ঢাকা, ১৮ অক্টোবর শুক্রবার, ২০১৯ || ২ কার্তিক ১৪২৬
LifeTv24 :: লাইফ টিভি 24
৮৭

ট্রেনের সিডিউল লন্ডভন্ড

প্রকাশিত: ২০:৪০ ৯ আগস্ট ২০১৯  


যাত্রীদের চাপ, ট্রেনের দুর্ঘটনার কারণে ঈদে ঘরমুখো মানুষের দুর্ভোগ চরমে পৌঁছেছে। কমলাপুর স্টেশনে যাত্রীদের চাপে ট্রেনগুলো নির্ধারিত সময়ে ছাড়তে পারছে না।

এদিকে উত্তরবঙ্গের সঙ্গে প্রায় আড়াই ঘণ্টা রেল যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন থাকার পর আবার তা স্বাভাবিক অবস্থায় ফিরে এসেছে।

জানা গেছে, বঙ্গবন্ধু সেতুর পূর্বপাশে ঢাকা থেকে খুলনাগামী সুন্দরবন এক্সপ্রেস ট্রেনটি দুপুর ১টা ৫০ মিনিটে বিপুলসংখ্যক যাত্রী নিয়ে বঙ্গবন্ধু সেতুতে ওঠার প্রায় এক কিলোমিটার আগে ‘ছ’কোচের একটি বগি লাইনচ্যুত হয়।এতে উত্তরবঙ্গের সঙ্গে ঢাকার সব ধরনের রেল যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন হয়ে যায়। তাৎক্ষণিক ব্যবস্থা গ্রহণ করে লাইনচ্যুত বগিটি যথাস্থানে নেওয়া হয়। এজন্য ২ ঘন্টা সময় লাগে। বিকেল ৪টার দিকে রেল যোগাযোগ স্বাভাবিক হয়।

এদিকে ট্রেন দুর্ঘটনার কারনে উত্তরবঙ্গগামী ধুতকেতু এক্সপ্রেস ট্রেন আটকা পড়ে।এই ট্রেনটি এমনিতে আজ ৪ঘন্টা দেরীতে ছেড়ে যায়। দুর্ঘটনার কবলে পড়ে ঈদের আগে ধুমকেতু এক্সপ্রেস ট্রেনটির সিডিউল একেবারেই লন্ডভন্ড হয়ে গেছে। এছাড়া নীলসাগর এক্সপ্রেস ৫ ঘন্টা, একতা এক্সপ্রেস ২ ঘন্টা, সিল্কসিটি এক্সপ্রেস ৩ ঘন্টা, সুন্দরবন এক্সপ্রেস ৪ ঘন্টা বিলম্বে চলাচল করছে। 
শুক্রবার সকালে রেলমন্ত্রী নুরুল ইসলাম সুজন কমলাপুর স্টেশন পরিদর্শনে এসে যাত্র্রীদের দুর্ভোগের বিষয়টি স্বীকার করে বলেন, রেলের যাবতীয় ব্যর্থতার দায়ভার স্বীকার করছি। তবে যাত্রীদের অস্বাভাবিক চাপের কারেন ঈদের আগে সিডিউল মেলানো সম্ভব হবে না। 
এদিকে কমলাপুর স্টেশনে গত বৃহস্পতিবার থেকে জনস্রোত সৃষ্টি হয়েছে। ধারন ক্ষমতার কয়েকগুন যাত্রী নিয়ে আন্তনগর ট্র্রেনগুলো গন্তব্যে ছেড়ে যাচ্ছে। কমলা পুর স্টেশনে মানুষ আর মানুষ। নদীপথে ফেরীজট এবং ঢাকা টাঙ্গাইল মহাসড়কে তীব্র যানজটের কারনে এবার ঘরে ফেরা মানুষের দুর্ভোগ চরমে পৌেছেছে। যে কারেন মানুষ ট্রেনের দিকে বেশী ঝুকছে। রেলওয়ের অতিরিক্ত মহাপরিচালক মিয়া জাহান জানান, যাত্রীচাপের কারনে ট্রেনের গতি কমিয়ে দেয়া হয়েছে। তারপর সুন্দরবনে এক্সপ্রেস ট্রেনের দুঘটনার কারনে বেশ কিছু ট্রেনের যাত্রা বিলম্ব হবে।


এই বিভাগের আরো খবর