ঢাকা, ১২ আগস্ট বুধবার, ২০২০ || ২৮ শ্রাবণ ১৪২৭
good-food
২৬

ঈদের বিরতির পর ফের অনুশীলন শুরু করবেন ক্রিকেটাররা

লাইফ টিভি 24

প্রকাশিত: ০১:৩৪ ২৯ জুলাই ২০২০  

করোনাভাইরাসের কারণে কড়া প্রোটোকলের মাঝে দেশের ক্রিকেটারদের জন্য বিভিন্ন ভেন্যুতে অনুশীলনের ব্যবস্থা করেছিল বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড (বিসিবি)। প্রথম পর্যায়ের অনুশীলন শেষে মঙ্গলবার থেকে বিরতিতে যাচ্ছেন ক্রিকেটাররা। আসন্ন ঈদুল আযহার পর আবারো নিজেদের প্রস্তুতি শুরু করবেন তারা।

প্রাথমিকভাবে ৮ দিনের ব্যক্তিগত অনুশীলনের ব্যবস্থা ছিল। তবে খেলোয়াড়দের অনুরোধে অনুশীলনের জন্য ২ দিন বাড়ানো হয়। তাদের দাবির প্রেক্ষিতে শুধু মিরপুর শেরেবাংলা জাতীয় ক্রিকেট স্টেডিয়ামে অনুশীলনের সময়সীমা বাড়ানো হয়।

কোরবানির বিরতির পর আবারো নিজেদের ব্যক্তিগত অনুশীলন শুরু করবেন ক্রিকেটাররা। পরের পর্বে আরও কিছু ক্রিকেটারের যোগ দেয়ার কথা রয়েছে বলে জানিয়েছেন বোর্ডের এক কর্মকর্তা।

যদি অনুশীলনের জন্য খেলোয়াড় সংখ্যা বাড়ে, তবে গ্রুপ ট্রেনিংয়ের ব্যবস্থা করতে পারে বিসিবি। প্রতিটি গ্রুপে প্রাথমিকভাবে অল্প সংখ্যক খেলোয়াড় থাকতে পারে।
একই সঙ্গে অক্টোবরে শ্রীলংকার বিপক্ষে ৩ ম্যাচ টেস্ট সিরিজ সামনে রেখে কন্ডিশনিং ক্যাম্প শুরু করার চিন্তা করছে বিসিবি। ঈদের বিরতির পর আগামী ৮ আগস্ট থেকে শুরু হবে ক্রিকেটারদের অনুশীলন।

বিসিবির নেয়া কড়া প্রোটোকলের মাঝে প্রথম পর্বে দেশের সর্বমোট ১৪ জন ক্রিকেটার বিভিন্ন ভেন্যুতে অনুশীলন করেন। স্টেডিয়ামে অনুশীলন করার জন্য নিজেরাই আগ্রহ প্রকাশ করেন ক্রিকেটাররা। 
প্রাথমিকভাবে ১৯ জুলাই থেকে ৯ জন খেলোয়াড়কে নিয়ে অনুশীলনের ব্যবস্থা করে বিসিবি। ৪টি ভেন্যুতে ব্যক্তিগত অনুশীলনের ব্যবস্থা করে তারা। ভেন্যুগুলো হলো- ঢাকা, সিলেট, খুলনা ও চট্টগ্রাম।

পরবর্তীতে নাজমুল হোসেন শান্তর অনুশীলনের জন্য রাজশাহীকে ভেন্যু হিসেবে যোগ করে বিসিবি। এর আগে মুশফিকুর রহিম, মোহাম্মদ মিঠুন, শফিউল ইসলাম, ইমরুল কায়েস, তাসকিন আহমেদ, মেহেদি হাসান রানা শেরেবাংলায় অনুশীলন শুরু করেন। 
পরবর্তীতে সেখানে যোগ দেন এনামুল হক বিজয়।

অলরাউন্ডার মেহেদি হাসান মিরাজ, মেহেদি হাসান ও উইকেটরক্ষক ব্যাটসম্যান নুরুল হাসান সোহান অনুশীলন করেন খুলনার শেখ আবু নাসের স্টেডিয়ামে। সিলেট আন্তর্জাতিক ক্রিকেট স্টেডিয়ামে অনুশীলন করেন পেসার সৈয়দ খালেদ আহমেদ ও স্পিনার নাসুম আহমেদ।

চট্টগ্রাম জহুর আহমেদ চৌধুরী স্টেডিয়ামে অনুশীলন করছেন অফস্পিনার নাইম হাসান। রোববার পর্যন্ত খেলোয়াড়দের অনুশীলনে নির্দেশিত সুরক্ষা সর্ম্পকিত সমস্যাগুলো পর্যবেক্ষণ করে বোর্ড। এসময় খেলোয়াড়দের সুরক্ষার বিষয়গুলোও পর্যবেক্ষণ করা হয়। 
পরে মিরপুরে আরও ২ দিন অনুশীলনের সময়সীমা বাড়ানো হয়। স্বাস্থ্য সংক্রান্ত সমস্যার কারণে শুরুতেই খেলোয়াড়দের অনুশীলনে অনিচ্ছুক ছিল বিসিবি। যদিও বিশ্বের অনেক দেশই নিজেদের অনুশীলন শুরু করেছে।

তবে ৩৫ জন খেলোয়াড়ের সঙ্গে ভার্চুয়াল বৈঠকের পর, বোর্ড ব্যক্তিগত অনুশীলন শুরুর সিদ্বান্ত নেয়। যা ফিটনেস অনুশীলনের উপর নির্ভর করে। বোলাররা বোলিং অনুশীলনের কোনও সুযোগ পাননি। তবে তারা জগিং ও জিম করে সন্তুষ্ট ছিলেন। 
ব্যাটসম্যানরা ব্যাটিং করার সুযোগ পেয়েছিলেন, সেটিও আবার বোলিং মেশিনের মাধ্যমে।

খেলাধুলা বিভাগের পাঠকপ্রিয় খবর