ঢাকা, ২১ সেপ্টেম্বর মঙ্গলবার, ২০২১ || ৬ আশ্বিন ১৪২৮
good-food
৯৩

করোনার পর শরীর গঠনে যা জরুরি

লাইফ টিভি 24

প্রকাশিত: ১৪:৩৩ ৬ সেপ্টেম্বর ২০২১  

বর্তমান সময়ের সবচেয়ে আলোচিত এবং ভীতিকর শব্দ হচ্ছে কোভিড-১৯। এ পর্যন্ত এই ভাইরাসে বিশ্বব্যাপী আক্রান্ত হয়েছে ২২ কোটিরও বেশি মানুষ আর মৃত্যুবরণ করেছে ৪৫ লাখেরও বেশি। বাংলাদেশেও এ রোগে আক্রান্তের সংখ্যা কিছু কম নয়।

 

যারা এ রোগে আক্রান্ত হয়ে মৃত্যু দুয়ার থেকে ফিরে আসছেন তাদের ক্ষেত্রে বেশ কিছু স্বাস্থ্যগত পরিবর্তন দেখা যাচ্ছে, যার সাথে রয়েছে খাদ্য ও পুষ্টির বিশেষ সম্পর্ক। যেমন- মাল্টি অরগান ফেইলিউরে কি খেতে হবে কতটুকু খেতে হবে তা জানা খুব জরুরি। আবার স্টেরয়েডের ব্যবহারের ফলে রক্তে চিনির পরিমান বেড়ে যাচ্ছে তাই তা নিয়ন্ত্রণ করতে পুষ্টির ভূমিকা রয়েছে।

 

এজন্যই চীনা চিকিৎসকরা সঠিক খাদ্যগ্রহণ ও পুষ্টি নিশ্চিতকরণকে দ্বিতীয় অবস্থানে রেখেছেন। করোনা ভাইরাসসহ যেকোনো জীবাণু আমাদের শরীরে প্রবেশ করলে তার বিরুদ্ধে প্রতিরোধ করতে আমাদের প্রয়োজন অতিরিক্ত খাদ্য শক্তি, প্রোটিন, ভিটামিন ও মিনারেলস।

 

কোভিড ১৯- এর কারণে আমাদের হার্ট, লাংস, লিভার, কিডনী এমনকি মস্তিষ্কও ও ক্ষতিগ্রস্হ হতে পারে। হতে পারে পেশীর দুর্বলতা। শ্বাসকষ্টজনিত কারণে রোগীর খাদ্যগ্রহণ ব্যাহত হয় ফলে সৃষ্টি হয় অপুষ্টিজনিত দুর্বলতা। ৫০% রোগীর ক্ষেত্রে পেশী ক্ষয় হয় ফলে সুস্থ হতে আরো দীর্ঘ সময় লেগে যায়।

 

দেহের catabolism হয় অন্যদিকে ইনফেকশনের কারণে স্বাদ ও খাবার গ্রহণের ইচ্ছা কমে যায় ফলে রোগীর দেহ শীর্ণকায় হয়ে পড়ে। করোনাক্রান্ত রোগীরা করোনা পরবর্তী সময়ে যাতে অপুষ্টিতে না ভোগেন তাই কিছু বিষয় মেনে চলা জরুরি।

√ উচ্চমাত্রায় প্রথম শ্রেনীর প্রোটিন খেতে হবে, যাতে পেশীর ক্ষয় কমানো যায় পাশাপাশি রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতাও বৃদ্ধি পায়।

 

√ মৌসুমি ফল ও সবজি থেকে পর্যাপ্ত ভিটামিন ও মিনারেলস গ্রহণ নিশ্চিত করতে হবে। যাতে দেহে সৃষ্টি অবসাদ ও ইনফ্লামেশন কমে।

√ এন্টিঅক্সিডেন্ট জাতীয় খাবার যেমন- তিসি, কালোজিরা, মেথি খাওয়া যেতে পারে শরীরের অবসাদ দূর করতে।

 

√ এ সময় খাবারে রুচি থাকে না বললেই চলে তাই খিচুরি, পায়েস, পাউরুটি, দুধ, আলু, বাদাম, খেজুর ও ড্রাইড ফ্রুটস জাতীয় খাবার খেলে সহজে শক্তি পাওয়া যায় এবং ইমিউনিটিও বুস্ট হয়।

সবচেয়ে বড় কথা কোভিড পরবর্তী অবস্থা থেকে উত্তরণের জন্য বারে বারে অল্প অল্প করে পুষ্টিকর খাদ্যগ্রহণের কোনো বিকল্প নেই।

করোনাভাইরাস বিভাগের পাঠকপ্রিয় খবর