ঢাকা, ২০ এপ্রিল মঙ্গলবার, ২০২১ || ৭ বৈশাখ ১৪২৮
good-food
৮৮

প্রীতি জিনতা সম্পর্কে না জানা কথা

লাইফ টিভি 24

প্রকাশিত: ০১:১৬ ১০ ফেব্রুয়ারি ২০২১  

প্রীতি জিনতা ১৯৭৫ সালের ৩১শে জানুয়ারি হিমাচল প্রদেশের শিমলা জেলায় এক রঢ়ু পরিবারে জন্মগ্রহণ করেন।তার পিতা দুর্গানন্দ জিনতা ছিলেন ভারতীয় সেনাবাহিনীর কর্মকর্তা। 

 

প্রীতির যখন ১৩ বছর বয়স, তখন তিনি এক গাড়ি দুর্ঘটনায় মারা যান। এই দুর্ঘটনাকালে তার মাতা নিলপ্রভাও সেই গাড়িতে ছিলেন। 

 

তিনি গুরুতর আঘাতপ্রাপ্ত হন এবং টানা দুই বছর শয্যাশায়ী ছিলেন। জিনতা এই দুর্ঘটনা ও তার পিতার মৃত্যুকে খুবই বেদনাদায়ক বলে উল্লেখ করেন, যা তার জীবনের মোড় ঘুরিয়ে দেয় ও তাকে দ্রুত পরিপক্ক হতে বাধ্য করে।

 

 তার দুই ভাই রয়েছে। তার বড় ভাই দীপঙ্কর তার এক বছরের বড় এবং ছোট ভাই মনীষ তার এক বছরের ছোট। দীপঙ্কর ভারতীয় সেনাবাহিনীর কমিশনপ্রাপ্ত কর্মকর্তা, অন্যদিকে মনীষ ক্যালিফোর্নিয়ায় বসবাস করেন।

 

জিনতা শৈশবে টমবয়দের মত দেখতে ছিলেন। তার চুল ছোট করে ছাঁটা থাকত। তিনি শিমলার কনভেন্ট অব জিসাস অ্যান্ড ম্যারি বোর্ডিং স্কুলে পড়াশুনা করেন। জিনতা বলেন তিনি স্কুলে মেধাবী শিক্ষার্থী ছিলেন এবং ভালো ফলাফল অর্জন করতেন।

 

তিনি খেলাধুলার প্রতি আগ্রহী ছিলেন, বিশেষ করে বাস্কেটবল খেলার প্রতি। তার পিতা তাকে গলফ খেলা শেখানোর চেষ্টা করেছিলেন, কিন্তু জিনতা তা শিখতে পারেন নি।

 

স্কুলে পড়াকালীন তিনি উইলিয়াম শেকসপিয়র ও কবিতা পছন্দ করতেন। এরই ধারাবাহিকতায় স্কুল পাস করার পর তিনি শিমলার সেন্ট বেডেস কলেজে ইংরেজি বিভাগে ভর্তি হন।

 

সেখান থেকে স্নাতক ডিগ্রি অর্জন করে তিনি মনোবিজ্ঞান বিষয়ে স্নাতক প্রোগ্রাম শুরু করেন।তিনি অপরাধ মনোবিজ্ঞান বিষয়ে স্নাকতোত্তর ডিগ্রি অর্জন করে মডেলিং শুরু করেন। 

 

জিনতার প্রথম টেলিভিশন বিজ্ঞাপন ছিল পার্ক চকলেটের বিজ্ঞাপন। ১৯৯৬ সালে এক বন্ধুর জন্মদিনের পার্টিতে অংশগ্রহণ করতে গিয়ে বিজ্ঞাপন নির্মাতা কুনালের সাথে তার সাক্ষাৎ হয়। 

 

তিনি জিনতাকে অডিশনের জন্য যেতে বলেন। অডিশনে ৫০ জনের মধ্য থেকে তিনি নির্বাচিত হন।পরবর্তীতে তিনি লিরিল সাবানের বিজ্ঞাপনেও কাজ করেন। 

বিনোদন বিভাগের পাঠকপ্রিয় খবর