ঢাকা, ১০ ডিসেম্বর মঙ্গলবার, ২০১৯ || ২৬ অগ্রাহায়ণ ১৪২৬
LifeTv24 :: লাইফ টিভি 24
১২৪

কে এম বসির স্কুল প্রাঙ্গণে হলো প্ল্যান্ট ফর প্ল্যানেট উৎসব

প্রকাশিত: ২৩:২৮ ২৯ নভেম্বর ২০১৯  


পুরনো ঢাকার কে এম বসির স্কুল প্রাঙ্গণে আনন্দ উৎসবে হয়ে গেল ৪৫ তম Sailor-Green Savers Plant for Planet। তিন ঘণ্টাব্যাপী এ আয়োজনে অংশ নেন স্বনামধন্য এই প্রতিষ্ঠানের ৫০০ জন শিক্ষার্থী, শিক্ষক ও স্টাফ। এ আয়োজনে শিক্ষার্থীদের অংশগ্রহণে ও অংশিদারিত্তে গড়ে দেয়া হয় একটি নান্দনিক বিদ্যালয় বাগান। 
গ্রিন সেভার্স ও সেইলর গেল ২৮ নভেম্বর সবুজের এ অনুষ্ঠানটির আয়োজন করে। 
২০১৪ সাল থেকে চলমান এই আয়োজনটি এর আগে ঢাকার আরো ৪৪ টি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে সফলভাবে সম্পন্ন করা হয়েছে এবং এ কার্যক্রমের আওতায় বিদ্যালয়সমুহে প্রায় ২৪৪০ টি গাছের চারা রোপন করা হয়েছে পাশাপাশি ২৩০০০ শিক্ষার্থী ও ১৬০০ শিক্ষক, স্কুল স্টাফ এবং অভিভাবকদের সম্পৃক্ত করা হয়েছে।
কোমলমতি শিক্ষার্থীদের সবুজমনস্ক করাই এই আয়োজনের মূল উদ্দেশ্য। শিশুদের পরিবেশসম্মত আচরণ গুলোর সাথে অভ্যস্ত করে তোলা, পরিবেশের প্রতি দায়িত্বশীল করে তোলা, পরিবেশসম্মত কাজে তাদের অংশগ্রহণ ও অংশিদারিত্ত বাড়ানো এবং প্রতিনিধিত্ব তৈরি করার লক্ষে বিগত চার বছর যাবত ঢাকার স্বনামধন্য সব শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান সমূহে এই অনুষ্ঠানটি আয়োজন করে আসছে পরিবেশবাদী সংগঠন গ্রিন সেভার্স ও জনপ্রিয় পোশাক প্রস্তুতকারী ব্র্যন্ড সেইলর।
প্রতিটি অনুষ্ঠানে সেইলর তাদের ফ্যাক্টরির খালি ড্রামগুলো গাছ লাগানোর জন্য স্কুলের বাচ্চাদের উপহার দেয়। প্রথমে গাছ লাগানোর ড্রাম গুলোকে ক্যানভাস বানিয়ে শিক্ষার্থীরা তুলির আচরে ড্রামের গায়ে ফুটিয়ে তোলে প্রকৃতির আলপনা। পরবর্তীতে আলপনা আঁকা ড্রামগুলোতে শিক্ষার্থীরা নিজ হাতে গাছ লাগিয়ে বিদ্যালয়ের ছাদ ও প্রাঙ্গনে গড়ে তোলে নান্দনিক বাগান। প্রতিটি ড্রামের গায়ে লেখা থাকে শিক্ষার্থীদের নাম, শ্রেণী এবং ক্লাস রোল যাতে গাছটির প্রতি তার এক ধরনের অংশিদারিত্ত তৈরি হয় এবং ফলস্রুতিতে শিক্ষার্থীরা নিজ নিজ গাছগুলো যত্ন ও পরিচর্যা করতেও উৎসাহী হয়ে উঠে। পাশাপাশি এ আয়োজনে শিক্ষার্থীদের বৃক্ষ রোপণ ও এর পরিচর্যা সম্পর্কিত বিভিন্ন পদ্ধতি ও নিয়মকানুন হাতে কলমে শেখানো হয়। এছাড়াও বিদ্যালয়ে বাগানটি করে দেয়ার পর তা রক্ষনাবেক্ষনের দায়িত্বও গ্রহন করে সেইলর ও গ্রিন সেভার্স। পরবর্তীতে আরো নতুন চারা প্রদান, সিজনাল চারা পরিবর্তন সহ উগাছের রোগবালাই দমনে প্রতি মাসেই ফ্রি বাগানসেবা প্রদান করে এই দুই প্রতিষ্ঠান।