ঢাকা, ০৫ আগস্ট বুধবার, ২০২০ || ২১ শ্রাবণ ১৪২৭
good-food
৯০

সুপার ফুড তিসি বীজের যত গুণ

লাইফ টিভি 24

প্রকাশিত: ০৩:০১ ৩১ জুলাই ২০২০  

তিসি একধরনের উপকারী শস্য। স্বাস্থ্যের জন্য এর তেল বহু উপকারী। বর্তমানে খাদ্য হিসেবেও তিসির বীজ ব্যাপক জনপ্রিয়তা অর্জন করেছে। বিজ্ঞানীরা একে বলছেন সুপার ফুড (Super food)। কারণ এটি বিভিন্ন পুষ্টি উপাদানে ভরপুর। আসুন দেখে নিন, কি কি পুষ্টি উপাদান আছে তিসির বীজে।
১. প্রতি ১০০ গ্রাম বীজ থেকে ৫৩৪ কিলো ক্যালরি শক্তি বা এনার্জি পাওয়া যায়। অর্থাৎ প্রতি ১০ গ্রামে বা এক টেবিল চামচে পাওয়া প্রায় ৫৫ কিলো ক্যালরি এনার্জি।
২. প্রতি ১০ গ্রাম তিসি বীজে থাকে প্রায় ২ গ্রাম প্রোটিন, ৪ গ্রাম ফ্যাট (যার ৭৩% হলো PUFA বা পলি আন-স্যাচুরেটেড ফ্যাটি অ্যাসিড, ২৭% MUFA বা মনো আন-স্যাচুরেটেড ফ্যাটি অ্যাসিড, আর বাকিটা স্যাচুরেটেড ফ্যাট) এবং ৩ গ্রাম কার্বোহাইড্রেট (যার মধ্যে ২.৮ গ্রামই হলো তন্তু বা fibre)। সুতরাং বলা যেতে পারে, ৩ গ্রাম কার্বোহাইড্রেটের পুরোটাই fibre। মূলত এ কারণেই স্বাস্থ্য সচেতন মানুষদের কাছে এটি এতটা জনপ্রিয় হয়ে উঠেছে।
৩. এতে উপস্থিত মোট ফাইবারের ২০-৪০% হলো মিউসিলেজ জাতীয় সলিউবল ফাইবার; যা রক্তে শর্করার মাত্রা ও কোলেস্টেরলের মাত্রা ঠিক রাখতে সাহায্য করে। এছাড়া এটি আমাদের অন্ত্রে উপকারী ব্যাকটেরিয়ার মাত্রা ঠিক রাখে এবং আমাদের হজমশক্তি বাড়ায়।
৪. প্রচুর পরিমাণে ফাইবার থাকার কারণে এটি ওয়েট লস ডায়েটের ক্ষেত্রে খুব গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে।
৫. এ মিউসিলেজ জাতীয় ফাইবার পানির সঙ্গে মিশে খুব থকথকে জেলে পরিণত হয়; যা তিসি বীজে উপস্থিত ৬০%-৮০% ইনসলিউবল ফাইবারের সঙ্গে মিশে ন্যাচারাল ল্যাক্সেটিভের কাজ করে এবং কন্সটিপেশনের সমস্যা দূর করে।
৬. এর ১৮% প্রোটিন সয়াবিনের প্রোটিনের সমতুল্য। এতে আর্জিনিন ও গ্লটামিনের মতো অ্যামাইনো অ্যাসিড প্রচুর পরিমাণে রয়েছে; যা আমাদের হার্ট ভালো রাখতে এবং রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়াতে সাহায্য করে।
৭. এ বীজে প্রচুর পরিমাণে রয়েছে আলফা লিনলেনিক অ্যাসিড; যা বিভিন্ন ক্রনিক রোগ সারাতে সক্ষম।
৮. এতে উপস্থিত লিগন্যান (এক ধরনের পলিফেনল) antioxidant হিসেবে কাজ করে; যা ব্লাড প্রেশার, বিভিন্ন ধরনের কান্সার (প্রস্টেট ক্যান্সার, ইউটেরাইন ক্যান্সার, স্তনের ক্যান্সার) প্রতিরোধে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে। এছাড়া এটি স্ট্রেসও কমায়।
৯. এছাড়া এতে রয়েছে ভিটামিন বি১, ম্যাগনেসিয়াম, কপার, ফসফরাস প্রভৃতি গুরুত্বপূর্ণ পুষ্টি উপাদান। শরীরের জন্য যা অত্যন্ত উপকারী।