ঢাকা, ১০ এপ্রিল শুক্রবার, ২০২০ || ২৬ চৈত্র ১৪২৬
good-food
৫৩

জিম্বাবুয়েকে হারিয়ে ইতিহাস গড়ল বাংলাদেশ

লাইফ টিভি 24

প্রকাশিত: ২১:১৩ ১ মার্চ ২০২০  

জিম্বাবুয়েকে ১৬৯ রানের বিশাল ব্যবধানে হারিয়েছে বাংলাদেশ। ওয়ানডেতে রানের ব্যবধানে এটিই টাইগারদের সবচেয়ে বড় জয়। এর আগে ২০১৮ সালের শুরুতে ঘরের মাঠে  শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে ১৬৩ রানে জেতেন তারা। সেটিই ছিল এতদিন রানের ব্যবধানে লাল-সবুজ জার্সিধারীদের সবচেয়ে বড় জয়।
রোববার সিলেট আন্তর্জাতিক ক্রিকেট স্টেডিয়ামে টস জিতে প্রথমে ব্যাট করে লিটন দাসের অনবদ্য সেঞ্চুরি এবং মোহাম্মদ মিঠুনের ফিফটিতে ৬ উইকেটে ৩২১ রানের পাহাড় গড়ে বাংলাদেশ। বিশাল টার্গেট তাড়া করতে নেমে মোহাম্মদ সাইফউদ্দিনের গতির তাণ্ডবে ৩৯.১ ওভারে ১৫২ রানে অলআউট হয় জিম্বাবুয়ে। দুর্দান্ত এ জয়ে তিন ম্যাচ ওয়ানডে সিরিজে ১-০ ব্যবধানে এগিয়ে গেল টাইগাররা।
এ ম্যাচ দিয়ে দীর্ঘ ৭ মাস পর আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে ফেরেন মাশরাফি বিন মুর্তজা। প্রত্যাবর্তনেই টসভাগ্যে জেতেন তিনি। তা জিতে প্রথমে ব্যাটিংয়ের সিদ্ধান্ত নেন তিনি। শুরুটা দারুণ করেন দুই ওপেনার। তামিম ইকবালের সঙ্গে ৬০ রানের জুটি গড়েন লিটন দাস। ৪৩ বল খেলে ২৩ রান করে আউট হন তামিম। এরপর নাজমুল হোসেন শান্তকে নিয়ে ৮০ রানের জুটি গড়েন লিটন। 
৩৮ বলে ২৯ রান করে শান্ত আউট হলেও উইকেটে অবিচল ছিলেন ওপেনার লিটন। চারে নামা মুশফিকুর রহিমের সঙ্গে গড়েন ৪২ রানের জুটি। ২৬ বলে ১৯ রান করে আউট হয়ে ফেরেন মুশি।
পথিমধ্যে স্ট্রোকের ফুলঝুরি ছুটিয়ে সেঞ্চুরি তুলে নেন লিটন। তবে এর পরই রিটায়ার্ড হার্ট হয়ে সাজঘরে ফেরত আসেন তিনি। এসময় তার রান ছিল ১০৫ বলে ১২৬। এটিই তার ক্যারিয়ার সেরা ইনিংস। সেই পথে ১৩ চার ও ২ ছক্কা মারেন উইকেটকিপার-ব্যাটসম্যান। ওয়ানডেতে তার আগের সেরা ভারতের বিপক্ষে ১২১, এশিয়া কাপে।
পরে মোহাম্মদ মিঠুনকে নিয়ে রীতিমতো তাণ্ডব চালান মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ। চতুর্থ উইকেটে তারা গড়েন ৬৮ রানের জুটি। ২৮ বলে ৩২ রান করে এলবিডব্লিউ হয়ে ফেরেন মাহমুদউল্লাহ। ৪১ বলে ৫ চার ও ১ ছক্কায় ফিফটি তুলে নেয়ার পর সেই ক্রিস এমপোফুর বলে এলবিডব্লিউ হন মিঠুন। ৪ বলে ৭ রানে ফেরেন মেহেদী হাসান মিরাজ। 
তবে রান তোলার গতিতে ভাটা পড়েনি। অন্তিমলগ্নে ব্যাটকে তলোয়ার বানিয়ে জিম্বাবুয়ে বোলারদের কচুকাটা করেন সাইফউদ্দিন। মাত্র ১৫ বলে ৩ ছক্কায় ২৮ রানের হার না মানা ক্যামিও খেলেন তিনি। 
শেষ অবধি তার ব্যাটে ভর করে ৬ উইকেটে ৩২১ রানের পাহাড় গড়ে বাংলাদেশ। এটিই জিম্বাবুইয়ানদের বিপক্ষে টাইগারদের সর্বোচ্চ দলীয় রান। আর সবমিলিয়ে অষ্টম। সফরকারীদের হয়ে ক্রিস এমপফু নেন ২ উইকেট।
পাহাড়সম লক্ষ্যে ব্যাট করতে নেমে নিয়মিত ব্যবধানে উইকেট হারিয়ে চরম বিপর্যয়ে পড়ে জিম্বাবুয়ে। শুরুতেই জোড়া আঘাত হানেন সাইফউদ্দিন। তুলে নেন ওপেনার কামুনহুকাম্বে এবং ওয়ানডাউনে নামা চাকাভাকে। আরেক ওপেনার চামু চিবাবাকে তুলে নিয়ে নিজের উইকেট খরা কাটান অধিনায়ক মাশরাফি। শুরুর এ ধাক্কা আর কাটিয়ে উঠতে পারেনি জিম্বাবুয়ে।
ওয়েসলি মাধেভেরের ৩৫ ছাড়া আর কেউ উল্লেখযোগ্য স্কোরই করতে পারেননি। শেষ পর্যন্ত ১৬৯ রানের বিশাল পরাজয় নিয়েই মাঠ ছাড়ে সফরকারীরা। বল হাতে মাত্র ২২ রান দিয়ে ৩ উইকেট তুলে নেন সাইফ। আর ২ উইকেট শিকার করেন মাশরাফি।

খেলাধুলা বিভাগের পাঠকপ্রিয় খবর