ঢাকা, ২৭ জুন বৃহস্পতিবার, ২০১৯ || ১৪ আষাঢ় ১৪২৬
LifeTv24 :: লাইফ টিভি 24
১০২

বন্ধ থাকবে অনেক রাস্তা

পহেলা বৈশাখ চলাচল করবেন যে পথে

প্রকাশিত: ২২:৫৬ ১১ এপ্রিল ২০১৯  


রমনা পার্ক ও  সোহরাওয়ার্দী উদ্যান কেন্দ্রিক  যানবাহন ডাইভারশন :

সোনারগাঁও ক্রসিং, বাংলামটর, পরিবাগ গ্যাপ, নেভাল চিফ গলি, সাকুরার গলি, পুলিশ ভবন ক্রসিং, সবজি বাগান ক্রসিং, মিন্টো রোড পূর্ব প্রান্ত, অফিসার্স ক্লাব ক্রসিং, সুগন্ধা ক্রসিং, কাকরাইল চার্চ ক্রসিং, শিল্পকলা একাডেমি গলি, দুদকের গলি, কার্পেট গলি, মৎস্য ভবন ক্রসিং, ইউবিএল ক্রসিং, জিরো পয়েন্ট ক্রসিং, হাইকোর্ট ক্রসিং, রোমানা চত্বর ক্রসিং, বকশীবাজার ক্রসিং, পলাশী ক্রসিং, নীলক্ষেত ক্রসিং, কাঁটাবন ক্রসিং, আজিজ সুপার মার্কেট ক্রসিং, প্রশাসন একাডেমি গলি, শাহবাগ ক্রসিং।

 

যে সব রাস্তায় যানচলাচল বন্ধ থাকবে :

 ১.  বাংলা মটর হতে রুপসী বাংলা, শাহবাগ হতে টিএসসি হতে দোয়েল চত্ত্বর

২.  রুপসী বাংলা হতে  কাকরাইল, মৎস্য ভবন হতে কদম ফোয়ারা

৩.  মৎস্য ভবন হতে শাহবাগ হতে কাঁটাবন

৪.  পলাশী হতে শহীদ মিনার হতে দোয়েল চত্ত্বর হতে হাইকোর্ট ক্রসিং

৫.  বকশী বাজার হতে শহীদ মিনার হতে টিএসসি

৬.  শহীদুল্লাহ হল ক্রসিং হতে  দোয়েল চত্ত্বর

৭.  নীলক্ষেত হতে টিএসসি

 

যান চলাচলের বিকল্প রুট :

১.  মিরপুর রোড-সাইন্স ল্যাব-নিউ মার্কেট-আজিমপুর-বকশি বাজার-চাঁনখারপুল-গুলিস্তান

২.  রাসেল স্কোয়ার-সোনারগাঁও-রেইনবো-মগবাজার-মালিবাগ-রাজমনি-ইউবিএল-গুলিস্তান

৩.  মহাখালী-সাতরাস্তা-মগবাজার-কাকরাইল-রাজমনি-ইউবিএল-গুলিস্তান

৪.  ফার্মগেট-সোনারগাঁও-বাংলামোটর-মৌচাক-মালিবাগ-খিলগাঁও

৫.  ফার্মগেট-সোনারগাঁও-বাংলামটর-মৌচাক-মগবাজার-কাকরাইল চার্চ-রাজমনি-পল্টন-মতিঝিল

 

বর্ষবরণ অনুষ্ঠানে আগত যানসমূহ যে সব জায়গায় পার্কিং করবে :

১.  হলি ফ্যামিলি হাসপাতাল রোড (উত্তর হতে আগত)

২.  পুরাতন এলিফ্যান্ট রোড (উত্তর হতে আগত)

৩. আব্দুল গণি রোড (পূর্ব – দক্ষিণ দিকের গাড়িসমূহ)

৪.  কার্জন হল হতে বঙ্গবাজার হয়ে ফুলবাড়িয়া (দক্ষিণ দিকের গাড়িসমূহ)

৫.  মৎস্য ভবন থেকে কার্পেট গলি (আইন শৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর গাড়িসমূহ)

৬.  শিল্পকলা একাডেমি গলি (আইন শৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর গাড়িসমূহ)

৭.  সুগন্ধা হতে অফিসার্স ক্লাব (ভিআইপি ও মিডিয়ার গাড়িসমূহ)

৮.  কাঁটাবন হতে নীলক্ষেত হয়ে পলাশী পর্যন্ত (দক্ষিণ- পশ্চিম দিকের গাড়িসমূহ)

 

প্রয়োজনে যোগাযোগ : ৯৯৯,  ১০০,  ৯৫৫৯৯৩৩ ,  ০১৭১৩৩৯৮৩১১  ও  ০১৭১১০০০৯৯০

 

উপর্যুক্ত যানবাহন নিয়ন্ত্রণ ব্যবস্থাসমূহ কার্যকর করার বিষয়ে এবং যানবাহন চলাচলে শৃঙ্খলা রক্ষা, যানজট এড়ানো এবং সম্মানিত জনসাধারণের যাতায়াতকে নির্বিঘ্ন ও নিরাপদ করার জন্য ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশকে সর্বাত্মক সহায়তা করার জন্য সম্মানিত নগরবাসী, যানবাহন মালিক ও শ্রমিকবৃন্দের সহযোগিতা কামনা করা হচ্ছে।

