বা বাড়িতে সমস্যা - অফিস দেরিতে পৌঁছে এই ধরনের বাহানা সবাই দিয়ে থাকেন। এটা আপনার সম্পর্কে খারাপ ইম্প্রেশন তৈরি করবে। তাই বাহানা ছেড়ে সঠিক সময়ে অফিস পৌঁছোন। সময়ানুবর্তিতা সবাই পছন্দ করে, সঠিক সময়ে অফিস গেলে বস বুঝতে পারবেন, যে কাজের প্রতি আপনার দায়িত্ববোধ আছে। অফিসে সঠিক সময়ে পৌঁছাবেন। তবে বেরোনোর সময় তাড়াহুড়ো করবেন না। কর্মীরা সময়ের বেশি থাকলে সব বস খুশি হন।

 

টেকনোলজি
টেকনোলজির যুগে আপনি পিছিয়ে পড়লে চলবে না। এরকম কর্মীদের বসেরা পছন্দ করেন না। তাই কম্পিউটার, ল্যাপটপ, মোবাইল, ইন্টারনেটের ব্যবহার সম্পর্কে জানা খুব দরকার। বস কোনও কাজ দিলে সেটা যত তাড়াতাড়ি প্রেজেন্ট করতে পারবেন, আপনারই ফায়দা হবে।

 

উদ্যোগী হন
বস কোনও প্রোজেক্ট, প্রেজেন্টেশনের কথা বললে এগিয়ে যান। ইন্টারেস্ট দেখান কাজের ওপর এবং নিখুঁতভাবে কাজটি শেষ করার চেষ্টা করুন। মনে রাখবেন, অফিসে কাজই আপনার পরিচয়। ভালো কর্মীর ইমেজ তৈরি করতে চাইলে দুর্দান্ত কাজ করতে হবে। কর্মঠ কর্মী সব বস পছন্দ করেন।


বসের কথা শুনুন
বসের গুড বুকে নাম তুলতে চাইলে বসের কথাকে অগ্রাধিকার দিন। তিনি যা বলছেন, যা চাইছেন সেটাকে সাপোর্ট করুন। বস যেভাবে কাজটা করতে চাইছেন, সেভাবেই করুন। দেখবেন তিনি খুশি হয়েছেন।


জানার ইচ্ছা
সবজান্তা কর্মী কোনও বস পছন্দ করেন না। বরং বস কিছু বোঝাতে চাইলে মন দিয়ে বুঝুন। নতুন কিছু জানা এবং বোঝার ক্ষেত্রে আগ্রহ দেখালে উপকৃত হবেন আপনিই। আপনার জানার ইচ্ছা বসের মনে ভালো ইম্প্রেশন ফেলবে।


সৎ হন
কর্মক্ষেত্রে সততা খুব দরকার। বসকে মিথ্যে কথা বলবেন না। দেখবেন কোনও ব্যাপারে বসের সঙ্গে ভুল বোঝাবুঝি যেন তৈরি না হয়।


অফিসে বাড়ির চিন্তা আনবেন না
অফিসে যতক্ষণ থাকবেন পুরো সময়টা অফিসকে দিন। অফিসে এসে বাড়ির লোকের সঙ্গে বারবার ফোনে কথা বলা, বাড়ির সমস্যা নিয়ে আলোচনা করা - এসব একদমই করবেন না। কোনও বসই এগুলো পছন্দ করেন না। আপনার ব্যক্তিগত জীবনে সমস্যা থাকতেই পারে। কিন্তু অফিস সেজন্য সাফার করবে না।

 

চটপটে হোন
ঘণ্টার পর ঘণ্টা কাজ নিয়ে বসে থাকা কোনও বসই পছন্দ করেন না। চটপটে নাহলে সাফল্য আসবে না। যেকোনও কাজ সময়মতো শেষ করার চেষ্টা করুন।

 

বসকে চিনুন
বস কেমন ধরনের মানুষ সেটা জানা খুব দরকার। সব মানুষের চরিত্র একরকম হয় না। বস কীরকম সেটা বুঝে গেলে তাকে সেভাবে ইমপ্রেস করতে আপনার সুবিধা হবে।

লাইফস্টাইল বিভাগের পাঠকপ্রিয় খবর