ঢাকা, ০১ অক্টোবর বৃহস্পতিবার, ২০২০ || ১৬ আশ্বিন ১৪২৭
good-food
১৯০

আমি মরলে কী হতো, সেই পরিকল্পনাও করা হয়: বরিস

লাইফ টিভি 24

প্রকাশিত: ১৯:৩০ ৯ জুন ২০২০  

করোনায় আক্রান্ত হয়ে হাসপাতালে ভর্তি হয়েছিলেন যুক্তরাজ্যের প্রধানমন্ত্রী বরিস জনসন। একপর্যায়ে গুরুতর অসুস্থ হয়ে পড়েন তিনি। ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী ‘মারা গেলে’ কী পদক্ষেপ নেয়া হতো, সেই পরিকল্পনাও করা হয়েছিল। বরিস নিজেই এ বিস্ময়কর তথ্য দিয়েছেন।
বরিসকে ওই সময় বাঁচিয়ে রাখতে ‘লিটার লিটার অক্সিজেন’ দেয়া হয়েছিল। ব্রিটিশ ট্যাবলয়েড দ্য সানকে দেয়া এক সাক্ষাৎকারে তা ফাঁস করেছেন খোদ তিনি নিজেই। 
করোনা আক্রান্ত হয়ে লন্ডনের সেন্ট টমাস হাসপাতালে এক সপ্তাহ কাটান বরিস। এ সময়টা তার মধ্যে অন্যদের দুর্ভোগ বন্ধ করা এবং যুক্তরাজ্যকে ফের ‘সাফল্যের ধারায় ফিরিয়ে আনার’ আকাঙ্ক্ষা জাগিয়ে দেয়।
গেল ২৬ মার্চ বরিসের করোনা শনাক্ত হয়। এর ১০ দিন পর তাকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। পরে তিনরাত সেখানে নিবিড় পরিচর্যা কেন্দ্রে (আইসিইউ) থাকেন তিনি।
কথামালার গাঁথুনিতে ওই অভিজ্ঞতাই তুলে ধরেছেন ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী। তিনি বলেন, কয়েক দিনের মধ্যেই আমার শরীর খারাপ হয়ে যায়। খুব বাজে পর্যায়ে চলে গিয়েছিল। এটি বিশ্বাস করা কঠিন।
বরিস বলেন, পরিস্থিতি আরও খারাপ হয়ে গেলে কী করতে হবে, চিকিৎসকরা সেই ব্যবস্থা করে রেখেছিলেন। অসাধারণ সেবার কারণেই আমি সুস্থ হতে পেরেছি। এখনও ভুগতে থাকা অন্যদের তুলনায় নিজেকে ‘ভাগ্যবান’ বলে মনে করছি।
তিনি বলেন, জিজ্ঞেস করতে পারেন, অন্যদের দুর্ভোগ থামানোর বিষয়ে আমার মধ্যে কোনো আকাঙ্ক্ষা জেগেছে কিনা? হ্যাঁ, পুরোপুরি। আরেকটি প্রবল আকাঙ্ক্ষা আমাকে চালিত করছে। সেটা হলো দেশকে আবার সাফল্যের ধারায় ফিরিয়ে আনা, ফের স্বাস্থ্যবান করে তোলা, আমাদের সামর্থ্য অনুযায়ী এগিয়ে চলা। আমার বিশ্বাস, আমরা এটি পারব।
সাক্ষাৎকারে ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী বলেন, পরিস্থিতি অত্যন্ত কঠিন ছিল। এটা অস্বীকার করার কিছু নেই। বারবার নিজেকে প্রশ্ন করেছি, আমি কীভাবে এ থেকে বের হবো?
এর আগে বরিসের বাগদত্তা ক্যারি সিমন্ডস জানান, তারা নিজেদের সদ্যোজাত ছেলের নাম রেখেছেন উইলফ্রেড ল্যরি নিকোলাস জনসন। এ নামের মাধ্যমে তাদের পূর্বপুরুষদের এবং করোনা আক্রান্ত হয়ে হাসপাতালে থাকাকালে প্রধানমন্ত্রীকে চিকিৎসা দেয়া দুই চিকিৎসককে শ্রদ্ধা জানানো হয়েছে।

সাক্ষাৎকার বিভাগের পাঠকপ্রিয় খবর