নববর্ষ অনুষ্ঠানের সর্বাঙ্গীন সফলতার জন্য নববর্ষ অনুষ্ঠানে আসার সময় সন্দেহজনক কোন সরঞ্জাম / বস্তু / ব্যাগ সাথে বহন না করার জন্য বিশেষভাবে অনুরোধ করা হলো।

 

ডিএমপি কমিশনার মোঃ আছাদুজ্জামান মিয়া বিপিএম (বার), পিপিএম জানিয়েছেন, জনসাধারণ যাতে নিরাপদে ও স্বাচ্ছন্দ্যে রমনা পার্কে হেঁটে যেতে পারে সেজন্য ট্রাফিক ডাইভারশন দিয়ে, রোড ব্লক করে সব যানবাহন চলাচল বন্ধ করা হবে।  প্রত্যেক দর্শনার্থীকে বেরিকেডের সামনে তল্লাশী করে অনুষ্ঠানস্থলের উদ্দেশ্যে পায়ে হেঁটে যেতে দেয়া হবে। পহেলা বৈশাখের অনুষ্ঠানে সমন্বিত ও সুদৃঢ় নিরাপত্তা ব্যবস্থা নেয়া হয়েছে।

 

তিনি বলেন, অনুষ্ঠানস্থালে প্রবেশের ক্ষেত্রে আর্চওয়ে ও মেটাল ডিটেক্টর দিয়ে তল্লাশী করে প্রবেশ করানো হবে। অনুষ্ঠানস্থল ঘিরে থাকবে ওয়াচ টাওয়ার। যেখান থেকে ‘বাইনোকুলার দিয়ে সার্বক্ষণিক পর্যবেক্ষণ করবে পুলিশ। প্রস্তুত থাকবে সোয়াট, বোম্ব ডিসপোজাল ইউনিট, ডিবি ও সিটিটিসির সদস্যরা। রমনা পার্ক, রবীন্দ্র সরোবর ও হাতিরঝিল এলাকায় থাকবে নৌ পুলিশ ও ডুবরী দল। থাকবে মেডিকেল টিম, ফায়ার টেন্ডার ও এ্যাম্বুলেন্সের ব্যবস্থা। পুলিশ কন্ট্রোল রুমের পাশেই থাকবে লস্ট এন্ড ফাউন্ড সেন্টার। রমনা পার্ক ও সোহরাওয়ার্দী উদ্যান কেন্দ্রিক থাকবে সেন্ট্রালি মাইকিং এর ব্যবস্থা।

 

কমিশনার বলেন, রমনা পার্কে ছায়ানটের অনুষ্ঠান কেন্দ্রিক থাকবে অন্তঃবেষ্টনী ও বহিঃবেষ্টনীর নিরাপত্তা ব্যবস্থা। রমনা পার্ক ও সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে প্রবেশ ও বাহির পথের নির্দেশনা দেয়া থাকবে। নির্দিষ্ট পথ দিয়ে প্রবেশ ও বের হতে হবে।  

‘পহেলা বৈশাখ কেন্দ্রিক সব অনুষ্ঠানস্থল থাকবে ধুমপান মুক্ত। এছাড়াও ইভটিজিং প্রতিরোধে কাজ করবে বিশেষ টিম। ভ্রাম্যমাণ আদালতের মাধ্যমে ধুমপায়ী ও ইভটিজারদের শাস্তির ব্যবস্থা করা হবে।

 

তিনি জানান, পহেলা বৈশাখে প্রত্যেক নাগরিককে ফুল ও বাতাসা দিয়ে শুভেচ্ছা জানাবে ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশ। এছাড়া আটটি স্থান থেকে জনসাধারণের মাঝে বিনামূল্যে বিশুদ্ধ খাবার পানি সরবরাহ করবে ডিএমপি।

 

‘মঙ্গল শোভাযাত্রারনিরাপত্তা নিয়ে পুলিশ কমিশনার বলেন, প্রতিবছরের মতো এবারো একই রুটে ‘মঙ্গল শোভাযাত্রা অনুষ্ঠিত হবে। শোভাযাত্রার পুরো রুট থাকবে সিসি ক্যামেরার আওতায়। সোয়াট, ডিবি, ইউনিফর্মে থাকা পুলিশ দিয়ে ‘মঙ্গল শোভাযাত্রায়বেষ্টনি করা হবে। মাঝপথে কাউকে মঙ্গল শোভাযাত্রায় ঢুকতে দেয়া হবে না। মুখোশ মুখে পড়া যাবে না। তবে হাতে রাখা যাবে। কোন প্রকার বাণিজ্যিক ব্যানার নিয়ে ‘মঙ্গল শোভাযাত্রায়প্রবেশ করতে দেয়া হবে না। প্রত্যেককে তল্লাশী করে ‘মঙ্গল শোভাযাত্রায় অংশগ্রহণ করতে দেয়া হবে।

 

 

 


এই বিভাগের আরো খবর