ঢাকা, ২৯ জানুয়ারি বুধবার, ২০২০ || ১৫ মাঘ ১৪২৬
LifeTv24 :: লাইফ টিভি 24
৯৬

রাজশাহী জেলা আ.লীগে চমক: নয়া সভাপতি মেরাজ, সম্পাদক দারা

প্রকাশিত: ২৩:৫৪ ৮ ডিসেম্বর ২০১৯  


রাজশাহী জেলা আওয়ামী লীগের নেতৃত্বে শীর্ষ দুই পদে চমকই এলো। জেলা আওয়ামী লীগের নতুন সভাপতি হলেন রাজশাহী-৩ আসনের সাবেক সংসদ সদস্য মেরাজ উদ্দিন মোল্লা। সাধারণ সম্পাদক হয়েছেন রাজশাহী-৫ আসনের সাবেক সংসদ সদস্য আবদুল ওয়াদুদ দারা।

আজ রোববার বিকেলে জেলা শিল্পকলা একাডেমি মিলনায়তনে কাউন্সিলে আওয়ামী লীগের সম্পাদকমণ্ডলীর সদস্য মোহাম্মদ নাসিম ওই দুজনের নাম ঘোষণা করেন।

যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক হিসেবে অ্যাডভোকেট লায়েব উদ্দিন লাবলু ও রাজশাহী-৩ আসনের সংসদ সদস্য আয়েন উদ্দিনের নাম ঘোষণা করা হয়েছে।

এ সম্মেলনের মধ্য দিয়ে অবশেষে বাদ পড়লেন বর্তমান সভাপতি ওমর ফারুক চৌধুরী ও সাধারণ সম্পাদক আসাদুজ্জামান আসাদ।

রাজশাহী-১ আসনের সংসদ সদস্য ওমর ফারুক চৌধুরী এবারও সভাপতি পদ প্রত্যাশী ছিলেন।  আসাদুজ্জামান আসাদও একই পদপ্রত্যাশী ছিলেন। তবে শেষ পর্যন্ত সবাইকে চমকে দিয়ে এই দুজনের বাইরে নতুন মুখ ঘোষণা করল দলীয় হাইকমান্ড। এর মধ্যে মেরাজ উদ্দিন মোল্লার দুই মেয়াদ আগের জেলা কমিটির সভাপতির দায়িত্বে ছিলেন।

রোববার সকালে পতাকা উত্তোলনের মধ্য দিয়ে রাজশাহী জেলা আওয়ামী লীগের সম্মেলন শুরু হয়। বেলা সাড়ে ১১টার দিকে জাতীয় ও দলীয় পতাকা উত্তোলন করেন আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় নেতারা। শুরুতেই জাতীয় সংগীত পরিবেশন করা হয়। পরে বেলুন-ফেস্টুন ও পায়রা উড়িয়ে রাজশাহী জেলা আওয়ামী লীগের ত্রি-বার্ষিক সম্মেলনের উদ্বোধন ঘোষণা করেন আওয়ামী লীগের প্রেসিডিয়াম সদস্য মোহাম্মদ নাসিম।

রাজশাহী বিভাগীয় মহিলা ক্রীড়া কমপ্লেক্সে জেলা আওয়ামী লীগের ত্রি-বার্ষিক এই সম্মেলন চলে দুপুর পর্যন্ত। মঞ্চে আওয়ামী লীগের স্থানীয় ও কেন্দ্রীয় নেতারা বক্তব্য দেন। পরে বিকেলে রাজশাহী শিল্পকলা একাডেমি মিলনায়তনে শুরু হয় দ্বিতীয় অধিবেশন।

সম্মেলনে প্রধান বক্তা ছিলেন আওয়ামী লীগের যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক জাহাঙ্গীর কবির নানক। সম্মেলনে বিশেষ অতিথি ছিলেন আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক খালিদ মাহমুদ চৌধুরী, স্বাস্থ্য ও জনসংখ্যা বিষয়ক সম্পাদক ডা. রোকেয়া সুলতানা মেরিনা জাহান, রাজশাহী সিটি মেয়র এএইচএম খায়রুজ্জামান লিটন, আওয়ামী লীগ সম্পাদকমণ্ডলীর উপদেষ্টা অধ্যাপক ড. আবদুল খালেক, অধ্যাপক ড. সাইদুর রহমান খান।

বক্তা হিসেবে ছিলেন, পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী শাহরিয়ার আলম, রাজশাহী-৪ আসনের সংসদ সদস্য ইঞ্জিনিয়ার এনামুল হক, রাজশাহী-৩ আসনের সংসদ সদস্য আয়েন উদ্দিন ও রাজশাহীর সংরক্ষিত আসনের সংসদ সদস্য আনজুম আদিবা মিতা।

এর আগে রাজশাহী জেলা আওয়ামী লীগের সর্বশেষ সম্মেলন হয়েছিল ২০১৪ সালের ৬ ডিসেম্বর। দীর্ঘ পাঁচ বছর পর রোববার আবারও জেলার সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়। টান টান উত্তেজনা থাকায় গেলবার কেবল সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদকের নাম ঘোষণা করেই চলে যান কেন্দ্রীয় নেতারা। তৃণমূলের নেতারা সরাসরি ভোটে কাউন্সিল অনুষ্ঠিত হওয়ার দাবি জানিয়ে আসছিলেন। কিন্তু ভোট না দিয়ে শেষ পর্যন্ত এবারও ঘোষণা করা হলো জেলা কমিটির এই শীর্ষ দুই নেতার নাম। সম্মেলনকে ঘিরে কিছু দিন থেকে অনেক জল্পনা-কল্পনা ডালপালা মেললেও শেষ পর্যন্ত সবকিছুই হলো চমকের মতো। এবারের সম্মেলনে রাজশাহী জেলা আওয়ামী লীগের পক্ষ থেকে ৩৬০ জন কাউন্সিলর নির্ধারণ করা হয়েছিল।


এই বিভাগের আরো খবর