ঢাকা, ২২ জানুয়ারি শুক্রবার, ২০২১ || ৯ মাঘ ১৪২৭
good-food
৯৩

যত রোগ দূরে রাখে নয়নতারা

লাইফ টিভি 24

প্রকাশিত: ১৭:১৪ ৮ জানুয়ারি ২০২১  

অনিয়মিত পিরিয়ড, মাসে একাধিকবার পিরিয়ড, অধিক স্রাব, পিরিয়ডকালীন যন্ত্রণা ইত্যাদি থেকে মুক্তি পেতে নয়নতারা অপরিহার্য। এছাড়া লিউকোরিয়ার মতো অসুখ থেকে মিলবে মুক্তি। প্রতিদিন অফিসে যেখানে সমস্যার ভয় থাকে, সেখানে স্ট্রেস সহজে পিছু ছাড়বে না, সে জানা কথা। তাই বলি, চিন্তায়-চিন্তায় চুল না ছিড়ে একটু প্রকৃতির উপর ভরসা রাখুন। দেখবেন নিমেষে স্ট্রেস-অ্যাংজাইটি দূরে পালাবে। 


প্রকৃতি মানে কার উপর ভরসা রাখতে হবে? নয়নতারা ফুলের নাম শুনেছেন? না চিনলে গুগল সার্চ করুন। চিনে ফেলুন ঝটপট। কারণ, আয়ুর্বেদ শাস্ত্র মতে, এই ফুলের পাপড়ি দিয়ে তৈরি চা পান করলে দুশ্চিন্তা দূর হয়। কমে অ্যাংজাইটিও। রইল ঘরোয়া উপায়ে নয়নতারা গাছের দ্বারা রোগ প্রতিরোধের ম্যাজিক টিপস। আদি নিবাস মাদাগাস্কার হলেও এখন আমাদের দেশে খুবই সহজলভ্য এই ভেষজ উদ্ভিদ।


অনিয়মিত ঋতুস্রাব-লিউকোরিয়া দূর
বেশিরভাগ নারী দাবি করেন, তাদের পিরিয়ড সময়মতো হয় না। গর্ভাবস্থায় পিরিয়ড মিস স্বাভাবিক কারণ। কিন্তু আপনি অন্তঃসত্ত্বা নন, তবু এখনও আপনার পিরিয়ড দেরিতে হচ্ছে। অনিয়মিত পিরিয়ডস, মাসে একাধিকবার পিরিয়ড, অধিক স্রাব, পিরিয়েডকালীন যন্ত্রণা ইত্যাদি থেকে মুক্তি পেতে নয়নতারা অপরিহার্য। এছাড়া লিউকোরিয়ার মতো অসুখ থেকে মিলবে মুক্তি। উপরোক্ত যে কাঁথটির কথা বলা হয়েছে, সেটি মাসখানেক টানা খেলেই ফল পাওয়া যাবে।

 

ডায়াবেটিস দূরে থাকবে
ডায়াবেটিস থেকে মুক্তি পেতে নয়নতারা ফুলের গুরুত্ব অপরিসীম। এই গাছের ফুল ও মূল শুকনো হলে ১ গ্রাম আর কাঁচা হলে ২ গ্রাম একসঙ্গে করে মাঝারি মাপের ১ কাপ পানিতে সারারাত ভিজিয়ে রাখুন। সকালে পানিটা ছেঁকে ফুটিয়ে অর্ধেক কাপ করে নিন। এবার ওই পানি অর্ধেক করে সকাল ও রাতে পান করুন। দিন দশেক ব্যবহারের পর পুনরায় রক্ত পরীক্ষা করিয়ে নিয়ে ডাক্তারের পরামর্শ নিন। কয়েক দিনের মধ্যেই ঘন ঘন প্রস্রাব হওয়া এবং অন্যান্য উপসর্গ কমে গিয়ে নিয়ন্ত্রণে আসবে ডায়াবেটিস অসুখ।

 

ব্লাড প্রেসার নিয়ন্ত্রণে থাকবে
আট থেকে ১০টি নয়নতারা পাতা বেটে রস বের করে নিন। সকালে বা রাতে শুতে যাওয়ার আগে সেই রস নিয়মিত পান করুন। এতে ব্লাড প্রেসার নিয়ন্ত্রণে থাকবে। সুস্থ থাকবে হার্ট। ২ গ্রাম কাঁচা, আর যদি শুকনো হয় তাহলে ১ গ্রাম পরিমাণের নয়নতারা গাছের ফুল, মূল ও পাতা একসঙ্গে এক কাপ পানিতে ভিজিয়ে রাখুন। সকালে সেই পানিটা ছেঁকে ফুটিয়ে অর্ধেক করে নিন। এরপর ওই পানি দু'ভাগে ভাগ করে সকালে এবং রাতে ৮ থেকে ১০ দিন পান করলে কৃমির সমস্যা চলে যায়। এটি ছোটদের দেবেন না। সেক্ষেত্রে ডাক্তারের পরামর্শ নিন।

 

স্কিন সমস্যা, চর্মরোগ থেকে মুক্তি
নয়নতারার পাতা বেটে সেটার রস দিয়ে ত্বক পরিষ্কার করলে চুলকানি এবং ফাঙ্গাসজনিত সমস্যা থেকে দ্রুত মুক্তি পাওয়া যায়। পাতা সিদ্ধ করা পানি ব্যবহারে ত্বক হবে উজ্জ্বল ও তরতাজা। নয়নতারার পাতার সঙ্গে হলুদ মিশিয়ে বেটে ফেসপ্যাক তৈরি করে মুখে লাগালে ত্বকের জেল্লা বাড়বে রাতারাতি। এটি আসলে ব্রেনটনিক। নয়নতারার ফুল, মূল ও পাতা ২ গ্রাম পরিমাণে ১ কাপ পানিতে সিদ্ধ করে নিন। পানিটুকু ছেঁকে তা ফুটিয়ে আধা কাপ করে নিন। এবার সেই পানি অর্ধেক করে ভাগ করে সকাল-বিকাল টানা ১ মাস পান করলে স্মরণশক্তি বৃদ্ধি পাবে।

 

অ্যাংজাইটি, টেনশন, স্ট্রেস দূর
আজকাল বেশ কিছু রোগ মাথাচাড়া দিয়ে উঠেছে আমাদের ডেইলি লাইফে। রোজকার চাপ থেকে তৈরি হয় অ্যাংজাইটি, হাইপার টেনশন, ভুলে যাওয়ার সমস্যা, ঘুম না হওয়া ইত্যাদি। শরীরে যখন দানা বাঁধে এসব রোগ তখন বোঝা যায় না, পরে এ থেকে সৃষ্টি হয় মহাঅসুখ। একমুঠো শুকনো নয়নতারা ফুল ও পাতা পানিতে ফুটিয়ে নিয়ে চায়ের মতো করে তৈরি করুন। এরপর সেটা ছেঁকে এক চামচ মধু মিশিয়ে প্রতিদিন সকালে খালি পেটে এক কাপ করে খান। খুব তাড়াতাড়ি ফল পাবেন।