ঢাকা, ২৩ মে সোমবার, ২০২২ || ৮ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৯
good-food
৩২

শক্তি বাড়িয়েছে অশনি, উড়িষ্যা-পশ্চিমবঙ্গে হাই অ্যালার্ট জারি

লাইফ টিভি 24

প্রকাশিত: ০০:৪৮ ৮ মে ২০২২  

আবহাওয়ার পূর্বাভাস অনুযায়ী, গতকাল শুক্রবার (৭ মে) বঙ্গোপসাগরে যে নিম্নচাপ সৃষ্টি হয়েছিল, সেটি বর্তমানে দক্ষিণ-পূর্ব বঙ্গোপসাগর লাগোয়া আন্দামান সাগরে বিরাজ করছে। সময় বাড়ার সঙ্গে সঙ্গে নিম্নচাপটি শক্তি আগের চেয়ে কিছুটা বাড়িয়েছে।

 

আবহাওয়া দপ্তর বলছে, আগামী ৬ ঘণ্টায় আরও শক্তি বাড়িয়ে গভীর নিম্নচাপে পরিণত হবে। এরপর ধীরে ধীরে আরও বল সঞ্চয় করে ঘূর্ণিঝড়ে রূপান্তরিত হবে। এরপর উত্তর-পশ্চিম অভিমুখে এগোতে থাকবে।

 

১০ মে সন্ধ্যা পর্যন্ত উত্তর-পশ্চিম দিকে গিয়ে খানিকটা বাঁক নিয়ে ভারতের অন্ধ্রপ্রদেশ -উড়িষ্যা উপকূলের কাছাকাছি অবস্থান করবে।  ওই দিন সন্ধ্যায় আবার এই ঘূর্ণিঝড় নিজের অভিমুখ পরিবর্তন করবে এবং উড়িষ্যা - বাংলা উপকূলের দিকে ধেয়ে যাবে। পরবর্তীকালে এর গতিপথ আবারও পরিবর্তন হতে পারে। সেক্ষেত্রে ঝড়ের সরাসরি অভিমুখ হতে পারে পশ্চিমবঙ্গ ও বাংলাদেশ উপকূল।

 

ঘূর্ণিঝড় মোকাবেলায় ইতোমধ্যে অন্ধ্রপ্রদেশ সরকার উপকূলীয় এলাকায় বিশেষ সর্তকতা জারি করেছে। উড়িষ্যা ও পশ্চিমবঙ্গ সরকার হাই অ্যালার্ট জারির পাশাপাশি উপকূলীয় এলাকায় মানুষকে সতর্ক থাকতে শুরু করেছে মাইকিং।

 

প্রশাসনিক স্তরে নিজেদের প্রস্তুতি চূড়ান্ত করতে এরই মধ্যে বৈঠক করেছে তিন রাজ্য সরকার। উপকূলীয় এলাকায় শুকনো খাবার, ত্রিপল, পর্যাপ্ত ওষুধ মজুদ রাখা হয়েছে। আগামী ১৩ মে পর্যন্ত বাতিল করা হয়েছে ত্রাণ ও বিপর্যয় মোকাবিলা দপ্তরের কর্মীদের সবধরনের ছুটি।

 

কলকাতা আবহাওয়া দপ্তরের আবহাওয়াবিদ সৌরিশ বন্দ্যোপাধ্যায় বলছেন,  পশ্চিমবঙ্গের মৎস্যজীবীদের ১০ মে থেকে সমুদ্রে যেতে বারণ করা হয়েছে। ১১  থেকে ১৩ মে পশ্চিমবঙ্গে বৃষ্টির পরিমাণ বাড়বে।  বিশেষ করে উপকূলীয় জেলাগুলোতে ভারী বৃষ্টির সম্ভাবনা থাকছে। এছাড়া  আগামী ২৪ ঘণ্টায় বিক্ষিপ্তভাবে কালবৈশাখীর সম্ভাবনা রয়েছে দক্ষিণবঙ্গের ১৪ জেলায়।

 

তিনি বলেন, ১০ মে থেকে দক্ষিণবঙ্গে আরও বাড়বে ঝড়-বৃষ্টি। বৃষ্টির প্রভাবে আগামী ৪৮ ঘণ্টা পর থেকে খানিকটা কমবে তাপমাত্রা। উত্তরবঙ্গের ক্ষেত্রে আগামী ৪৮ ঘণ্টা উত্তরের ৫ জেলায় হালকা থেকে মাঝারি বৃষ্টির সম্ভাবনা রয়েছে।