ঢাকা, ২১ আগস্ট বুধবার, ২০১৯ || ৫ ভাদ্র ১৪২৬
LifeTv24 :: লাইফ টিভি 24
১৭৬

দীর্ঘ হতে যাচ্ছে যুক্তরাষ্ট্রের অচলাবস্থা

প্রকাশিত: ১২:৫১ ২৩ ডিসেম্বর ২০১৮  

সংগৃহীত

সংগৃহীত


বাজেট ব্যয় নিয়ে কোনো ধরণের সমঝোতা না হওয়ায় যুক্তরাষ্ট্র সরকারের আংশিক অচলাবস্থা বড়দিনের ছুটি পর্যন্ত স্থায়ী হতে পারে।


অচলাবস্থার সুরাহা করতে যুক্তরাষ্ট্র সিনেটের রিপালিকান ও ডেমোক্রেটদের মধ্যে সমঝোতা হওয়া দরকার, কিন্তু সমঝোতা সুরাহা না হওয়ায় সিনেটের অধিবেশন বৃহস্পতিবার পর্যন্ত মুলতবী করা হয়েছে বলে। খবর বিবিসি’র।


বড়দিনের সময়গুলো প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের ফ্লোরিডার বিভিন্ন জায়গায় ছুটি কাটানোর কথা থাকলেও তা বাতিল করা হয়েছে। ওই সময়টিতে রাজধানী ওয়াশিংটনেই থাকবেন ট্রাম্প থাকবেন বলে বিবিসির বরাতে জানা গেছে।


মেক্সিকো সীমান্তে দেয়াল নির্মাণ করার জন্য বাজেটে বরাদ্দ পাঁচ বিলিয়ন ডলার রাখার প্রস্তাব করেছিলেন ট্রাম্প। কিন্তু সিনেটের ডেমোক্রেটরা তাতে  সম্মতি তো দূরের কথা উল্টো বাধা দিলে শুক্রবার মধ্যরাতের পর যুক্তরাষ্ট্র সরকার আংশিক অচল হয়ে পড়ে।


বাজেট নিয়ে এভাবে আলোচনা চলতে থাকলে ‘দীর্ঘদিনের জন্য’ সরকার অচল হয়ে পড়তে পারে বলে সতর্ক করেছিলেন ট্রাম্প। অপরদিকে ডেমোক্রেটরা তাকে বলেছেন, “আপনাকে অবশ্যই দেয়াল নির্মাণ বাদ দিতে হবে।” না হলে এই অচলাবস্থা বিরাজমান থাকবে দীর্ঘদিন।


তবে দুপক্ষের মধ্যস্থতাকারীরা আলোচনা এখনও যথারীতি চালিয়ে যাচ্ছেন বলে জানিয়েছেন ভাইস প্রেসিডেন্ট মাইক পেন্স।


সময়ানুযায়ী তহবিল বরাদ্দ না হওয়ায় শনিবার দিনের শুরু থেকে যুক্তরাষ্ট্রের কেন্দ্রীয় সরকারের ১৫টি বিভাগের মধ্যে নয়টির কার্যক্রম আংশিক বন্ধ হয়ে যেতে শুরু করে।

এসবের মধ্যে পররাষ্ট্র, হোমল্যান্ড সিকিউরিটি, পরিবহন, কৃষি ও বিচার বিভাগ অন্যতম।

এর ফলে কেন্দ্রীয় সরকারের প্রায় আট লাখ কর্মীকে বেতন ছাড়াই কাজ করতে বা বাধ্যতামূলক অস্থায়ী ছুটিতে যেতে হবে।

চলতি বছর এই নিয়ে তৃতীয়বারের মতো যুক্তরাষ্ট্রের কেন্দ্রীয় সরকারের তহবিল বরাদ্দ সময়ানুযায়ী হলো না। তবে আগের দুটি অচলাবস্থা স্বল্প সময় স্থায়ী হয়েছিল।


শনিবার মার্কিন সিনেট এক বিরল অধিবেশনে বসলেও তা বেশিক্ষণ স্থায়ী না হয়েই মুলতবী ঘোষণা করা হয়।


সংখ্যাগরিষ্ঠ রিপাবলিকান নেতা মিচ ম্যাককনল জানিয়েছেন, ‘মুলতবীর বাটন’ চাপা হয়ে গেছে এবং বাজেট চুক্তির বিষয়ে ডেমোক্রেটদের দিক থেকে কোনো সমঝোতা না হলে এবং প্রেসিডেন্টের কাছ থেকে কোনো স্বাক্ষর না এলে সিনেটে নতুন কোনো ভোটের সুযোগ নেই। তিনি বলেন আমরা এটার স্থায়ী সমাধানের কথা ভাবছি। প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প যত তাড়াতাড়ি বুঝবেন তত ভালো বলেই মন্তব্য করেন তিনি।

সিনেট ডেমোক্রেট নেতা চাক শুমার বলেছেন, বৃহস্পতিবার রিপাবলিকান নিয়ন্ত্রিত প্রতিনিধি পরিষদে দেয়াল নির্মাণের ৫৭০ কোটি ডলারের তহবিলসহ বাজেট বিল পাস হয়েছিল। কিন্তু এটি ‘সিনেটে কখনো পাস হবে না, আজকে না, আগামী সপ্তাহে না, আগামী বছরও না’।

তিনি যোগ করেন, “তাই মিস্টার প্রেসিডেন্ট, যদি আপনি সরকারকে সচল করতে চান, আপনাকে দেয়াল নির্মাণ বাদ দিতেই হবে। এর৷ কোন বিকল্প নেই। অপ্রয়োজনীয়, অকার্যকর ও অপব্যায়ী নীতির জন্য যুক্তরাষ্ট্রের করদাতাদের অর্থের অপচয়ে সিনেট আগ্রহী নয়।”


এই বিভাগের আরো খবর