ঢাকা, ১৮ সেপ্টেম্বর বুধবার, ২০১৯ || ৩ আশ্বিন ১৪২৬
LifeTv24 :: লাইফ টিভি 24
৪২

ফেসবুকে বাজে মন্তব্য, জিডির পর মামলা করছেন ফারিয়া

প্রকাশিত: ১৯:১৯ ৪ সেপ্টেম্বর ২০১৯  


সোশ্যাল মিডিয়া নিয়ে মহাবিপাকে পড়েছেন অভিনেত্রী শবনম ফারিয়া। তার ব্যক্তিগত ফেসবুক অ্যাকাউন্ট ও পেজে বেশ কয়েকজন ক্রমাগত বাজে মন্তব্য ও নানা ধরনের মিথ্যা কথা ছড়াচ্ছেন। যে কারণে প্রচণ্ড বিব্রত ও বিরক্ত তিনি। 
পাশাপাশি ফারিয়ার ব্যক্তিগত মোবাইল নাম্বার ফেসবুকে ছড়িয়েছেন এক ব্যক্তি। মঙ্গলবার মেহেদী হাসান ফরহাদ নামে ওই ব্যক্তির বিরুদ্ধে পল্টন থানায় সাধারণ ডায়েরি (জিডি) করেন ‘দেবী’খ্যাত তারকা। জিডি নম্বর ১৮৮। অভিযুক্তদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিতে এবার সাইবার ট্রাইব্যুনালে মামলা করতে যাচ্ছেন তিনি। 
বুধবার সংবাদমাধ্যমকে ফারিয়া বলেন, রিয়েলিটি শো‘কে হবে মাসুদ রানা’র প্রথম পর্যায়ের বাছাই পর্বের পাঁচজন বিচারকের একজন ছিলাম আমি। প্রতিযোগিতাটির কিছু দৃশ্য নিয়ে অনেকে সোম্যাল মিডিয়ায় নানা ধরনের কথা বলছেন। প্রতিযোগীদের সঙ্গে বিচারকদের খারাপ ব্যবহারের কথা বলা হচ্ছে।
তিনি যোগ করেন,মূলত সবকিছুই ছিল শো’র অংশ। ‘মাসুদ রানা’ খুব কঠিন একটি চরিত্র। এজন্য অভিনেতার প্রচণ্ড মানসিক শক্তি দরকার। তাই প্রতিযোগীদের নানাভাবে মানসিক শক্তি ও বুদ্ধিমত্তা পরীক্ষা করা হয়। কিন্তু কেউ কেউ সেটাকে ভুলভাবে ব্যাখ্যা করছে। 
ফারিয়া বলেন,বেশ কয়েকদিন ধরে আমার ফেসবুক অ্যাকাউন্ট ও পেজে অনেকে বাজে মন্তব্য করছেন। একজন আমার ব্যক্তিগত মোবাইল নম্বর ফেসবুকে প্রকাশ করে ফেলেছেন। ফলে অনেক অপ্রত্যাশিত কল পাচ্ছি, নিরাপত্তাহীনতায় ভুগছি। তাই বাধ্য হয়ে থানায় জিডি করেছি। এছাড়া পুলিশের সাইবার ক্রাইম ইউনিটে অভিযোগ করেছি। আগামী রোববার বিষয়টি নিয়ে সাইবার ট্রাইব্যুনালে মামলা করব।
‘কে হবে মাসুদ রানা’র প্রাথমিক পর্যায়ের অন্য বিচারকরা হলেন- শাফায়েত মনসুর রানা, ইফতেখার আহমেদ ফাহমি, মুহাম্মদ মোস্তফা কামাল রাজ, জাকিয়া বারী মম প্রমুখ। চ্যানেল আইতে ৬ সেপ্টেম্বর ‘কে হবে মাসুদ রানা’ প্রতিযোগিতার রাউন্ড পর্বের প্রচার শেষ হওয়ার কথা। এরপরই অনুষ্ঠিত হবে এর গ্র্যান্ড ফিনালে।